চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # মাধ্যমিকে যুগ্ম প্রথম বর্ধমান সিএমএস হাই স্কুলের রৌনক মন্ডল এবং বাঁকুড়ার রাম হরিপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অর্ণব ঘড়াই # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়মাধ্যমিকের পর উচ্চমাধ্যমিকেও তাক লাগালো কাটোয়ার অভীক পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের আন্দোলন

বিবেক চেতনা উৎসব


 

বিবেক চেতনা উৎসব 


অতনু হাজরা, জামালপুর :  মহান বীর সন্ন্যাসী স্বামী বিবেকানন্দের  জন্মদিন উপলক্ষ্যে ১২ জানুয়ারী রাজ্য জুড়ে রাজ্যের ক্রীড়া ও যুবকল্যান দপ্তরের নির্দেশে  প্রতি ব্লকে পালন করা হচ্ছে বিবেক চেতনা উৎসব। শুধু ব্লকের উৎসবের মধ্যেই নয়। আজকের এই বিশেষ দিনটি বিভিন্ন বিদ্যালয়, ক্লাব, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন মহা সমারোহে শ্রদ্ধার সাথে পালন করছে। জামালপুর ব্লকের বিবেক চেতনা উৎসব অনুষ্ঠিত হলো গোপালপুর মুক্তকেশী বিদ্যালয়ে। আয়োজন করে ব্লক ক্রীড়া ও যুবকল্যান দপ্তর। পুরো কোভিড বিধি মেনে করা হয় অনুষ্ঠান। সকালে একটি সংক্ষিপ্ত পদযাত্রা করা হয়।

 জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও বিবেকানন্দের ছবিতে মাল্যদানের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জামালপুরের বিধায়ক অলোক কুমার মাঝি, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মেহেমুদ খান, শিক্ষা ও ক্রীড়া কর্মাধ্যক্ষ অরবিন্দ ভট্টাচার্য, বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দেবব্রত মুখার্জী, শিক্ষক বিপ্লব ঘোষ, যুবকল্যান আধিকারিক সমরেশ দেবনাথ, অনুপম চ্যাটার্জী, বিদ্যালয়ের পরিচালন সমিতির সভাপতি নাসিরুল হক, সহ বিদ্যালয়ের সমস্ত শিক্ষক- শিক্ষিকা ও শিক্ষাকর্মী বৃন্দ, ১৩ টি পঞ্চায়েতের প্রধান উপ প্রধানরা ও স্বল্প সংখ্যক ছাত্র ছাত্রীরা। বক্তব্য রাখতে গিয়ে বিধায়ক  অলোক মাঝি জানান, যেখানে  মনীষীদের জন্মদিনে আগে ছুটি হিসাবে পালন করা হত এখন মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে তাঁদের সম্মান ও শ্রদ্ধার সঙ্গে অনুষ্ঠানের মাধ্যমে স্মরণ করা হয়। তিনি বিবেকানন্দের আদর্শ মেনে চলার কথা ছাত্র ছাত্রীদের বলেন। শুধু ছাত্র ছাত্রীরাই নয় সকলের উচিত বিবেকানন্দের আদর্শ মেনে চলা। মেহেমুদ খান বলেন, বিবেকানন্দ এমন একজন মনীষী যাঁকে সারা বিশ্বের মানুষ সম্মান ও শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন। আজকের দিনেও বিবেকানন্দ সকল মানুষের কাছে সমান প্রাসঙ্গিক। সকলেরই উচিত তাঁর পথ ও আদর্শ মেনে চলা। তিনি এই অনুষ্ঠানটি সফলভাবে সম্পাদনের জন্য গোপালপুর মুক্তকেশী বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সহ সকলকে ধন্যবাদ জানান। ব্লকের যুবকল্যাণ দপ্তরের আধিকারিক সমরেশ দেবনাথ জানান, কোভিড প্রটোকল মেনে  রেস্ট্রিক্টেড ভাবে আজকের এই অনুষ্ঠান পালন করতে হয়েছে। আর এই অল্প সময়ের মধ্যেও গোপালপুর মুক্তকেশী বিদ্যালয় সফল ভাবেই অনুষ্ঠানটির আয়োজন করতে পেরেছে বলে তিনি জানান। 

আজকের এই অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে বিভিন্ন পঞ্চায়েতের প্রধান বা উপ প্রধানদের হাতে ৫ টি করে ফুটবল তুলে দেওয়া হয়। বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দেবব্রত মুখার্জী জানান, তাঁর স্কুলকে এই মহান মনীষীর জন্মদিবস পালন করার জন্য বেছে নেওয়ায় ব্লক প্রশাসনকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। বিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীরা নৃত্য ও সংগীত পরিবেশন করে।

 অনুষ্ঠানটি সুন্দর ভাবে পরিচালনা করেন বিদ্যালয়ের শিক্ষক লাল্টু কোলে ও শিক্ষিকা পায়েল চক্রবর্তী। অনুষ্ঠানটি সম্পন্ন করতে সহযোগিতা করেন বিদ্যালয়ের শিক্ষক রাজু দাস। অংশগ্রহণকারী সমস্ত ছাত্র ছাত্রীকে অনুষ্ঠানের শেষে ছোট্ট প্রীতি উপহার দেওয়া হয়। সকলের জন্য টিফিনের ব্যবস্থা ছিল।

       এছাড়াও আজ জামালপুর ব্লক অফিসে স্বামী বিবেকানন্দের আবক্ষ মূর্তিতে মাল্যদান করেন বিডিও শুভঙ্কর মজুমদার ও পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মেহেমুদ খান। উপস্থিত ছিলেন ব্লকের অন্যান্য কর্মীরাও। 

নিজের দলীয় কার্যালয়ে বিবেকানন্দের প্রতিকৃতিতে  মাল্যদান করেন মেহেমুদ খান ও পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ ভুতনাথ মালিক সহ অন্যান্যরা। পাঁচড়া গ্রাম পঞ্চায়েতেও আজ বিবেকানন্দের জন্মদিবস পালন করা হয়। উপস্থিত ছিলেন  প্রধান লালু হেমব্রম, উপ প্রধান বিকাশ পাকড়ে ও কৃষি সঞ্চালক জয়দেব দাস।


Post a Comment

0 Comments