Scrooling

ঘূর্ণিঝড় রিমাল : পূর্ব বর্ধমানে ৪টি ব্লক ক্ষতিগ্রস্ত, মৃত ২ # চুরুলিয়ায় ৫ দিন ব্যাপী নজরুল স্মরণে বর্ণময় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও মেলা # নন্দীগ্রামে বিজেপি সমর্থক খুনে রিপোর্ট চাইলো কমিশন # ১৮ তম লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল জানা যাবে ৪ জুন

Krishi Vikas কৃষকদের জন্য সুখবর : কৃষি সরঞ্জাম বিক্রি বা কিনতে এক অ্যাপে সমাধান


 

Krishi Vikas 

কৃষকদের জন্য সুখবর : কৃষি সরঞ্জাম বিক্রি বা কিনতে এক অ্যাপে সমাধান 



Jagannath Bhoumick
Sangbad Prabhati, 26 May 2023

জগন্নাথ ভৌমিক পূর্ব বর্ধমান : পুরনো বা নতুন, কৃষি সরঞ্জাম বিক্রি করতে চান কিম্বা ভাড়া দিন। এক অ্যাপে সমাধান। না, কোনও গল্প কথা নয়। ভারতে সামগ্রিক ডিজিটালাইজেশন এর ভাবনায় দেশের অগণিত কৃষকদের স্বার্থে এগিয়ে এসেছে কৃষি বিকাশ উদ্যোগ। চালু করেছে কৃষি বিকাশ অ্যাপ। এমনটাই জানালেন কষি বিকাশ উদ্যোগের ফাউন্ডার তথা ম্যানেজিং ডিরেক্টর প্রসেনজিৎ নন্দী। যিনি জিৎ নন্দী নামেও বিশেষ পরিচিত। ২৬ মে শহর বর্ধমানে পান্থশালার অডিটোরিয়ামে এক সাংবাদিক সম্মেলনে প্রসেনজিৎ নন্দী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কৃষি বিকাশ উদ্যোগের মার্কেটিং এক্সিকিউটিভ স্বরূপ রায়, সংস্থার কো-ফাউন্ডার শ্যামল দাস ও সিনিয়র এক্সিকিউটিভ রাজা রায়চৌধুরী।

এদিনের সাংবাদিক সম্মেলনে ম্যানেজিং ডিরেক্টর প্রসেনজিৎ নন্দী জানান, কৃষি বিকাশ উদ্যোগ, একটি কৃষি প্রযুক্তি সংস্থা, যা সমগ্র ভারতে ছড়িয়ে থাকা কৃষক সম্প্রদায়ের জন্য এক স্বয়ং সম্পূর্ণ ডিজিটাল সমাধান। এই সংস্থা কৃষি পণ্য এবং যন্ত্রাদির ক্রেতা ও বিক্রেতার মধ্যে সরাসরি যোগাযোগ স্থাপন করে প্রযুক্তির মাধ্যমে। আমরা এমন এক বাস্তুতন্ত্র গড়ে তুলেছি যা কৃষিক্ষেত্রের চাহিদাকে যোগানের সঙ্গে সংযুক্ত করে।

 সিনিয়র এক্সিকিউটিভ রাজা রায়চৌধুরী জানান, আমাদের কর্ণধার তথা প্রতিষ্ঠাতা প্রসেনজিৎ নন্দী ওরফে জিৎ নন্দী ভারতের গ্রামাঞ্চলে বিখ্যাত সমস্ত ব্র্যান্ডের পণ্যসমূহের বিজ্ঞাপন ও প্রচারের দুই দশকেরও বেশি অভিজ্ঞতা অর্জন করেছেন। তার এই যাত্রাপথে, তিনি ভারতীয় কৃষক সম্প্রদায়ের মধ্যে কৃষি পণ্যের চাহিদা ও যোগানের বিস্তর ফারাক পর্যবেক্ষণ করেন, যা কৃষকদের পণ্যের গুণমান ও মূল্যের ক্ষেত্রে আপোষ করতে বাধ্য করে। কৃষকেরা তাদের কৃষিকাজের মূল্যবান সময় ব্যয় করে কৃষিপণ্যের তথা কৃষিযন্ত্রের খোঁজে লাগাতে বাধ্য হচ্ছেন এবং তাদের অধিকাংশই ছোটখাটো চাষবাসের সঙ্গে যুক্ত। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে কৃষিক্ষেত্রে দ্রুত প্রযুক্তিগত উন্নতি (ডিজিটালাইজেশন) এবং গ্রামাঞ্চলে ঘরে ঘরে স্মার্ট ফোনের ব্যবহার, জিৎ নন্দীকে কৃষি সম্প্রদায়ের সমস্যাগুলির এক প্রযুক্তি নির্ভর সমাধানের রূপায়ণে অনুপ্রাণিত করে। এই সমস্ত কৃষি সমস্যা ও কৃষিক্ষেত্রে চাহিদার কথা মাথায় রেখে আমাদের দূরদর্শী কর্ণধার গড়ে তুলেছেন এক কৃষি সম্বন্ধীয় ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম, "কৃষি বিকাশ ",সব কৃষি উপকরণগত সমস্যার এক স্বয়ং সম্পূর্ণ কৃষি সমাধান, একসাথে, এক জায়গায়, এই প্রথমবার।

সাংবাদিক সম্মেলনে সংস্থার কো-ফাউন্ডার শ্যামল দাস বলেন, কৃষি বিকাশ এমন একটি ডিজিটাল প্লাটফর্ম যেখানে ক্রেতা সরাসরি বিক্রেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে নতুন অথবা ব্যাবহৃত কৃষি সামগ্রী যেমন ট্রাক্টর, মালবাহী গাড়ি, হারভেস্টার, ইমপ্লিমেন্ট, বীজ, সার, কীটনাশক, টায়ার ইত্যাদি কিনতে বেচতে ভাড়া দিতে এবং নিতে পারেন। এটা সম্পূর্ণ বিনামূল্যে।

স্বরূপ রায় বলেন, কৃষি বিকাশ অ্যাপ এর মাধ্যমে ক্রেতারা উন্নত গুণমান সম্পন্ন ও প্রতিযোগিতা মূলক মূল্যের অনেক বেশি সংখ্যক বিকল্প পাবেন এবং বিক্রেতারাও পাচ্ছেন দেশজোড়া সুবিশাল ডিজিটাল বাজার তথা প্রচুর সংখ্যক গ্রাহক। ব্যবহার বান্ধব সহজ সরল কৃষি বিকাশ মোবাইল অ্যাপ এবং ওয়েবসাইটের মাধ্যমে। এর ফলে ক্রেতা ও বিক্রেতার উভয়েরই সময় বাঁচবে এবং দামের স্বচ্ছতা বজায় থাকবে।

ম্যানজিং ডিরেক্টর প্রসেনজিৎ নন্দী বলেন, বর্তমানে দ্রুত ডিজিটালাইজেশন এবং স্মার্টফোন ব্যবহারের বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে কৃষি সম্প্রদায়ের জন্য কৃষি বিকাশ একান্ত অপরিহার্য হয়ে উঠবে বলে আমাদের বিশ্বাস। ইতিমধ্যেই রাজ্যের ১০ হাজার কৃষক বন্ধু কৃষি বিকাশ অ্যাপ ব্যবহার করে উপকৃত হয়েছেন। যে কেউ চাইলেই এই অ্যাপ গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করে উপকৃত হতে পারেন। 

 কৃষি বিকাশ উদ্যোগের ফাউন্ডার মেম্বার শ্যামল দাস জানান, পূর্ব বর্ধমান জেলা হলো পশ্চিমবঙ্গের শস্য ভান্ডার। এই জেলায় ধান আলু প্রচুর পরিমাণে উৎপাদিত হয়। কয়েকশো রাইস মিল রয়েছে। সেই নিরিখে পূর্ব বর্ধমান জেলা কৃষি বিকাশ উদ্যোগের জন্য বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। এক অ্যাপে কৃষি সমাধান এই পরিষেবা বিপুল সংখ্যক মানুষ যাতে ব্যবহার করে উপকৃত হতে পারেন সেই বার্তাই আমরা কৃষক সম্প্রদায়ের কাছে পৌঁছে দিতে কাজ করে চলেছি।