চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # মাধ্যমিকে যুগ্ম প্রথম বর্ধমান সিএমএস হাই স্কুলের রৌনক মন্ডল এবং বাঁকুড়ার রাম হরিপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অর্ণব ঘড়াই # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়মাধ্যমিকের পর উচ্চমাধ্যমিকেও তাক লাগালো কাটোয়ার অভীক পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের আন্দোলন

আসানসোল উপনির্বাচনে বাম প্রার্থী পার্থ মুখার্জী বিজেপি-তৃণমূলকে নিয়ে কি বললেন


 

আসানসোল উপনির্বাচনে বাম প্রার্থী পার্থ মুখার্জী বিজেপি-তৃণমূলকে নিয়ে কি বললেন 


কাজল মিত্র, আসানসোল : পশ্চিম বর্ধমানে আসানসোল লোকসভা উপনির্বাচন কে সামনে রেখে প্রতিটি দল নিজেদের মত করে কর্মীসভা ও প্রচার সারছে। শনিবার চিত্তরঞ্জন রেল শহরের বুকে চিত্তরঞ্জন চারের পল্লী কমিউনিটি হল প্রাঙ্গণে  নির্বাচনী সভা করতে দেখা গেল আসানসোল লোকসভা উপনির্বাচনের বাম প্রার্থী পার্থ মুখার্জীকে। এদিন তিনি বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন বিজেপি ডাক দিয়েছিল স্টার্টআপ ইন্ডিয়া, আর এখন কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকার বলছে শাট আপ ইন্ডিয়া। তৃণমূল প্রার্থী সকলকে খামোশ করে দিতে আসানসোলের মাটিতে নেমেই বলে উঠলেন খামোশ। অর্থাৎ তৃণমূল সকলকে সকল জনতাকে চুপ করিয়ে দিতে চাইছে। করবেই না কেন মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী যেভাবে নিজেদের সরকার চালাচ্ছে তাতে সকলেই খামোশ হয়ে বসে আছে। 

তিনি বলেন, এই নির্বাচন আমাদের কাছে কাম্য ছিল না, কিন্তু একজন ব্যক্তির নিজের স্বার্থের কারনে নির্বাচন হচ্ছে। যদিও আমাদেরকেও একটা সুযোগ করে দিয়েছে সাধারণ মানুষের কাছে কাজ করার। তিনি বিজেপির সাংসদ থেকে এই সিটে জয় যুক্ত হয়েছিলেন কিন্তু নিজের স্বার্থে পদত্যাগ করে তৃণমূলে যোগদান করেন। বাবুল সুপ্রিয়, কিছুদিন আগে তৃণমূলের বিরুদ্ধে কথা বলে জয়ী হয়েছিলেন। আর এখন তিনি দল পাল্টে বিজেপির বিরুদ্ধেই বিধায়ক পদে লড়াই করছেন। আসলে তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে কোন ফারাক নেই। কেন্দ্রীয় সরকারের নীতির কারণে রেল শহর এখন রুগ্ন প্রায় সকল সরকারি প্রতিষ্ঠান বেসরকারির দিকে ঠেলে দিচ্ছে, সরকারি স্কুল বন্ধ, এখানকার স্কুলগুলি বন্ধ হতে চলেছে প্রাইমারি বিভাগ সব বন্ধ হয়ে গেছে। এরপর বন্ধ হবে চিকিৎসা বিভাগ। আর রাজ্য সরকারের নীরবতার ফলে বন্ধ হয়েছে হিন্দুস্থান কেবলস এর মত একটি কারখানা । এর জবাব বামপন্থীদের জিতিয়ে মানুষকে দিতে হবে। তিনি বাবুল সুপ্রিয় কে কটাক্ষ করে বলেন লোকসভায় বিজেপি জয়ী হয়ে হিন্দুস্তান কেবলসে আবির খেলেছিল, আর আজ হিন্দুস্তান কেবলস শুধু বন্ধ হয়েছে তাই নয় – এখানে চুরি লুট চলছে পুরোদমে। এসব প্রতিরোধ করতে বামপন্থীদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান তিনি। এই সভায় আরও বাম নেতা রঞ্জিত সরকার এবং অন্যান্যরা।

Post a Comment

0 Comments