Scrooling

নরেন্দ্র মোদীর মন্ত্রীসভায় পশ্চিমবঙ্গ থেকে শপথ নিলেন ডঃ সুকান্ত মজুমদার ও শান্তনু ঠাকুর # অ্যালার্জিজনিত সমস্যায় ভুগছেন ? বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডাঃ অয়ন শিকদার আগামী ২১ জুলাই বর্ধমানে আসছেন। নাম লেখাতে যোগাযোগ 9734548484 অথবা 9434360442 # আঠারো তম লোকসভা ভোটের ফলাফল : মোট আসন ৫৪৩টি। NDA - 292, INDIA - 234, Others : 17 # পশ্চিমবঙ্গে ভোটের ফলাফল : তৃণমূল কংগ্রেস - ২৯, বিজেপি - ১২, কংগ্রেস - ১

Humanity of SDO মানবিক মহকুমা শাসক


 

 Humanity of SDO 


মানবিক মহকুমা শাসক




Sangbad Prabhati, 9 December 2023

ডিজিটাল ডেস্ক রিপোর্ট, সংবাদ প্রভাতী : মেমারি গ্রামীণ হাসপাতালে আজ সরকারি পরিদর্শনে এসেছিলেন বর্ধমান সদর দক্ষিণের মহকুমাশাসক কৃষ্ণেন্দু কুমার মণ্ডল। হাসপাতালে ঢোকার সময়ই লক্ষ্য করেন একজন বৃদ্ধাকে নিয়ে একজন খুব কষ্ট করে আউটডোরে নিয়ে যাবার চেষ্টা করছেন। বৃদ্ধার দাঁড়ানোর ক্ষমতাটুকু নেই। মহকুমাশাসক গাড়ি থেকে নেমে পড়েন। নেমেই সেই বৃদ্ধাকে কোলে করে তুলে নিয়ে সোজা আউটডোরে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে গেলেন। সঙ্গে ছুটে আসেন মেমারি-১ ব্লকের বিডিও শতরূপা দাসও। 

রসুলপুরের নতুনরাস্তার বাসিন্দা অমিয়া সরকার (৭৫) কে নিতে তাঁর নাতবৌ নিপা সরকার আজ সকালে এসেছিলেন। নিপা জানান, তিনি একা থাকায় একজন টোটোচালক বৃদ্ধাকে কোনোরকমে নিয়ে যাবার চেষ্টা করেন। মহকুমাশাসক নিজে এসে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে বৃদ্ধাকে কোলে করে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে গেলেন। নিজে দাঁড়িয়ে থেকে চিকিৎসার ব্যবস্থা করলেন। বৃদ্ধার আগে দুতিনবার হার্টএটাক হওয়ার কারণে হাতের সমস্যা ছিলো, সেটাই দেখাতে এসেছিলেন। মহকুমাশাসক এটা দেখানোর পাশাপাশি অন্যান্য সমস্যাগুলোও দেখানোর ব্যবস্থা করে দেন।

টোটোচালক শ্যামল বলেন, আমি ওই ঠাকুমাকে নিয়ে আউটডোরে যাচ্ছিলাম। ঠাকুমার দাঁড়ানোর ক্ষমতা না থাকায় কিছুতেই নিয়ে যেতে পারছিলাম না। হঠাৎ দেখি একজন গাড়ি থেকে নেমে এসে আমাকে সাহায্য করলেন। পরে জানতে পারলাম উনি এসডিও। এমন মানুষ আজও আছে। কতবড় অফিসার হয়েও একজন রুগীকে নিজে কোলে করে নিয়ে গেলেন। ভাবতেই পারছি না। উনি একটা হুইলচেয়ারের ব্যবস্থা করে দেন। এতে অনেক সুবিধা হলো। 

কৃষ্ণেন্দুবাবু জানালেন, এমন কিছু করিনি। আমি বিডিও ম্যাডাম আজ একটা নরম্যাল ভিজিটে মেমারি হাসপাতালে যাচ্ছিলাম। হঠাৎ দেখি এই অবস্থা। নিজে নেমে ওনাকে সাহায্য করলাম। আর বৃদ্ধার চিকিৎসার ব্যবস্থা করলাম। হাসপাতালে চিকিৎসক সহ অন্যন্য কর্মীরাও সাহায্য করেন।