চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # মাধ্যমিকে যুগ্ম প্রথম বর্ধমান সিএমএস হাই স্কুলের রৌনক মন্ডল এবং বাঁকুড়ার রাম হরিপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অর্ণব ঘড়াই # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়মাধ্যমিকের পর উচ্চমাধ্যমিকেও তাক লাগালো কাটোয়ার অভীক পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের আন্দোলন

ন্যাশনাল ইন্টার কলেজ ক্রসওয়ার্ড পাজেলের ইস্ট জোন লেবেলে জামালপুর মহাবিদ্যালয়



ন্যাশনাল ইন্টার কলেজ ক্রসওয়ার্ড পাজেলের ইস্ট জোন লেবেলে জামালপুর মহাবিদ্যালয় 


অতনু হাজরা, জামালপুর : লক ডাউন সময়ে ইউজিসি ও এআইসিটিই এর পক্ষ থেকে সারা ভারতবর্ষ ব্যাপী ন্যাশনাল ইন্টার কলেজ ক্রসওয়ার্ড পাজেল  এক্সপিডিশণ কম্পিটিশন শুরু করা হয়।  গত ২ রা এপ্রিল ২০২২ থেকে যা চলে ২৪ এপ্রিল ২০২২ পর্যন্ত। চার সপ্তাহে চারটি অনলাইন রাউন্ডের মাধ্যমে এই  প্রতিযোগিতা চলে। ২৬ শে এপ্রিল ফল বেরুলে দেখা যায় পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে শুধুমাত্র খড়গপুর আই আই টি এবং জামালপুর মহাবিদ্যালয় মেধা তালিকায় স্থান পায়। জামালপুর মহাবিদ্যালয়ের দীপন চ্যাটার্জী, রীতম কবিরাজ, সাহিবা খাতুন ও পৃথা মন্ডল এই মেধা তালিকায় স্থান পায়। জামালপুর কলেজ থেকে এই চারজন মেধাতালিকায় স্থান পাওয়ায় খুশির ঝলক বয়ে যায় কলেজে। এ এক বিরাট প্রাপ্তি ও সম্মানের বিষয় কলেজের জন্য। সেই চারজন কৃতী ছাত্র ছাত্রী বৃহস্পতিবার বিহারের পাটনায় চন্দ্রগুপ্ত ইনস্টিটিউট অফ ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠানে  পৌঁছে গেলো ইস্ট জোন লেভেলে প্রতিযোগিতার জন্য। গত কাল রাতে তারা রওনা হয়। তাদের তত্ত্বাবধান করে নিয়ে যায় জামালপুর ব্লকের তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি বিট্টু মল্লিক।  কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বিনয় হালদার আমাদের জানান কম্পিটিশনের খবর পাওয়ার সাথে সাথেই তিনি বিষয়টি তত্ত্বাবধান করার জন্য ইংরাজি বিভাগকে বলেন এবং ওই বিভাগের অধ্যাপক সুদীপ চ্যাটার্জী কে দায়িত্ব দেওয়া হয় ছাত্র ছাত্রীদের কম্পিটিশনের জন্য তৈরি করার। সেই দায়িত্ব তিনি সফল ভাবেই পালন করেছেন তারই ফল পাওয়া গেছে। 

 কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি ভূতনাথ মালিক বলেন এই সফলতা কলেজের জন্য এক বড় প্রাপ্তি। জোনাল লেভেলেও তারা যেন সাফল্য পায় সে জন্য তাদের শুভকামনা জানান। পরবর্তীতে তাদের কলেজের পক্ষ থেকে সম্মানিত করা হবে বলে তিনি জানান। সুদীপ বাবু বলেন কলেজ তাঁকে দায়িত্ব দিয়েছিল সেই দায়িত্ব পালন করতে পেরে তাঁর ভালো লাগছে। শুধু তাই নয় ছাত্র ছাত্রীদের এই ফলাফলে শুধু তিনি নন গোটা কলেজই গর্বিত। তাঁকে দায়িত্ব দেওয়ার জন্য তিনি ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষকে ধন্যবাদ জানান। শুক্রবার আছে সেই প্রতিযোগিতা। তাদের সাফল্যের দিকে তাকিয়ে আছে গোটা কলেজ।

Post a Comment

0 Comments