চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

শতবর্ষে বর্ধমান ডিস্ট্রিক্ট রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন # উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়সরকারি কর্মচারীদের সুখের দিন শেষ, শ্রম কোড চালু হতে চলেছে সমগ্র ভারতে পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #পূর্ব বর্ধমান জেলায় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এর উদ্যোগে খালবিল ও চুনোমাছ উৎসবের উদ্বোধন ২৫ ডিসেম্বর

মহিলা তৃণমূলের পঞ্চায়েতী সভায় রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ও স্বপন দেবনাথ


 

মহিলা তৃণমূলের পঞ্চায়েতী সভায় রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ও স্বপন দেবনাথ 


অতনু হাজরা, জৌগ্রাম : পূর্ব বর্ধমান জেলা তৃণমূল মহিলা কংগ্রেসের পঞ্চায়েতী সভার জেলার অনুষ্ঠান হলো জামালপুরের জৌগ্রামে। এলাকার অভিনন্দন লজে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ও স্বপন দেবনাথ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল মহিলা কংগ্রেসের রাজ্য নেতৃত্ব মালা রায়, স্মিতা বক্সী, জেলা তৃণমূল মহিলা কংগ্রেসের সভানেত্রী শিখা দত্ত সেনগুপ্ত, পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের সভাধিপতি তথা রায়নার বিধায়িকা শম্পা ধারা, পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ উত্তম সেনগুপ্ত, জামালপুরের বিধায়ক অলক কুমার মাঝি, তৃণমূল কংগ্রেসের জামালপুর ব্লক সভাপতি মেহেমুদ খান, মহিলা তৃণমূলের ব্লক সভাপতি মিঠু মাঝি সহ অন্যান্যরা।

 অভিনন্দন লজে তৃণমূলের মহিলা কর্মী সমর্থকদের নিয়ে একটি আলোচনা সভার পর মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য সভাস্থলের কাছেই একটি আদিবাসী পাড়ায় পৌঁছে যান তাঁর পুরো টিম নিয়ে। সেখানে প্রতিটি বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে তিনি নিজে খোঁজ নেন বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পের সুবিধা সকলে পাচ্ছেন কিনা? কথোপকথনের মাধ্যমে তিনি যে সমস্ত অভিযোগ শোনেন তার বেশিরভাগ সমস্যায় কেন্দ্রের অনুদান বন্ধ করে দেবার জন্য।

 যেমন ১০০ দিনের কাজ বা বিভিন্ন আবাস যোজনার কাজ। এই সমস্ত সুযোগ সুবিধা থেকে রাজ্যের প্রান্তিক মানুষরা যে বঞ্চিত হচ্ছেন তা তাদের সামনে তুলে ধরেন।

 আগামী পঞ্চায়েত ভোটে মহিলা তৃণমূল কংগ্রেস কিভাবে চলবে তারও পথ নির্দেশ তিনি দিয়ে যান। হাতের কাছে মন্ত্রীকে পেয়ে স্বভাবতই খুশি এলাকার মানুষজন।

Post a Comment

0 Comments