Scrooling

নরেন্দ্র মোদীর মন্ত্রীসভায় পশ্চিমবঙ্গ থেকে শপথ নিলেন ডঃ সুকান্ত মজুমদার ও শান্তনু ঠাকুর # অ্যালার্জিজনিত সমস্যায় ভুগছেন ? বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডাঃ অয়ন শিকদার আগামী ২১ জুলাই বর্ধমানে আসছেন। নাম লেখাতে যোগাযোগ 9734548484 অথবা 9434360442 # আঠারো তম লোকসভা ভোটের ফলাফল : মোট আসন ৫৪৩টি। NDA - 292, INDIA - 234, Others : 17 # পশ্চিমবঙ্গে ভোটের ফলাফল : তৃণমূল কংগ্রেস - ২৯, বিজেপি - ১২, কংগ্রেস - ১

খন্ডঘোষে বিজেপি প্রার্থীর সঙ্গে মনোনয়নের প্রাক্কালে বিডিও অফিসের কর্মীর অভব্যতার অভিযোগ


 

খন্ডঘোষে বিজেপি প্রার্থীর সঙ্গে মনোনয়নের প্রাক্কালে বিডিও অফিসের কর্মীর অভব্যতার অভিযোগ 



Sangbad Prabhati, 12 June 2023

ডিজিটাল ডেস্ক রিপোর্ট, সংবাদ প্রভাতী : ত্রিস্তর পঞ্চায়েত নির্বাচনে রাজ্যের প্রতিটি ব্লকে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। ১২ জুন ভারতীয় জনতা পার্টির খণ্ডঘোষ ব্লকে বর্ধমান জেলা বিজেপি সাধারণ সম্পাদক মৃত্যুঞ্জয় চন্দ্রের নেতৃত্বে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া হয়েছে। মৃত্যুঞ্জয় বাবু জানান, বেলা এগারোটা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার কাজ চলে। অন্যান্য নেতৃত্বের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন খণ্ডঘোষ ব্লকের কনভেনার হরেকৃষ্ণ মন্ডল , খন্ডঘোষ ৩ এর মণ্ডল সভাপতি তাপস মালিক, খণ্ডঘোষ ৫ এর মন্ডল সভাপতি কৌশিক আস, খণ্ডঘোষ ৩ এর যুব সভাপতি উৎপল বাগ, জেলা মহিলা মোর্চা সাধারণ সম্পাদিকা শম্পা মাথুর সহ প্রায় ৩০ জন প্রার্থী। 

বর্ধমান জেলা সাধারণ সম্পাদক মৃত্যুঞ্জয় চন্দ্র জানিয়েছেন, নরেন্দ্র মোদিজির স্বপ্ন সফল করার লক্ষ্যে , কেন্দ্রের সবকা সাথ, সবকা বিকাশ, সবকা প্রয়াস এর স্বপ্ন পূরণ করার জন্য এবং জনমুখী সকল কেন্দ্রীয় প্রকল্প সাধারণ মানুষের কাছে কাটমানি ছাড়া সরাসরি পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে বর্ধমান জেলা সভাপতি অভিজিৎ তা এর নির্দেশে তিনি খণ্ডঘোষের বুকে বিজেপিকে জয়যুক্ত করার জন্য সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত পরিশ্রম করছেন। তিনি বলেন, গণতন্ত্রে জনগণের রায় শেষ কথা, তাই জনগণের কাছে অনুরোধ করেছেন - এই বাংলায় কংগ্রেস দেখেছেন, সিপিএম দেখেছেন, তৃণমূল দেখছেন। একবার বিজেপিকে ক্ষমতায় এনে দেখুন, শান্তিপূর্ণভাবে বাংলার উন্নয়ন কিভাবে হবে। মৃত্যুঞ্জয় চন্দ্র অভিযোগ করেছেন, বিডিও অফিসের কর্মচারীরা, ভারতীয় জনতা পার্টির নমিনেশন করতে আসা প্রার্থীদের বিভিন্নভাবে বিব্রত করছেন। একজন কর্মচারী তিন নম্বর মণ্ডলের সভাপতি তাপস মালিকের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েন, এমনকি মারধোর করতেও উদ্যত হন বিডিও অফিসের ওই কর্মচারী। পুলিশ এসে পরিস্থিতি সামাল দেয়। মৃত্যুঞ্জয় চন্দ্র বিডিও-কে অভিযোগ জানালে , তিনি বিষয়টি তদন্ত করে দেখবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন এবং ভবিষ্যতে এই ধরনের আচরণ হবে না বলে জানিয়েছেন।