চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

হাওড়া-নিউ জলপাইগুড়ি বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের যাত্রার সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী # ফুটবলে আর্জেন্টিনার বিশ্বজয়, ফ্রান্স কে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ান মেসি # জয়েন্ট এন্ট্রান্স (মেইন) এর প্রথমভাগের পরীক্ষা ২৪ জানুয়ারি থেকে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত # বর্ধমান জেলা রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন এর শতবর্ষ পূর্তি উদযাপন # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায় #সরকারি কর্মচারীদের সুখের দিন শেষ, শ্রম কোড চালু হতে চলেছে সমগ্র ভারতে # পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার # #পূর্ব বর্ধমান জেলায় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এর উদ্যোগে খালবিল ও চুনোমাছ উৎসবের উদ্বোধন ২৫ ডিসেম্বর

Centenary celebration রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশনের শতবর্ষ পূর্তিতে আনন্দঘন পরিবেশে জমজমাট মিলনোৎসব


 

Centenary celebration

রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন এর শতবর্ষ পূর্তিতে আনন্দঘন পরিবেশে জমজমাট মিলনোৎসব

জগন্নাথ ভৌমিক, বর্ধমান : এক আনন্দঘন পরিবেশে বর্ধমান জেলা রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশনের শতবর্ষ পূর্তি উদযাপিত হলো। বর্ধমানের রেনেসাঁ উপনগরী সংলগ্ন দু'নম্বর জাতীয় সড়কের পাশে হোটেল সিনক্লেয়ার্স প্রাঙ্গণে ১০০ বছর পূর্তি উদযাপন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন দপ্তরের মন্ত্রী প্রদীপ মজুমদার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বর্ধমান দক্ষিণের বিধায়ক খোকন দাস। রবিবার এই অনুষ্ঠানে পূর্ব বর্ধমান জেলা সহ রাজ্যের প্রায় এক হাজার জন রাইস মিল মালিক উপস্থিত হয়ে ছিলেন। সামগ্রিক ভাবে রবিবাসরীয় এই অনুষ্ঠান মিলনোৎসবে পরিনত হয়। বর্ধমান জেলা রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি দেবনাথ মন্ডলের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের কার্যকরী সভাপতি আব্দুল মালেক, সহ সভাপতি বংশীবদন সাম, সুকুমার সাহানা, রাজকুমার সাহানা, জন্মেঞ্জয় খাঁ, জয়দেব বেতাল, সহ সম্পাদক হীরেন পাঁজা, শতবর্ষ উদযাপন কমিটির চেয়ারম্যান মৌলি শঙ্কর রায় সহ মনীশ খান্ডেলওয়াল, কামালউদ্দিন মন্ডল, গফুর আলী খান, রাজেন্দ্র প্রসাদ আগরওয়াল, পলাশ নন্দী, পলাশ সাহানা, আজিজ আমান, সব্যসাচী শাম, দেবাশীষ নন্দী, সৌগত সাহানা, সপ্তক কুন্ডু, সুমন্ত পাল, শিবাজী দত্ত, বিদেশ ঘোষ এবং অন্যান্যরা।

বর্ধমান জেলা রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন এর সভাপতি দেবনাথ মন্ডল-কে এদিনের অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে লাইফ টাইম অ্যাওয়ার্ড দিয়ে সম্মানিত করা হয়। ১০০ টি গোলাপ ফুলের মালা পরিয়ে এই সম্মাননা তুলে দেন রাজ্যের মন্ত্রী প্রদীপ মজুমদার। 

এছাড়া সংগঠনের কার্যকরী সভাপতি আব্দুল মালেক এবং সহ সভাপতিদেরও অনুষ্ঠানে পুষ্পস্তবক ও উত্তরীয় পরিয়ে সম্মানিত করে শতবর্ষ উদযাপন কমিটির সদস্যরা।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মন্ত্রী প্রদীপ মজুমদার বলেন, বর্ধমানের চালের ভাত খেয়ে সমগ্র পৃথিবী ঘুরেছি। রাজ্যের শস্য ভান্ডার বর্ধমান পশ্চিমবঙ্গ তথা সমগ্র ভারতকে পথ দেখাচ্ছে। রাইস মিলের আধুনিকীকরণের ব্যাপারে বর্ধমান জেলা রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন এক সদর্থক এবং অগ্রণী ভূমিকা পালন করে চলেছে। 

প্রদীপ মজুমদার জানান, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষুদ্র প্রান্তিক চাষীদের কাছ থেকে ন্যূনতম মূল্যের থেকেও বেশি দামে ধান কিনে চাষীদের উজ্জীবিত করছেন। বর্ধমান জেলা রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন তাদের ব্যবসায়ীক দৃষ্টিভঙ্গির বাইরে গিয়েও একাধিক সমাজসেবামূলক কাজের সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় মন্ত্রী প্রদীপ মজুমদার এদিন তাদের ভূয়সী প্রশংসা করেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত ভাষণ দেন বর্ধমান জেলা রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশনের কার্যকরী সভাপতি আব্দুল মালেক। শতবর্ষ আগে রাম দয়াল দে এই সংগঠনটিকে নিজে হাতে তৈরি করেছিলেন। অনুষ্ঠানে প্রয়াত রাম দয়াল দে'র প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন করা হয় এবং তাঁর পরিবার বর্গের হাতে সম্মাননার উপহার সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। 

মূল অনুষ্ঠানের শেষে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন শতবর্ষ উদযাপন কমিটির সদস্য আজিজ আমান।

উল্লেখ্য, এদিনের অনুষ্ঠানে রাইস মিলারদের পরিবার বর্গের ছেলেমেয়েদের নিয়ে এক কুইজ প্রতিযোগিতা হয়। এছাড়াও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট শিল্পী স্নিগ্ধজিৎ ভৌমিক সঙ্গীত পরিবেশনের মাধ্যমে উপস্থিত সকলকে আনন্দ দেন। অনুষ্ঠান সংযোজনায় ছিলেন সঞ্চালিকা সুদীপা সরকার।

Post a Comment

0 Comments