Scrooling

হাঁপানি ও অ্যালার্জিজনিত সমস্যায় ভুগছেন ? বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডাঃ অয়ন শিকদার আগামী ২৫ আগস্ট বর্ধমানে আসছেন। নাম লেখাতে যোগাযোগ 9734548484 অথবা 9434360442 # টি টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড ক্রিকেট ২০২৪ : ভারতের বিশ্ব রেকর্ড, প্রথম থেকে শেষ সব ম্যাচে ভারতের জয় # কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন আউসগ্রামের বিউটি বেগম # নরেন্দ্র মোদীর মন্ত্রীসভায় পশ্চিমবঙ্গ থেকে শপথ নিলেন ডঃ সুকান্ত মজুমদার ও শান্তনু ঠাকুর # আঠারো তম লোকসভা ভোটের ফলাফল : মোট আসন ৫৪৩টি। NDA - 292, INDIA - 234, Others : 17 # পশ্চিমবঙ্গে ভোটের ফলাফল : তৃণমূল কংগ্রেস - ২৯, বিজেপি - ১২, কংগ্রেস - ১

Bardhaman Chhandam বর্ধমান ছন্দমের ৩২ তম বার্ষিক নৃত্য উৎসব


 

Bardhaman Chhandam

বর্ধমান ছন্দমের ৩২ তম বার্ষিক নৃত্য উৎসব




Sangbad Prabhati, 23 June 2024

ডিজিটাল ডেস্ক রিপোর্ট, সংবাদ প্রভাতী : প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও বর্ধমান ছন্দম তাদের বার্ষিক উৎসবের আয়োজন করেছিল। জেলার পরিচিত নৃত্য শিল্পী তথা নৃত্য পরিচালক মেহবুব হাসান এর পরিচালনায় ছন্দম তাদের ৩২ তম উৎসব উদযাপন করে বর্ধমান মিউনিসিপাল হাই স্কুলের রাজেন্দ্র ভবন মঞ্চে। মঞ্চের নামকরণ করা হয়েছিল সদ্য প্রয়ত নাট্য ব্যক্তিত্ব রমাপতি হাজরা নামে। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন জেলার বিশিষ্ট নৃত্যশিল্পী তথা পরিচালিকা রীতা চক্রবর্তী।

 অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পূর্ব বর্ধমান জেলা তথ্য ও সংস্কৃতি আধিকারিক রাম শঙ্কর মন্ডল, জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত শিক্ষক অরূপ চৌধুরী, শিক্ষারত্ন পুরস্কারপ্রাপ্ত শিক্ষক তাপস কুমার পাল, বর্ধমান সাহিত্য পরিষদের সম্পাদক কাশীনাথ গাঙ্গুলী, মিউনিসিপাল হাই স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক অরুণাভ চক্রবর্তী এবং প্রাথমিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক স্বরূপ হোড়। ৩২ তম বার্ষিক উৎসবের সম্মাননা জ্ঞাপন করা হয় বিশিষ্ট নাট্য শিল্পী বর্ধমান নটরাজ ইউনিটের কর্ণধার আরতি ঘোষ কে। 

উৎসবে 'আনন্দধারা' এবং 'ছুঁনে কি আশা' শীর্ষক নৃত্যানুষ্ঠান পরিবেশন করে ছন্দমের ছাত্রীরা। ছিল শাস্ত্রীয় ও উপশাস্ত্রীয় নৃত্য। উপস্থিত সকলকে মুগ্ধ করে বনপাহারি নাচে, শিব বন্দনা, কালো ভ্রমর, শুকনো পাতায় নূপুর, তোমায় হৃদয়ে রাখব, দিল হ্যায় ছোটা, বম বম বোলে, বুমরো বুমরো নৃত্য। জমজমাট সুন্দর নৃত্যানুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে ঈপ্সিতা সিংহ রায়, ইমন ইশা, ঋদ্ধি হাটি, ইন্না রুকাইয়া মেহেবুব, প্রত্যুশা ঘোষাল, দীপশিখা বটব্যাল, মোহনা মুখার্জী, রিধিমা সেন, মৈত্রী মল্লিক, আরাধ্যা দত্ত, অন্বেষা দত্ত, তমহা দত্ত, শেখ আফিয়া জাহিদ, শেখ ইফাত আরা, পরিণীতা চ্যাটার্জী, সৌমিতা মাঝি, প্রাপ্তি কর রায় দত্ত, মৈত্রী গোস্বামী, স্বস্তিকা ঘোষ, শ্রীপর্ণা ঘোষ, ঋতিকা ঘোষ, সমৃদ্ধি মুখার্জী, পাপিয়া ঘোষাল, ভাস্বরা ব্যানার্জী, অদিতি সামন্ত, ইপসা ইনাক্ষি, ফাইয়া রহমান, চূর্ণী মুখার্জী এবং মেঘদূতি ভট্টাচার্য। 

অনুষ্ঠানে ২০২৩ শিক্ষাবর্ষে সর্বাধিক উপস্থিতির জন্য পদক পায় অন্বেষা দত্ত, শেখ আফিয়া জাহিন এবং শেখ ইফাত আরা। একই সঙ্গে ২০২৩ শিক্ষাবর্ষের সেরা ছাত্রীর পুরস্কার পায় স্বস্তিকা ঘোষ। 

সমগ্র অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন আকাশবাণীর শিল্পী কল্লোল কোনার, ভাষ্য পাঠ করে আমিন মেহবুব সৃজন। অনুষ্ঠান পরিচালনা ও পরিকল্পনায় ডাঃ মেহেবুব হাসান এবং সহযোগিতায় ইন্না রুকাইয়া মেহবুব মুদ্রা। এছাড়া স্মরণিকা প্রকাশ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাক্তন সহকারী তথ্য অধিকর্তা অরবিন্দ সরকার, সাংবাদিক উদিত সিংহ, শামা প্রসাদ চৌধুরী সহ বিশিষ্ট বাচিক শিল্পী ললিত কোনার, চিত্রশিল্পী সুবীর রায়, উত্তম দত্ত ও সভাপতি অধ্যাপক সমীর চ্যাটার্জী।