Scrooling

ঘূর্ণিঝড় রিমাল : পূর্ব বর্ধমানে ৪টি ব্লক ক্ষতিগ্রস্ত, মৃত ২ # চুরুলিয়ায় ৫ দিন ব্যাপী নজরুল স্মরণে বর্ণময় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও মেলা # নন্দীগ্রামে বিজেপি সমর্থক খুনে রিপোর্ট চাইলো কমিশন # ১৮ তম লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল জানা যাবে ৪ জুন

Shoot out শুট আউটে এক সময়ের বেআইনি কয়লা কারবারের বেতাজ বাদশা খুন

 



Shoot out 

শুট আউটে এক সময়ের বেআইনি কয়লা কারবারের বেতাজ বাদশা খুন


Sangbad Prabhati, 1 April 2023

ডিজিটাল ডেস্ক রিপোর্ট, সংবাদ প্রভাতী : কুখ্যাত কয়লা মাফিয়া আজ রাত আটটা নাগাদ পুর্ব বর্ধমানের আমড়ায় জাতীয় সড়কের উপর শুট আউটে মারা গেছেন। বর্ধমানের দিক থেকে থেকে কলকাতার দিকে যাওয়ার পথেই ঘটনাটি ঘটেছে বলে জানা যায়। মৃত ব্যক্তির নাম রাজু ঝা। আনুমানিক বয়স ৫২ বছর বলে জানা গেছে। 

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, শনিবার রাত ৮ নাগাদ বর্ধমান থেকে কলকাতা যাওয়ার সড়ক পথে ঘটনাটি ঘটে। একটি সাদা চারচাকা গাড়ি শক্তিগড়ের কাছে আমড়ায় ল্যাংচার দোকানের সামনে দাঁড়িয়ে ছিল। সেই সময় কলকাতার দিকে যাওয়া একটি নীল রঙের গাড়ি থেকে গুলি ছোঁড়া হয়। স্থানীয়দের দাবি চার থেকে পাঁচটি গুলি চালানো হয়। ঘটনায় গাড়ি চালকের পাশের সিটে বসে থাকা একজন ঘটনাস্থলেই মারা যায়। আরও একজনের গুলি লেগেছে। মৃত এবং আহত দুজনকেই বর্ধমানের সুপার স্পেশালিটি অনাময় হাসপাতালে আনা হয়। নীল গাড়িটি গুলি চালিয়ে দ্রুত বেগে কলকাতার দিকে পালিয়ে যায় বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান। 

উল্লেখ্য দুর্গাপুরের এই কুখ্যাত কয়লা মাফিয়া একসময়ের বেআইনি কয়লা কারবারের বেতাজ বাদশা ছিলেন। সেই সময়ে অর্থাৎ বাম আমলে বেশ কিছু প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতার সাথে রাজু ঝা'র ঘনিষ্ঠতা নিয়ে চর্চা ছিল রাজনৈতিক মহলে। সেই প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতাদের ঘনিষ্ঠতা সূত্রেই কয়লা কারবারের সাথে নানান ব্যবসায় নিজেকে যুক্ত করেন রাজু ঝা। ২০২১ সালের নির্বাচনের আগে তৎকালীন বঙ্গ বিজেপি'র সভাপতি দিলীপ ঘোষ এবং পশ্চিম বর্ধমান জেলা সভাপতি লক্ষণ ঘরুই এর হাত ধরে রাজু ঝা বিজেপিতে যোগ দেন। কয়লা মাফিয়ার বিজেপিতে যোগ দেওয়া নিয়ে গেরুয়া শিবিরের অন্দরেই চরম বিতর্ক তৈরি হয়। তারপরেই নির্বাচনের আগে একটি মামলায় রাজু ঝা গ্রেপ্তার হয়। রাজু ঝা'কে কে বা কারা খুন করলো বা করালো সেটা নিয়ে চরম রহস্য সৃষ্টি হয়েছে। 

কিন্তু কে এই এই রাজু ঝা ? কি ভাবে তাঁর উৎপত্তি। উত্তর খুঁজতে গিয়ে জানা যায়, প্রথম জীবনে রাজু ছিলেন লরির খালাসি। বাম জমানায় রাজু ষ কয়লার কারবারে যুক্ত হয় এবং ধীরে ধীরে বেতাজ বাদশায় পরিনত হয়। ২০১১ সালে ৩ জুলাই কয়লা কারবারের অভিযোগে রাণীগঞ্জ পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। তৃণমুল আমলে তার বাজার ক্রমশঃ নিচের দিকে নামতে থাকে। কিন্তু কয়লা মাফিয়া থেকে রাজু ঝা হোটেল ব্যবসা, শাড়ির দোকান সহ অন্যান্য ব্যবসায় যুক্ত হন। এবং ক্রমে মাফিয়া তকমা ঝেড়ে ফেলে একজন উদ্যোগপতি হিসেবে নিজেকে তুলে ধরার চেষ্টা করছিলেন। তাঁর পরেই এই অঘটন‌। শুট আউট রহস্যের কিনারা করতে পুলিশ তদন্তে নেমে পড়েছে।