চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

নারীর ক্ষমতায়নে গ্রন্থাগারের ভূমিকা শীর্ষক এক সেমিনার


 

নারীর ক্ষমতায়নে গ্রন্থাগারের ভূমিকা শীর্ষক সেমিনার





Lutub Ali
Sangbad Prabhati, 15 March 2024

লুতুব আলি, আসানসোল : নারীর ক্ষমতায়নে গ্রন্থাগারের ভূমিকা শীর্ষক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হল আসানসোলের কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে। আয়োজক কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার ও কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়। ১৪ মার্চ কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের এই সেমিনারে স্বাগত ভাষণ দেন কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাগারিক বিশ্বজিৎ সাহা। এই সেমিনারে সূচক ভাষণ দেন কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. সজল কুমার ভট্টাচার্য। এই সেমিনারে উপস্থিত থেকে মননশীল বক্তব্য রাখেন বিশ্বভারতীর গ্রন্থাগার ড. নিমাই সাহা, সিধু কানহু বিরসা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন গ্রন্থাগারিক প্রণব হাজরা, কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের নিবন্ধক ড. চন্দন কোনার, এই বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. আপ্রী দত্ত। এই সেমিনারের বক্তারা নারীর ক্ষমতায়নে গ্রন্থাগারের ভূমিকা প্রসঙ্গে যে মননশীল আলোচনা করেন তার সারমর্ম হল : বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির অগ্রগতির কারণে সাম্প্রতিক সময়ে নারীর ক্ষমতায়নে গ্রন্থাগারের ভূমিকা একটি উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন সাধিত হয়েছে। অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে একটি কার্যকর শিক্ষা ব্যবস্থা এবং সুসজ্জিত গ্রন্থাগার গুলি নারীর ক্ষমতায়ন এবং একটি সভ্য সমাজ গঠনের জন্য অপরিহার্য হয়ে ওঠে। গ্রন্থাগার গুলি শিক্ষার মূল ভিত্তি হিসাবে কাজ করে, আনুষ্ঠানিক এবং আনুষ্ঠানিক শিক্ষার জন্য অত্যাবশ্যক একটি জীবনব্যাপী শেখার প্রক্রিয়া লালন করে। গ্রন্থাগার গুলি তাদের বৃদ্ধি এবং বিকাশের জন্য উদ্দীপনাপূর্ণ সুযোগ প্রদান করে নারীর ক্ষমতায়নের চ্যালেঞ্জে সাড়া দেয়। 

গ্রন্থাগার, গতিশীল এবং অভিযোজিত প্রতিষ্ঠান হিসাবে, মহিলাদের জীবনে ইতিবাচক পরিবর্তনের জন্য অনুঘটক হিসাবে কাজ করার সম্ভাবনা থাকে। বৈচিত্র্যময় এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক কৌশল বাস্তবায়নের মাধ্যমে, গ্রন্থাগার গুলি নিশ্চিত করতে পারে যে নারীরা তাদের সামগ্রিক উন্নয়নের জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য ও সংস্থানগুলিতে ন্যায় সঙ্গত এক আক্সেস পাবে। ক্ষমতায়নের প্রতিশ্রুতি তথ্য প্রদানের বাইরে যায়। এটি এমন স্থান তৈরি করে যা মহিলাদের অভিজ্ঞতার বৈচিত্র্যকে স্বীকৃতিদেয় এবং উদযাপন করে। উপযোগী প্রোগ্রাম গুলি অফার করে এবং এই প্রচেষ্টা গুলির প্রভাবকে প্রসারিত করে এমন অংশীদায়িত্বকে উৎসাহিত করে। গ্রন্থাগার গুলির বিকাশের সঙ্গে সঙ্গে নারীর ক্ষমতায়নের তাদের ভূমিকা ক্রমবর্ধমান গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে। এটি আরও ন্যায় সঙ্গত এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক সমাজে অবদান রাখে। এদিনের এই সেমিনারে নারী বিষয়ক মনোজ্ঞ আবৃত্তি উপস্থাপনা করেন সুলগ্না দত্ত নন্দী, ও কৃষ্ণা রায়। সংগীত পরিবেশন করেন ড. গৌরব চৌধুরী। সমগ্র অনুষ্ঠান শেষে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন গ্রন্থাগারিক বিশ্বজিৎ সাহা।