চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

হাওড়া-নিউ জলপাইগুড়ি বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের যাত্রার সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী # ফুটবলে আর্জেন্টিনার বিশ্বজয়, ফ্রান্স কে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ান মেসি # জয়েন্ট এন্ট্রান্স (মেইন) এর প্রথমভাগের পরীক্ষা ২৪ জানুয়ারি থেকে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত # বর্ধমান জেলা রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন এর শতবর্ষ পূর্তি উদযাপন # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায় #সরকারি কর্মচারীদের সুখের দিন শেষ, শ্রম কোড চালু হতে চলেছে সমগ্র ভারতে # পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার # #পূর্ব বর্ধমান জেলায় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এর উদ্যোগে খালবিল ও চুনোমাছ উৎসবের উদ্বোধন ২৫ ডিসেম্বর

বর্ধমান থানা ও ঈদ সমন্বয় কমিটির উদ্যোগে আলোচনা ও ইফতার মজলিস


 

বর্ধমান থানা ও ঈদ সমন্বয় কমিটির উদ্যোগে আলোচনা ও ইফতার মজলিস 


ডিজিটাল ডেস্ক রিপোর্ট, সংবাদ প্রভাতী : বর্ধমান থানা ও বর্ধমান শহর ঈদ সমন্বয় কমিটির উদ্যোগে আজ সন্ধ্যায় এক আলোচনা সভা ও ইফতার মজলিস অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় অরবিন্দ স্টেডিয়ামে। প্রায় তিন শতাধিক রোজাদার এদিনের ইফতারে অংশ নেন। প্রশাসনের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন বর্ধমান সদর উত্তরের মহকুমা শাসক তীর্থঙ্কর বিশ্বাস, বর্ধমান দক্ষিণের বিধায়ক খোকন দাস, বিডিএ'র চেয়ারপার্সন কাকলি তা গুপ্ত, জেলা পরিষদের মেন্টর উজ্জ্বল প্রামাণিক, ডিএসপি হেডকোয়ার্টার অতনু ঘোষাল, ডিএসপি রাকেশ কুমার চৌধুরী, তৃণমূল কংগ্রেসের পূর্ব বর্ধমান জেলার মুখপাত্র প্রসেনজিৎ দাস সহ বর্ধমান পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলররা। এছাড়াও ছিলেন বর্ধমান কেন্দ্রীয় ঈদ কমিটির সভাপতি নুরে আলম, ইমাম সমশের সাহেব, ইমাম সংগঠনের সহসভাপতি আবুল কাশেম, বর্ধমান শহর ঈদ সমন্বয় কমিটির সম্পাদক মানোয়ার হোসেন, সহসভাপতি স্বপন মুখার্জী প্রমুখ। 

সমগ্র অনুষ্ঠানটি সুন্দর ভাবে পরিচালনা করেন বর্ধমান থানার আইসি সুখময় চক্রবর্তী। ছিলেন থানার অন্যান্য অফিসাররা।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বর্ধমান দক্ষিণের বিধায়ক খোকন দাস বর্ধমান শহরের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির কথা তুলে ধরেন। এবছরও পবিত্র ঈদ উৎসব যাতে শান্তিপূর্ণভাবে পালিত হয় সেই জন্য তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। বিশেষ করে খুশির ঈদ যাতে আনন্দ মুখর থাকে সেদিকে সকলকেই নজর দিতে হবে। ঈদের সময়ে বাইক দুর্ঘটনা রোধে যুব সম্প্রদায়কে সতর্কতা অবলম্বন করে বাইক চালানোর পরামর্শ দিয়েছেন বিধায়ক খোকন দাস। 

মহকুমা শাসক তীর্থঙ্কর বিশ্বাস বলেন, বর্ধমান শহর সম্প্রীতির শহর। সেই ধারাবাহিকতায় যেন ছেদ না পড়ে। প্রশাসন যেকোনও রকম সহযোগিতায় প্রস্তুত। কোনও রকম অশান্তি যাতে না ঘটে সেদিকে সকলকেই নজর রাখতে হবে। ছোট খাটো কিছু অশান্তি হলেও প্রশাসনের নজরে আনবেন। প্রশাসন আপনাদের পাশে আছে। 

বর্ধমান কেন্দ্রীয় ঈদ কমিটির সভাপতি নুরে আলম বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, বর্ধমান শহরে ঈদের নামাজ খুব সুশৃঙ্খল ও সুন্দর ভাবে হয়। প্রশাসনও সর্বতোভাবে সহযোগিতা করে। তিনি বলেন, ঈদের সময় প্রশাসনের তরফে মসজিদ কমিটি ও ঈদ কমিটিগুলোকে ২৫ হাজার টাকা করে সহায়তা প্রদানের ব্যবস্থা করলে ভালো হয়।

Post a Comment

0 Comments