চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

হাওড়া-নিউ জলপাইগুড়ি বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের যাত্রার সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী # ফুটবলে আর্জেন্টিনার বিশ্বজয়, ফ্রান্স কে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ান মেসি # জয়েন্ট এন্ট্রান্স (মেইন) এর প্রথমভাগের পরীক্ষা ২৪ জানুয়ারি থেকে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত # বর্ধমান জেলা রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন এর শতবর্ষ পূর্তি উদযাপন # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায় #সরকারি কর্মচারীদের সুখের দিন শেষ, শ্রম কোড চালু হতে চলেছে সমগ্র ভারতে # পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার # #পূর্ব বর্ধমান জেলায় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এর উদ্যোগে খালবিল ও চুনোমাছ উৎসবের উদ্বোধন ২৫ ডিসেম্বর

BJP Kishan Morcha সারের কালোবাজারি বন্ধে বিজেপির কিষান মোর্চার আন্দোলন কর্মসূচিতে সাংসদ সৌমিত্র খাঁ


 

BJP Kishan Morcha 

সারের কালোবাজারি বন্ধে বিজেপির কিষান মোর্চার আন্দোলন কর্মসূচিতে সাংসদ সৌমিত্র খাঁ 


অতনু হাজরা, জামালপুর : সারের কালোবাজারি বন্ধের দাবিতে পূর্ব বর্ধমান জেলা বিজেপির কিষান মোর্চা শুক্রবার জামালপুর বিডিও অফিসে একটি ডেপুটেশন দেয়। জামালপুর নেতাজি ময়দান থেকে জামালপুর ব্লক পর্যন্ত মিছিল সহযোগে আসেন তাঁরা। মিছিলে পা মেলাতে ও কর্মী সমর্থকদের উজ্জীবিত করতে এদিন উপস্থিত ছিলেন বিজেপির রাজ্য সহ সভাপতি তথা সাংসদ সৌমিত্র মোহন খাঁ। এই মিছিলকে কেন্দ্র করে সাজো সাজো রব পড়ে যায় ব্লকে বিজেপি নেতৃত্বদের। মিছিলে পা মেলান জেলা সভাপতি অভিজিৎ তা, জেলা সহ সভাপতি তথা জামালপুরের নেতৃত্ব রামকৃষ্ণ চক্রবর্তী সহ জেলা এবং ব্লক নেতৃত্ব। ব্লকে এসে বিডিও শুভঙ্কর মজুমদারের কাছে ডেপুটেশন দেন। 

সাংবাদিকদের সামনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে সৌমিত্র খাঁ বলেন, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দোপাধ্যায়ের সমালোচনা করে বলেন সব দুর্নীতির মূলেই তাঁরা আছেন। এ প্রসঙ্গে তিনি গরু চুরি, কয়লা প্রসঙ্গ তুলে ধরেন। এবং ডিসেম্বরে ধেড়ে মাথা ধরা পড়ার কথা বলেন। মিছিলে প্রচুর সংখ্যায় বিজেপি কর্মী সমর্থকরা উপস্থিত ছিলেন। পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে এই মিছিল জামালপুরে বিজেপি পার্টিকে যথেষ্ট অক্সিজেন যোগাবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক।

বিজেপির অভিযোগের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের জামালপুর ব্লক সভাপতি তথা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মেহেমুদ খান সারের এই অব্যবস্থার জন্য কেন্দ্র সরকারকে দায়ী করেন। তিনি বলেন, অন্যান্য রাজ্যের মত পশ্চিমবঙ্গকে সমান সার দেওয়া হয়নি। শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে অসুবিধায় ফেলার জন্য। বিজেপি সারা রাজ্যে একটা অস্থির পরিবেশ তৈরি করতে চাইছে। কিন্তু মমতা বন্দোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দোপাধ্যায়ের বলিষ্ঠ নেতৃত্ব সেটা রুখে দেবে। সর্বোপরি রুখে দেবে পশ্চিমবঙ্গের সাধারণ জনগণ।

Post a Comment

0 Comments