চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # মাধ্যমিকে যুগ্ম প্রথম বর্ধমান সিএমএস হাই স্কুলের রৌনক মন্ডল এবং বাঁকুড়ার রাম হরিপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অর্ণব ঘড়াই # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়মাধ্যমিকের পর উচ্চমাধ্যমিকেও তাক লাগালো কাটোয়ার অভীক পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের আন্দোলন

দুর্গাপুজোর উদ্বোধনে সম্প্রীতির নজির জামালপুরে


 

দুর্গাপুজোর উদ্বোধনে সম্প্রীতির নজির জামালপুরে

 


অতনু হাজরা, জামালপুর : মহাপঞ্চমীর দিন থেকেই মফস্বলের পুজো উদ্বোধন শুরু হয়ে গেছে।পূর্ব বর্ধমানের জামালপুর এব্যাপারে নজির সৃষ্টি করেছে। বাঙালির সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গা পূজার উদ্বোধন করছেন পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি তথা তৃণমূলের ব্লক সভাপতি মেহেমুদ খান। তাঁর সাথে আছেন জামালপুরের বিধায়ক অলোক কুমার মাঝি ও জামালপুরের যুগ্ম সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক গৌতম কুমার দত্ত, পূর্ত কর্মাধক্ষ্য তথা ব্লক তৃণমূল যুব সভাপতি ভুতনাথ মালিক, জয়হিন্দবাহিনীর ব্লক সভাপতি সাহাবুদ্দিন মন্ডল সহ তাবারক আলী মন্ডল, সাহাবুদ্দিন শেখ সহ অন্যান্যরা। পঞ্চমী ও ষষ্ঠী মিলিয়ে মোট ২৩ টি পুজো উদ্বোধন করবেন। ধর্ম যার যার উৎসব সবার সেই কথারই স্বার্থক প্রয়োগ ঘটছে এখানে। 

পঞ্চমীর দিনে তিনি হুসুমপুর বারোয়ারী, নশিপুর সর্দার পাড়া বারোয়ারী, আঝাপুর হাটতলা বারোয়ারী, জামালপুর নেতাজি অ্যাথলেটিক ক্লাব এদের আয়োজিত দুর্গা পূজার শুভ উদ্বোধন করেন। মেহেমুদ খান বলেন তিনি খুবই ভাগ্যবান। তিনি একজন মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ হয়েও আজ দুর্গা পূজার উদ্বোধন করছেন।তিনিও বলেন মুখ্যমন্ত্রী বার বার বলেন ধর্ম যার যার উৎসব সবার। তাই বাঙালির সবচেয়ে বড় উৎসবে সামিল হতে পেরে তিনি নিজেকে ধন্য মনে করছেন। তিনি আরো বলেন সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এই নজির পশ্চিমবঙ্গ ছাড়া আর কোথাও দেখা যাবে না। তাঁকে দিয়ে পুজো উদ্বোধন করানোর জন্য সকল ক্লাব বা বারোয়ারীগুলিকে তিনি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। বিধায়ক অলোক কুমার মাঝি সকলকে দুর্গাপূজার শুভেচ্ছা জানিয়ে কোভিড পরিস্থিতিতে যেখানে দুর্গাপূজা কমিটিগুলো পূজা করতে পারবেন কিনা সন্দেহ ছিল সেই জায়গাতে তিনি আবারও ক্লাব গুলিকে ৫০ হাজার টাকা করে অনুদান দিয়ে নিজের মানবিক মুখ দেখিয়েছেন। তিনি সকলকে কোভিড বিধি মেনে চলার পরামর্শ দেন। জয়েন্ট বিডিও গৌতম বাবু বলেন পুজোতে সকলে আনন্দ উপভোগ করলেও কোভিড পরিস্থিতির কথা কেউ যেন ভুলে না যায়। সকলেই যেন মাস্ক পরে স্যানিটাইজার নিয়ে পুজো দেখতে বের হন সেই কথা বলেন।

প্রসঙ্গত হুসুমপুর কালিমাতা যুবসঙ্ঘ ও নেতাজি অথলেটিক ক্লাব অসহায় দুঃস্থ মানুষদের জন্য বস্ত্র বিলি করেন।

নেতাজি ক্লাব পুরদীপ সব পেয়েছির আসরের বাচ্চারা পুজো উদ্বোধন উপলক্ষ্যে একটি নাটক পরিবেশন করে যা উপস্থিত সকল অতিথিদের প্রশংসা পায়।



Post a Comment

0 Comments