চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # মাধ্যমিকে যুগ্ম প্রথম বর্ধমান সিএমএস হাই স্কুলের রৌনক মন্ডল এবং বাঁকুড়ার রাম হরিপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অর্ণব ঘড়াই # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়মাধ্যমিকের পর উচ্চমাধ্যমিকেও তাক লাগালো কাটোয়ার অভীক পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের আন্দোলন

রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের শাখায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় চাঞ্চল্য


 

রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের শাখায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় চাঞ্চল্য 


ডিজিটাল ডেস্ক রিপোর্ট, সংবাদ প্রভাতী : রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের শাখায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে চাঞ্চল্য ছড়ালো এলাকায়। বর্ধমান শহরের ভাঙ্গাকুঠি এলাকা জিটি রোডের ধারে ব্যাঙ্ক অফ মহারাষ্ট্র শাখার ঘটনা। মঙ্গলবার সকালে ব্যাঙ্ক খুলতেই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়ায়। প্রত্যক্ষদর্শীদের কথায় জিটি রোডের দিকে ব্যাঙ্কের একটি এ সি মেশিনের পাশ থেকে অনর্গল ধোঁয়া বেরিয়ে আসতে দেখে এলাকার মানুষ চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করে দেয়। 

সেই সময় ব্যাঙ্কে প্রায় ২০ জন গ্রাহক এবং ৪ জন ব্যাঙ্ক কর্মী উপস্থিত ছিলেন। ব্যাঙ্কের ভিতরে থাকা কর্মী ও গ্রাহকেরা আতঙ্কে বাইরে বেরিয়ে আসেন। যে ব্যাঙ্কে আগুন লাগে ঠিক তার উপরের ফ্লোরে একটি বেসরকারি ব্যাঙ্ক রয়েছে। আগুনের আতঙ্কে সেখানকার কর্মী ও গ্রাহকরা নেমে পড়েন। খবর যায় দমকলে। পাশেই দমকল কেন্দ্র থাকায় দমকলের একটি একটি ইঞ্জিন আগুন নেভানোর চেষ্টা চালায়। পরে আরও দুটি ইঞ্জিন গিয়ে আগুন আয়ত্তে আনে। বন্ধ করে দেওয়া হয় গ্রাউন্ড ফ্লোরের সব দোকান। প্রায় ঘন্টা খানেকের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে দমকল দপ্তরের কর্মীরা।

ব্যাঙ্ক কর্মী সায়ন কোনার জানান, শর্ট সার্কিটের কারণে প্রথমে এসিতে আগুন লাগে। সেখান থেকে সার্ভার রুম হয়ে ফ্লোরের অন্যত্র আগুন ছড়িয়ে পড়ে। ফ্লোরের ভিতরের আসবাব পত্র, অফিশিয়াল কাগজপত্র  সহ একাধিক প্রয়োজনীয় সামগ্রী পুড়ে গেছে বলে জানান সায়ন বাবু। দমকলের প্রাথমিক অনুমান শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লেগেছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বর্ধমান থানার পুলিশ।


Post a Comment

0 Comments