চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # মাধ্যমিকে যুগ্ম প্রথম বর্ধমান সিএমএস হাই স্কুলের রৌনক মন্ডল এবং বাঁকুড়ার রাম হরিপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অর্ণব ঘড়াই # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়মাধ্যমিকের পর উচ্চমাধ্যমিকেও তাক লাগালো কাটোয়ার অভীক পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের আন্দোলন

পুলিশের তল্লাশি অভিযানে উদ্ধার ৯ লক্ষ টাকা, আটক ২


 

পুলিশের তল্লাশি অভিযানে উদ্ধার ৯ লক্ষ টাকা, আটক ২ 


কাজল মিত্র, আসানসোল : পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসোল লোকসভা উপনির্বাচনের আগে ফের নগদ টাকা উদ্ধার বাংলা ঝাড়খন্ড সীমান্তের ডুবুর্ডি চেকপোস্টে। সন্দেহ জনক ভাবে একটি বোলেরো গাড়ি আটকাতেই তার ভেতরে বেশ কয়েকটি ব্যাগের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে টাকা দেখতে পায় পুলিশ এবং প্রশাসনিক কর্তারা। যদিও গাড়িতে থাকা চালক এবং অন্য আরেক যাত্রী বারবার মিথ্যে কথা বলে পুলিশকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করে এবং শেষ পর্যন্ত কোনো নথি দেখাতে না পারার জন্য সমস্ত টাকা বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে মোট ৯ লক্ষ টাকা ছিল ওই গাড়িতে। অন্যান্য দিনের মতো বৃহস্পতিবারও বাংলা ঝাড়খন্ড সীমান্তে ডুবুর্ডি চেকপোস্টে চলছিল নাকা চেকিং এবং তখনই একটি বোলেরো গাড়ি দেখে সন্দেহ হয় পুলিশের। গাড়ি থামিয়ে ড্রাইভারকে জিজ্ঞাসাবাদ করতেই তিনি প্রথমে বলেন ধানবাদ থেকে গাড়ি থেকে নিয়ে আসছেন। পরে আরও নানান ভাবে বিভ্রান্ত করতে শুরু করেন পুলিশকে। এরপর পুলিশের সন্দেহ হওয়ায় পুলিশ গাড়িটিতে তল্লাশি চালায়। তল্লাশি চালাতেই গাড়ির মধ্যে বেশ কয়েকটি ব্যাগের মধ্যে দেখা যায় প্রচুর পরিমাণে টাকা রয়েছে। সেই টাকার কোনো নথি দেখাতে পারেনি গাড়িতে থাকা চালক এবং যাত্রীরা। জানা গিয়েছে গাড়ি চালকের নাম গোবিন্দ চৌধুরী এবং যিনি বসেছিলেন তাঁর নাম কমল কুমার। মূলত এই কমলকুমারের কাছ থেকে  উদ্ধার হয় ৯ লক্ষ টাকা। যার কোনো নথি দেখাতে পারেনি কমলকুমার। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে গাড়িটি বিহারের আরা জেলা থেকে আসছিল এবং আসানসোলের জামুড়িয়া তে এই টাকা নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। কি কারনে টাকা নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল তা নিয়ে তদন্তে নেমেছে পুলিশ। আপাতত সম্পূর্ণ টাকা সরকারি ট্রেজারিতে নিয়ে নেওয়া হয়েছে। এদিনের তল্লাশি অভিযানে উপস্থিত ছিলেন কুলটি থানার অধিকারিক কৃষ্ণেন্দু দত্ত, চৌরাঙ্গিফাঁড়ির আধিকারিক অলকেশ ব্যানার্জী, এস এস টি টিমের সত্যব্রত ঘোষ এছাড়া কুলটি ট্রাফিকগার্ডের পুলিশ।

আসানসোল লোকসভা উপনির্বাচন ঘিরে পশ্চিম বর্ধমান জেলার ২১ টি জায়গায় ২৪ ঘন্টা  চলছে নাকা তল্লাশি।এই উপ-নির্বাচন ঘোষণার পর  থেকেই সব জায়গায় এই তল্লাশি অভিযান চলছে। পুলিস সূত্রের খবর, নাকা তল্লাশিতে  অভিযান চালিয়ে এখনো পর্যন্ত ৩০ লক্ষের বেশি টাকা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

বুধবার সকালে রুণাকুরা ঘাট থেকে ১৭ লক্ষ টাকা উদ্ধারের পর একইদিনে  সন্ধ্যায় কুলটি থানার অন্তর্গত বরাকর ফাঁড়ির পুলিশ রামনগর নাকায় কুলটির সাঁকতোড়িয়ার বাসিন্দা প্রসেনজিৎ মুখার্জির কাছ থেকে এক লাখ ৯০ হাজার টাকা বাজেয়াপ্ত করেছে। 

Post a Comment

0 Comments