Scrooling

নরেন্দ্র মোদীর মন্ত্রীসভায় পশ্চিমবঙ্গ থেকে শপথ নিলেন ডঃ সুকান্ত মজুমদার ও শান্তনু ঠাকুর # অ্যালার্জিজনিত সমস্যায় ভুগছেন ? বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডাঃ অয়ন শিকদার আগামী ২১ জুলাই বর্ধমানে আসছেন। নাম লেখাতে যোগাযোগ 9734548484 অথবা 9434360442 # আঠারো তম লোকসভা ভোটের ফলাফল : মোট আসন ৫৪৩টি। NDA - 292, INDIA - 234, Others : 17 # পশ্চিমবঙ্গে ভোটের ফলাফল : তৃণমূল কংগ্রেস - ২৯, বিজেপি - ১২, কংগ্রেস - ১

Bardhaman Health City পূর্ব ভারতের স্বাস্থ্য পরিষেবার ক্ষেত্রে নতুন দিগন্ত খুলে দিতে চলেছে বেঙ্গল ফেইথ হসপিটাল


 

Bardhaman Health City 

পূর্ব ভারতের স্বাস্থ্য পরিষেবার ক্ষেত্রে নতুন দিগন্ত খুলে দিতে চলেছে বেঙ্গল ফেইথ হসপিটাল 


Jagannath Bhoumick
Sangbad Prabhati, 8 June 2023

জগন্নাথ ভৌমিক, বর্ধমান : পূর্ব ভারতের স্বাস্থ্য পরিষেবার ক্ষেত্রে নতুন দিগন্ত খুলে দিতে চলেছে মাল্টি স্পেশালিটি বেঙ্গল ফেইথ হসপিটাল (Bengal Faith Hospital)। ৮ জুন বর্ধমানে বেঙ্গল ফেইথ হসপিটালের গ্লাস হাউস সভাকক্ষে এক সাংবাদিক সম্মেলনে সেই রূপরেখার বিষয়ে জানালেন হসপিটালের চেয়ারম্যান অধ্যাপক সুধাংশু শেখর চক্রবর্তী। বেঙ্গল ফেইথ হসপিটালের কর্ণধার একজন দক্ষ ইঞ্জিনিয়ার। তিনি কলকাতার নিবেদিতা সেতুর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান। কিন্তু হঠাৎ করে স্বাস্থ্য পরিষেবার ব্যবসায় কেন ? এপ্রসঙ্গে অধ্যাপক সুধাংশু শেখর চক্রবর্তী বলেন, তাঁর মায়ের ইচ্ছা পূরণে হসপিটাল গড়তে এগিয়ে এসেছেন। ২০০৬ সালে তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য'র সময়ে বর্ধমান উন্নয়ন সংস্থা (বিডিএ) কর্তৃপক্ষের সাথে একটি সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বমূলক প্রকল্পে বর্ধমান হেলথ সিটিতে হসপিটাল গড়তে চুক্তিবদ্ধ হন। প্রকল্পের কাজ এগিয়ে ২০১৬ সালে হেলথ সিটিতে বেঙ্গল ফেইথ হসপিটালের পথচলা শুরু। এরপর ধীরে ধীরে সামগ্রিক ভাবে মাল্টি স্পেশালিটি হসপিটাল হিসেবে পরিচিতি লাভ করে। সবথেকে বড় বিষয় স্বাস্থ্যসেবার জন্য একটি বহুমাত্রিক, সর্ব সম্মত উন্নয়ন হল বর্ধমান শহরে। যা এক্সপ্রেসওয়ে এবং ন্যাশনাল হাইওয়ে NH19-এর মধ্যে অবস্থিত। 

সুধাংশু বাবু বলেন, বেঙ্গল ফেইথ হসপিটাল (বিএফএইচ), হেলথ সিটির মধ্যে ১৮০ শয্যা বিশিষ্ট মাল্টি-স্পেশালিটি টারশিয়ারি হেলথ কেয়ার সুবিধা, প্রায় ৪ বছর আগে কাজ শুরু করে এমনকি এই স্বল্প সময়ের মধ্যেও হাসপাতাল সফলভাবে কয়েকটি অত্যন্ত জটিল অস্ত্রোপচার করেছে। একটি মাঝারি খরচে টোটাল জয়েন্ট রিপ্লেসমেন্ট করে আস্থা অর্জন করেছে। এটি কার্ডিওলজি, নিউরোসার্জারি, অর্থোপেডিকস, গ্যাস্ট্রোএন্টারোলজি, প্রসূতি ও গাইনোকোলজি ইত্যাদির মতো সমস্ত বিভাগে উন্নত সরঞ্জাম এবং চমৎকার সুবিধা দিয়ে সজ্জিত।

এদিনের সাংবাদিক সম্মেলনে হসপিটালের চেয়ারম্যান অধ্যাপক সুধাংশু শেখর চক্রবর্তী আরও বলেন, উন্নত জরুরী রোগ নির্ণয় ও চিকিৎসা সুবিধা সহ এই অঞ্চলের জনগণের সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের মূল লক্ষ্যে বেঙ্গল ফেইথ হসপিটালের ধারণা এবং পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করা হয়েছে। এরফলে স্থানীয়, আঞ্চলিক এবং জাতীয় পর্যায়ে একাধিক সামাজিক ও অর্থনৈতিক সুবিধা তৈরি হবে।

হেলথ সিটির ফেজ 2-এ একটি মাল্টি-স্পেশালিটি ৫০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল এবং একটি মেডিকেল কলেজ ছাড়াও অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যেমন নার্সিং এবং প্যারা-মেডিকেল, মেডিকেল গুদামজাতকরণ, ই-লার্নিং এবং সমন্বিত ডিজিটাল স্বাস্থ্যসেবা গবেষণা কেন্দ্রের পরিকল্পনা করা হয়েছে। চিকিৎসক এবং নার্সদের জন্য বাসস্থান, হোটেল (লাক্সারি এবং বাজেট), বাণিজ্যিক কমপ্লেক্স যেমন মল এবং অফিস স্পেস, একটি ইউনিভার্সিটি এবং হেলথ সিটি টাউনশিপও তৈরি করে। এর জন্য ১৫০০ কোটি টাকা বাজেট ধরা হয়েছে। কিছু দেশী বিদেশী বিনিয়োগকারী নগর উন্নয়নে আগ্রহ প্রকাশ করছে। বিডিএ'র সমর্থন ও সহযোগিতায়, এই আইকনিক প্রকল্পটি গবেষণা ও স্বাস্থ্যসেবা সুবিধার একটি জাতীয় কেন্দ্র হবে।

বৃহস্পতিবারের সাংবাদিক সম্মেলনে বেঙ্গল ফেইথ হসপিটালের চেয়ারম্যান অধ্যাপক সুধাংশু শেখর চক্রবর্তী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন চেয়ারম্যানের সিনিয়র উপদেষ্টা তথা এদিনের বিশেষ অতিথি রাজবী ঠাকুর, কাতার থেকে একজন এনআরআই তথা চেয়ারম্যানের সিনিয়র উপদেষ্টা সুদীপ মৈত্র, বেঙ্গল ফেইথ হসপিটালের চিফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার পার্থ বিশ্বাস, সিনিয়র নিউরোসার্জন ডাঃ রাহুল দে, সিনিয়র। কার্ডিওলজিস্ট ডাঃ সোনালী সরকার, বেঙ্গল ফেইথ হসপিটালের সেন্টার ইন চার্জ কাশী ব্যানার্জী সহ অন্যান্য আধিকারিকরা।

এদিনের সাংবাদিক সম্মেলনের শুরুতেই স্বাগত ভাষণ দেন বেঙ্গল ফেইথ হসপিটালের চিফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার পার্থ বিশ্বাস। অনুষ্ঠানের উপস্থাপনায় ছিলেন দেবপ্রিয়া দত্ত