চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # মাধ্যমিকে যুগ্ম প্রথম বর্ধমান সিএমএস হাই স্কুলের রৌনক মন্ডল এবং বাঁকুড়ার রাম হরিপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অর্ণব ঘড়াই # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়মাধ্যমিকের পর উচ্চমাধ্যমিকেও তাক লাগালো কাটোয়ার অভীক পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের আন্দোলন

এফসিআই এর উদ্যোগে বর্ধমানে আজাদী কা অমৃত মহোৎসব


 

এফসিআই এর উদ্যোগে বর্ধমানে আজাদী কা অমৃত মহোৎসব 


ডিজিটাল ডেস্ক রিপোর্ট, সংবাদ প্রভাতী : ভারতের স্বাধীনতার ৭৫ বছর স্মরণে দেশজুড়ে নানা কর্মসূচি চলছে। ভারত সরকারের ফুড কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়াও সামিল হয়েছে এই কর্মসূচি উদযাপনে। চলতি বছরের ১২ মার্চ ভারত সরকারের খাদ্য দপ্তরের বর্ধমান বিভাগের উদ্যোগে আজাদী কা অমৃত মহোৎসবের সূচনা হয়েছে এবং আগামী ২০২২ সালের ১৫ আগস্ট এই কর্মসূচির সমাপ্তি অনুষ্ঠান হবে। এই কর্মসূচিতে ফুড কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া বর্ধমান ডিভিশন নানা অনুষ্ঠান করে চলেছে ইতিমধ্যেই বসে আঁকো প্রতিযোগিতা সহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে। সোমবার এক অনুষ্ঠানে বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় স্থানাধিকারীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। 

অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ভাতারের বিধায়ক মানগোবিন্দ অধিকারী, পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের খাদ্য দপ্তরের কর্মাধ্যক্ষ মেহেবুব মন্ডল, বর্ধমান ডিস্ট্রিক্ট রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশনের অ্যাক্টিং প্রেসিডেন্ট আব্দুল মালেক, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সুব্রত মন্ডল, সহ-সম্পাদক কিরণ শংকর মন্ডল, ফুড কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়ার বর্ধমান ডিভিসনের এজিএম বিবেক পোদ্দার, অধ্যাপক মানবেশ মজুমদার, সমাজসেবী অরিন্দম সাহা প্রমুখ। সমগ্র অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন এফ সি আই এর বর্ধমান ডিভিশনের কোয়ালিটি কন্ট্রোল ম্যানেজার বিনয় ভট্টাচার্য। 

প্রদীপ প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে এদিনের অনুষ্ঠানের সূচনা করেন অতিথিরা। এরপর "আহা কি আনন্দ আকাশে বাতাসে..." উদ্বোধনী সংগীত পরিবেশন করে সৃজা সাহা। এরপর জাতির জনক মহাত্মা গান্ধী ও নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু'র প্রতিকৃতিতে মাল্যদান এবং পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন অতিথিরা। 

এদিন বর্ধমান রেলওয়ে ইনস্টিটিউট হলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এফসিআই বর্ধমান ডিভিশনের পক্ষ থেকে ভারতের খাদ্য সরবরাহ বিষয়ে একটি তথ্য চিত্র সকলের সামনে প্রদর্শন করা হয়।

আজাদি কা অমৃত মহোৎসবের অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে এফসিআই এর বর্ধমান ডিভিশনের অফিস স্থানান্তরের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তীব্র আপত্তি জানান বর্ধমান জেলা রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশনের কার্যকরী সভাপতি আব্দুল মালেক। শস্যগোলা বর্ধমানেই এফসিআই অফিস বহাল রাখার দাবিও জানান তিনি।

 সোমবার বর্ধমান রেলওয়ে ইনস্টিটিউট হলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সময়ে আজাদী কা অমৃত মহোৎসবের অনুষ্ঠান হচ্ছে। তিনি এই কর্মসূচির সাফল্য কামনা করে বলেন ভারতের খাদ্য বন্টন ব্যবস্থায় এফসিআই এর ভূমিকা উল্লেখযোগ্য। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চাষীদের কাছ থেকে ধান কেনার নির্দেশ দেবার আগে পর্যন্ত এফসিআই গণবন্টন ব্যবস্থার জন্য যে নিম্নমানের চাল সরবরাহ করতো। সেটা নিয়েও রাইস মিল অ্যাসোসিয়েশনের কর্তা আব্দুল মালেক পরোক্ষভাবে কটাক্ষ করেছেন।

বিধায়ক মানগোবিন্দ অধিকারী বক্তব্য রাখতে গিয়ে স্বাধীনতার ৭৫ বছর স্মরণে অনুষ্ঠানের সময়সীমা নিয়ে মৃদু কটাক্ষ করেন।


Post a Comment

0 Comments