Scrooling

নরেন্দ্র মোদীর মন্ত্রীসভায় পশ্চিমবঙ্গ থেকে শপথ নিলেন ডঃ সুকান্ত মজুমদার ও শান্তনু ঠাকুর # অ্যালার্জিজনিত সমস্যায় ভুগছেন ? বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডাঃ অয়ন শিকদার আগামী ২১ জুলাই বর্ধমানে আসছেন। নাম লেখাতে যোগাযোগ 9734548484 অথবা 9434360442 # আঠারো তম লোকসভা ভোটের ফলাফল : মোট আসন ৫৪৩টি। NDA - 292, INDIA - 234, Others : 17 # পশ্চিমবঙ্গে ভোটের ফলাফল : তৃণমূল কংগ্রেস - ২৯, বিজেপি - ১২, কংগ্রেস - ১

পশ্চিমবঙ্গ প্রাণী সম্পদ বিকাশ কর্মী ইউনিয়নের তৃতীয় রাজ্য সম্মেলন


 

পশ্চিমবঙ্গ প্রাণী সম্পদ বিকাশ কর্মী ইউনিয়নের তৃতীয় রাজ্য সম্মেলন 


ডিজিটাল ডেস্ক রিপোর্ট, সংবাদ প্রভাতী : পশ্চিমবঙ্গ প্রাণী সম্পদ বিকাশ কর্মী ইউনিয়নের তৃতীয় রাজ্য সম্মেলন অনুষ্ঠিত হলো শহর বর্ধমানের সংস্কৃতি লোকমঞ্চে। রবিবার প্রদীপ প্রজ্বলনের মাধ্যমে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দপ্তরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ। উপস্থিত ছিলেন পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের সভাধিপতি তথা বিধায়ক শম্পা ধাড়া, বর্ধমান পৌরসভার চেয়ারম্যান পরেশ চন্দ্র সরকার বর্ধমান দক্ষিণের বিধায়ক খোকন দাস, যুব তৃণমূলের পূর্ব বর্ধমান জেলার সভাপতি তথা জামালপুরের বিধায়ক অলক কুমার মাঝি, জেলা পরিষদের মেন্টর উজ্জ্বল প্রামাণিক, তৃণমূল কংগ্রেসের পূর্ব বর্ধমান জেলার চেয়ারম্যান অশোক বিশ্বাস, পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ বাগবুল ইসলাম, কর্মাধ্যক্ষ দেবাশীষ নাগ, শহর বর্ধমানের সভাপতি তথা কাউন্সিলর অরূপ দাস, পশ্চিমবঙ্গ প্রাণী সম্পদ বিকাশ কর্মী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক গৌতম চ্যাটার্জি, সভাপতি স্বপন ব্যানার্জি সহ অন্যান্যরা।

সম্মেলনে সাংগঠনিক খসড়া প্রতিবেদনে উল্লিখিত ১০ দফা দাবি সমূহ নিয়ে আলোচনা হয়। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক গৌতম চ্যাটার্জি বলেন এক কঠিন প্রতিকূল পরিস্থিতিতে পশ্চিমবঙ্গের প্রতিটি জেলায় প্রাণী সম্পদ বিকাশ কর্মীরা ঐক্যবদ্ধ ও সংগঠিত হয়েছে। ১০ দফা দাবি নিয়ে আজ আমরা তৃতীয় রাজ্য সম্মেলনে মিলিত হয়েছি। এই দাবিগুলো পূরণের জন্য আমাদেরকে অধিক তর সংগঠিত হতে হবে এবং আগামী দিনে ব্লক স্তর পর্যন্ত আন্দোলন আরো জোরদার করতে হবে। তিনি সম্মেলন মঞ্চ থেকে আহবান করেন কর্মীদের উদ্দেশ্যে যে ন্যূনতম বিভাজন, ভুলত্রুটি রাগ-অভিমান সবকিছু ভুলে নিজেদের বৃহত্তর স্বার্থে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন ও তীব্র প্রতিবাদ গড়ে তুলতে হবে।

মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ পানিসম্পদ বিকাশ দপ্তর এর সঙ্গে জড়িত সর্বস্তরের কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন দাবি-দাওয়া আদায়ের আপনারা নিশ্চয়ই আন্দোলন করবেন কিন্তু সবার আগে আপনাদের নির্ধারিত যে কাজকর্ম সেগুলোও যথাযথভাবে করতে হবে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আপনাদের বিষয়টি সহৃদয়তার সঙ্গে দেখেছেন বলেই আপনাদের দাবি-দাওয়া পূরনেও এগিয়ে এসেছেন। আপনারাও মুখ্যমন্ত্রীর স্বপ্ন পূরণে সদর্থক ভূমিকা নিয়ে কাজ করুন।