চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

বেরুগ্রাম স্কুলের প্রতিষ্ঠা দিবসে রক্তদান শিবির ও বিভিন্ন অনুষ্ঠান


 

বেরুগ্রাম স্কুলের প্রতিষ্ঠা দিবসে রক্তদান শিবির ও বিভিন্ন অনুষ্ঠান 




Atanu Hazra
Sangbad Prabhati, 18 January 2024

অতনু হাজরা, জামালপুর : ৭৪ বছরে পদার্পণ করলো জামালপুরের বেরুগ্রাম আচার্য্য গিরিশ চন্দ্র বসু বিদ্যাপীঠ। সেই উপলক্ষ্যে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষ্যে আজ তাঁরা একটি রক্তদান শিবিরের আয়োজন করেন। প্রভাত ফেরির মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। অনুষ্ঠানে অতিথি হিসাবে রক্তদাতাদের উৎসাহিত করতে উপস্থিত ছিলেন পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি পূর্ণিমা মালিক, জামালপুর থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক নিতু সিং, এস আই বিক্রম দে, পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি তথা বিদ্যালয়ের পরিচালন সমিতির সভাপতি ভূতনাথ মালিক, বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র তথা পঞ্চায়েত সমিতির পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ মেহেমুদ খান, বেরুগ্রাম পঞ্চায়েতের উপ প্রধান রিয়া বাগ, পঞ্চায়েত সদস্য জ্যোতি সিং সহ অন্যান্যরা। 

যাঁর নামে এই স্কুল সেই মহান মনীষী আচার্য্য গিরিশ চন্দ্র বসুর ছবিতে মাল্যদান করেন সভাপতি ভূতনাথ মালিক। বিদ্যালয়ের প্রাণপুরুষ গিরিশ চন্দ্র বসুর সুযোগ্য পুত্র প্রশান্ত কুমার বসুর আবক্ষ মূর্তিতে মাল্যদান করেন পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ মেহেমুদ খান,পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি পূর্ণিমা মালিক, ওসি নিতু সিং। 

পরে জামালপুর থানার পক্ষ থেকে বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের জন্য সচেতনতামূলক একটি অনুষ্ঠান করেন জামালপুর থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক নিতু সিং। ছাত্রীরা সামনে বক্তা হিসাবে একজন মহিলা পুলিশ আধিকারিককে পেয়ে খুবই খুশি। তারা তাঁকে তাদের নিজের জীবন সম্পর্কে নানা প্রশ্ন করে। সেসব প্রশ্নের উত্তর তিনি হাসি মুখে দেন। সাইবার ক্রাইম নিয়েও আজকের এই আলোচনা সভায় আলোচনা করা হয়। প্রাক্তন ছাত্র হিসাবে বক্তব্য রাখতে মেহেমুদ খান। বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সম্মান ও শ্রদ্ধা জানিয়ে বিদ্যালয়ের সুনাম বৃদ্ধিতে তাঁদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। প্রচণ্ড খারাপ ও দুর্যোগ পূর্ণ আবহাওয়ায় এলাকার মানুষ স্বতস্ফূর্ত ভাবে এগিয়ে এসে রক্ত দান করেন। মহিলাদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত। এই দুর্যোগ পূর্ণ আবহাওয়া সত্ত্বেও ৪০ জন রক্তদান করেন। 

সংগৃহীত রক্ত তুলে দেওয়া হয় শিবশঙ্কর সেবা সমিতির রশ্মি ব্লাড ব্যাঙ্কের হাতে। প্রত্যেক রক্তদাতাদের হাতে একটি করে চারা গাছ তুলে দেওয়া হয়। এই চারা গাছ বিদ্যালয়কে দেন হাটগোবিন্দপুর এম সি হাই স্কুলের শিক্ষক সোমনাথ গুপ্ত। যিনি বৃক্ষ বন্ধু নামেই পরিচিত। বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে অমিত দালাল, সাবির খান, অতনু হাজরা সহ তিন জন শিক্ষক রক্তদান করেন। পার্শ্ববর্তী বনবিবিতলা হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক শ্যামল রায় তিনিও আজ রক্তদান করেন। এই রক্তদান শিবির সাফল্যমন্ডিত করতে যাঁরা বিদ্যালয়কে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন স্থানীয় সুজয় পাল, বিদ্যালয় পরিচালন সমিতির সদস্য প্রশান্ত পাল, মেঘনাথ বাগ, হেমন্ত ঘোষ, শুভেন্দু চৌধুরী সহ অন্যান্যরা। বিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীদের নিয়ে একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করান বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা সোমা হালদার। বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দেবাশীষ মালিক তাঁর স্কুলের অনুষ্ঠানে অতিথিদের আসার জন্য ধন্যবাদ জানান। রক্তদান অনুষ্ঠানটিকে সাফল্যমন্ডিত করতে যাঁরা সাহায্য করলেন তাঁদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। ধন্যবাদ জানান জামালপুর থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক নিতু সিং ও শিব শঙ্কর সেবা সমিতির রশ্মি ব্লাড ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষকে। বিশেষ ধন্যবাদ জানান বৃক্ষ বন্ধু সোমনাথ গুপ্তকে। যিনি ৪৫ টি চারা গাছ বিদ্যালয়কে দান করেন। বিদ্যালয় পরিচালন সমিতির সভাপতি ভূতনাথ মালিক সুন্দর এই অনুষ্ঠানটি আয়োজন করার জন্য বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সহ সকলকে ধন্যবাদ জানান। এবং ধন্যবাদ জানান আগত সকল রক্তদাতা ও অতিথিদের। বিদ্যালয়ে এইভাবে রক্তদান শিবির আয়োজন করায় এলাকার মানুষ স্কুলের এই ভূমিকায় খুব খুশি। বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয় সমাজ কল্যাণে এই ধরনের কাজ আরও করা হবে।