চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # মাধ্যমিকে যুগ্ম প্রথম বর্ধমান সিএমএস হাই স্কুলের রৌনক মন্ডল এবং বাঁকুড়ার রাম হরিপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অর্ণব ঘড়াই # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়মাধ্যমিকের পর উচ্চমাধ্যমিকেও তাক লাগালো কাটোয়ার অভীক পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের আন্দোলন

প্যাব রিপোর্ট অনুযায়ী পার্শ্বশিক্ষক, শিক্ষাবন্ধু, স্পেশাল এডুকেটরদের নয়া বেতন বিন্যাস জানালেন জয়দেব গিরি


প্যাব রিপোর্ট অনুযায়ী পার্শ্বশিক্ষক, শিক্ষাবন্ধু, স্পেশাল  এডুকেটরদের নয়া বেতন বিন্যাস জানালেন জয়দেব গিরি

ডেস্ক রিপোর্ট : পশ্চিমবঙ্গের প্যাব রিকুইজিসন নিয়ে রাজ্যের সাথে আলোচনা হয়েছে কেন্দ্রের। যদিও সেই সংক্রান্ত কোনো রিপোর্ট সরকারী ভাবে এখনো প্রকাশ করা ন হয়নি। কিন্তু ১৬ জুন মিটিং এর পর নির্দিষ্ট সোর্স থেকে কিছু তথ্য জানতে পেরেছেন পঃ বঃ তৃণমূল কংগ্রেস শিক্ষা সেলের সেন্ট্রাল কমিটির কনভেনার জয়দেব গিরি। সেই তথ্যই তিনি আমাদের সঙ্গে শেয়ার করেছেন। রাজ্যের পার্শ্বশিক্ষক, শিক্ষাবন্ধু, স্পেশাল এডুকেটর, এস এস কে, এম এস কে সহ অন্যান্যদের নতুন বেতন বিন্যাস কেমন হতে চলেছে ? সে বিষয়ে জানালেন তৃণমূল শিক্ষা সেলের সেন্ট্রাল কমিটির কনভেনার জয়দেব গিরি। তিনি জানান এম এইচ আর ডি কর্মীদের কাছ থেকে বিশেষ সোর্সে তিনি জানতে পেরেছেন যে রাজ্য সরকার কি চেয়েছিলেন আর কেন্দ্র কি অনুমোদন দিল। সেই বিষয়ে তিনি জানান গ্রুপ ডি'র জন্য চাওয়া হয়েছিল ১৭০০০ টাকা পাওয়া গেছে ১৬০০০ টাকা। গ্রুপ সি র জন্য চাওয়া হয়েছিল ২০০০০ টাকা পাওয়া গেছে ১৯০০০ টাকা। প্রাইমারি প্যারা টিচারদের জন্য চাওয়া হয়েছিল ২০০০০ টাকা পাওয়া গেছে ১৯৫০০ টাকা।আপার প্রাইমারি প্যারা টিচারদের জন্য চাওয়া হয়েছিল ২২৮০০ টাকা পাওয়া গেছে ২২০০০ টাকা।স্পেশাল এডুকেটরদের জন্য চাওয়া হয়েছিল ২০০০০ পাওয়াগেছে ২২৫০০ টাকা। শিক্ষাবন্ধুদের জন্য চাওয়া হয়েছিল ১৮০০০ টাকা পাওয়া গেছে ২০০০০। ডিস্ট্রিক্ট কো-অর্ডিনেটরের জন্য চাওয়া হয়েছিল ২৫০০০ টাকা পাওয়া গেছে ২২০০০টাকা। স্টেট কো-অর্ডিনেটরের জন্য চাওয়া হয়েছিল ২৮০০০ টাকা পাওয়া গেছে ২৫০০০টাকা। একাউন্ট কো অর্ডিনেটরের জন্য চাওয়া হয়েছিল ৩০০০০ টাকা পাওয়া গেছে ২৮০০০ টাকা। আর প্ল্যানিং অর্ডিনেটর এর জন্য ৩৫০০০ টাকা চাওয়া হলেও পাওয়া গেছে ২৮৫০০ টাকা। যদিও জয়দেব বাবু বলেন এটা কোনো ফাইনাল লিস্ট নয়, কিন্তু বেতন কিছু বাড়ছেই এবিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই। তাঁর এই কথায় আশায় বুক বাঁধছেন এই প্যারা টিচার, শিক্ষাবন্ধু সহ অন্যান্যরা। এখন দেখার সত্যি বেতন বাড়ে কিনা বা কতটা বাড়ে। সেদিকেই তাকিয়ে প্যারা টিচার সহ অন্যান্যরা।

Post a Comment

0 Comments