Scrooling

নরেন্দ্র মোদীর মন্ত্রীসভায় পশ্চিমবঙ্গ থেকে শপথ নিলেন ডঃ সুকান্ত মজুমদার ও শান্তনু ঠাকুর # অ্যালার্জিজনিত সমস্যায় ভুগছেন ? বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডাঃ অয়ন শিকদার আগামী ২১ জুলাই বর্ধমানে আসছেন। নাম লেখাতে যোগাযোগ 9734548484 অথবা 9434360442 # আঠারো তম লোকসভা ভোটের ফলাফল : মোট আসন ৫৪৩টি। NDA - 292, INDIA - 234, Others : 17 # পশ্চিমবঙ্গে ভোটের ফলাফল : তৃণমূল কংগ্রেস - ২৯, বিজেপি - ১২, কংগ্রেস - ১

বাণী বিদ্যানিকেতন স্কুলের বার্ষিক অনুষ্ঠান



বাণী বিদ্যানিকেতন স্কুলের বার্ষিক অনুষ্ঠান 


অতনু হাজরা, জামালপুর : পূর্ব বর্ধমান জেলার জামালপুরে আবুইঝাটি ১ অঞ্চলের বাণী বিদ্যাপীঠ বিদ্যালয়ে বার্ষিক পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। এরই সাথে বিদ্যালয়ের একটি মঞ্চের আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হলো শনিবার। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জামালপুর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মেহেমুদ খান, জামালপুর পূর্ব চক্রের অবর বিদ্যালয় পরিদর্শক রাজেন্দ্র প্রসাদ মাজি, বিদ্যালয়ের ভার প্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক গিয়াস উদ্দিন মোল্লা, বিদ্যালয়ের পরিচালন সমিতির সভাপতি তাপস কুমার ঘোষ, বিশিষ্ট সমাজসেবী মৃদুল কান্তি মন্ডল সহ অন্যান্যরা। পঞ্চম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত বিভিন্ন বিষয়ে প্রথম দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারীদের উপহার হিসাবে বই তুলে দেওয়া হয়। বিদ্যালয়ের এই অনুষ্ঠানে পরবর্তী সময়ে এসে যোগ দেন জামালপুরের বিধায়ক অলোক কুমার মাঝি। অলোক বাবু বলেন দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর স্কুল খুলেছে এবং এই কচিকাঁচাদের স্কুলে দেখে খুবই ভালো লাগছে তার। এই পুরস্কার প্রদান ছাত্র-ছাত্রীদের উৎসাহিত করবে বলে তিনি মনে করেন। তিনি এই বিদ্যালয়ের সর্বাঙ্গীণ উন্নতি কামনা করেন। 

পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মেহেমুদ খান বলেন আজকের এই অনুষ্ঠানে এসে খুবই ভালো লাগছে তার। কারণ দীর্ঘদিন বিদ্যালয়গুলো ছিল বন্ধ আর এই অনুষ্ঠানে যেন প্রাণ ফিরে পেয়েছে কচিকাঁচারা। ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক গিয়াস উদ্দিন মোল্লা বলেন দীর্ঘদিন ধরে এই কোভিড পরিস্থিতিতে বিদ্যালয় বার্ষিক পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান করা যাচ্ছিল না। এখন বিদ্যালয়ের খুলতে সেটা সম্ভব হয়েছে তাই আজ এই বার্ষিক অনুষ্ঠান করা হলো। এর সঙ্গে তিনি আরো জানান এই যে বিভিন্নভাবে বিভিন্ন ক্লাসে যে পুরস্কারগুলি দেওয়া হল এর বেশিরভাগই আসে গ্রামবাসীদের পক্ষ থেকে অর্থাৎ তারা প্রতি বিষয়ে প্রথম দ্বিতীয় এবং তৃতীয় স্থান অধিকারী দের পুরস্কার প্রদান করে থাকেন। দীর্ঘদিন পর স্কুল খুলে এই ধরণের অনুষ্ঠানের আয়োজনের ফলে ছাত্র-ছাত্রীদেরও যথেষ্ট খুশি দেখায়।