Scrooling

হাঁপানি ও অ্যালার্জিজনিত সমস্যায় ভুগছেন ? বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডাঃ অয়ন শিকদার আগামী ২৫ আগস্ট বর্ধমানে আসছেন। নাম লেখাতে যোগাযোগ 9734548484 অথবা 9434360442 # টি টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড ক্রিকেট ২০২৪ : ভারতের বিশ্ব রেকর্ড, প্রথম থেকে শেষ সব ম্যাচে ভারতের জয় # কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন আউসগ্রামের বিউটি বেগম # নরেন্দ্র মোদীর মন্ত্রীসভায় পশ্চিমবঙ্গ থেকে শপথ নিলেন ডঃ সুকান্ত মজুমদার ও শান্তনু ঠাকুর # আঠারো তম লোকসভা ভোটের ফলাফল : মোট আসন ৫৪৩টি। NDA - 292, INDIA - 234, Others : 17 # পশ্চিমবঙ্গে ভোটের ফলাফল : তৃণমূল কংগ্রেস - ২৯, বিজেপি - ১২, কংগ্রেস - ১

সুষম খাদ্যাভ্যাস থেকে ইলেকট্রনিক দূষণ ও আর্থিক নিরাপত্তা বিষয়ে স্কুল ছাত্র-ছাত্রীদের সচেতনতার পাঠ দিচ্ছে স্টার্টআপ ফাউন্ডেশন


 

সুষম খাদ্যাভ্যাস থেকে ইলেকট্রনিক দূষণ ও আর্থিক নিরাপত্তা বিষয়ে স্কুল ছাত্র-ছাত্রীদের সচেতনতার পাঠ দিচ্ছে স্টার্টআপ ফাউন্ডেশন


Sangbad Prabhati, 18 June 2024

ডিজিটাল ডেস্ক রিপোর্ট, সংবাদ প্রভাতী : কাঞ্চননগর দীননাথ দাস উচ্চ বিদ্যালয়ে একটি মনোগ্রাহী সেমিনার উপহার দেয় স্টার্টআপ ফাউন্ডেশন। প্রধান আলোচ্য বিষয় ছিল তিনটি - স্থিতিশীল খাদ্য, বৈদ্যুতিন বর্জ্য নিষ্কাশন ও আর্থিক সাক্ষরতা।

স্থিতিশীল খাদ্যের ওপর প্রজেক্ট ডেমনোস্ট্রেটর অহনা ব্রহ্মচারী বলেন, আজকের দিনে কী খাচ্ছি একবার ভেবে দেখে দরকার। ফাস্ট ফুড আর প্যাকেটের খাবার কমিয়ে যথাসম্ভব প্রাকৃতিক খাবার খাওয়ার চেষ্টা করো। মধু দুধ ইত্যাদি যতটা স্বাভাবিকভাবে পাওয়া যায় ততটাই ঠিক। কৃত্রিম উৎপাদনে যে রাসায়নিক বা প্রিজারভেটিভ ব্যবহার করা হয় তা শেষ পর্যন্ত আমাদের ক্ষতি করে। মনে রাখা উচিত, মৌমাছি যদি না বাঁচে তাহলে পরাগমিলন ব্যাহত হবে, ফসল উৎপাদন বন্ধ হয়ে যাবে।

বৈদ্যুতিন বর্জ্য নিষ্কাশন বিষয়ে চিফ প্রজেক্ট এক্সিকিউটিভ অফিসার পার্থপ্রতিম মিত্র বলেন, হুলাডেক কোম্পানিতে নষ্ট হয়ে যাওয়া যন্ত্রপাতি জমা দেওয়া যায় এবং এভাবে পরিবেশ দূষণমুক্ত করা সম্ভব। কিছুদিন পর তারা এই বিদ্যালয়ে এসে বাতিল ফোন চার্জার, কম্পিউটার প্রিন্টার ও তৎসংলগ্ন যন্ত্রাংশ রূপ বর্জ্য সংগ্রহ করবে, বিনিময়ে তোমরা রিওয়ার্ডও পাবে।

কৌস্তুভ সামন্ত বলেন, ব্যাঙ্ক আর ডাকঘরের পলিসিগুলো ভালভাবে জেনে তোমরা নিজেদের উপার্জন বাড়াও। সামান্য টাকাকেও ছোট বলে মনে করো না। ফ্রডের পাল্লায় পড়ো না। বাবা-মাকে শিখিয়ে রাখো যে, কোন অজানা লিঙ্কে তাঁরা যেন ক্লিক না করেন। কাউকে যেন ওটিপি না বলেন। এভাবে পরিবারকে সাহায্য করো। গেমিং ইন্ডাস্ট্রি তোমাদের সব নষ্ট করে দিচ্ছে। এটা প্রতারণা। গেম খেলো, না আর লটারিতে যেও না। পরিশ্রম আর বুদ্ধি খাটিয়ে বড়লোক হও।

অনুষ্ঠানে প্রধানশিক্ষক ড. সুভাষচন্দ্র দত্ত বলেন, মাধ্যমিক উচ্চমাধ্যমিকের পর এখন অনন্ত সম্ভাবনা, বিশেষত ডিজিটাল ও ইলেকট্রনিক দুনিয়ায়। উপার্জন সবার দরকার, পড়াশোনার পাশাপাশি সেই শিক্ষাই পেল ছাত্রছাত্রীরা । আর সবার আগে চাই সঠিক খাদ্যে শরীর আর মন সুস্থ রাখা। সেটিও স্টার্টআপ ফাউন্ডেশন এর প্রতিনিধিরা আজ সুন্দরভাবে সবাইকে বুঝিয়েছেন। 

সংস্থাকে বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানানোর পাশাপাশি পুনরায় আসতে অনুরোধ করা হয়।