চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # মাধ্যমিকে যুগ্ম প্রথম বর্ধমান সিএমএস হাই স্কুলের রৌনক মন্ডল এবং বাঁকুড়ার রাম হরিপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অর্ণব ঘড়াই # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়মাধ্যমিকের পর উচ্চমাধ্যমিকেও তাক লাগালো কাটোয়ার অভীক পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের আন্দোলন

তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে সাতদিন ব্যাপি  নকআউট ফুটবল প্রতিযোগিতা


 

তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে সাতদিন ব্যাপি  নকআউট ফুটবল প্রতিযোগিতা 


অতনু হাজরা, জামালপুর : বিধানসভা ভোটের পূর্বে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর একটি গুরুত্বপূর্ণ স্লোগান ছিল খেলা হবে। সেই স্লোগানটিকে মর্যাদা দিয়েই ১৬  আগস্ট খেলা হবে দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছেন। সেই খেলা হবে স্লোগানটিকে ধরেই পূর্ব বর্ধমানের জামালপুরে জামালপুর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে পাড়াতল ১ পঞ্চায়েতের সহযোগিতায় সাহাপুর খেলার মাঠে একটি নকআউট ফুটবল প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। 

ফুটবলে কিক করে খেলার শুভ সুচনা করেন জামালপুরের বিধায়ক অলোক কুমার মাঝি ও ব্লক সভাপতি মেহেমুদ খান। খেলার এই অনুষ্ঠানে তাঁরা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ তথা ব্লকের মহিলা নেত্রী মিঠু মাঝি, ব্লকের যুব সভাপতি ভুতনাথ মালিক, জেলার যুব সহ সভাপতি ও ব্লকের জয়হিন্দ বাহিনীর সভাপতি সাহাবুদ্দিন মন্ডল, আই এন টি টি ইউ সি'র সভাপতি তাবারক আলী মন্ডল, সংখ্যা লঘু সেলের সভাপতি ওয়াসিম আক্রম, ছাত্র পরিষদের সভাপতি বিট্টু মল্লিক, পাড়াতল ১ নং গ্রাম  পঞ্চায়েতের প্রধান উত্তম হাজারী, উপ প্রধান শ্রীজীব ঘোষ সহ অন্যান্যরা। 

আজকের উদ্বোধনী খেলায় অংশগ্রহণকারী দুই দল হলো সাহাবুদ্দিন মন্ডল ফ্যান ক্লাব ও জৌগ্রাম ফুটবল কোচিং সেন্টার। বিধায়ক অলোক কুমার মাঝি বলেন ভোটের আগে এই খেলা হবে স্লোগান খুবই বিখ্যাত হয়েছিল। সেটার স্বীকৃতি মুখ্যমন্ত্রী দিয়েছেন খেলা হবে দিবসের মাধ্যমে। এখানে এই খেলার আয়োজন করার জন্য মেহেমুদ খান সহ পাড়াতল ১ পঞ্চায়েতের প্রধান, উপ প্রধান সহ সকল নেতৃত্বকে ধন্যবাদ জানান। মেহেমুদ খান বলেন,  খেলার মধ্যে দিয়েই সম্প্রীতি সৌহার্দ্যতা বজায় থাকে। যুব সমাজ যাতে বিপথে না যায় সেই জন্যই ক্লাবগুলোকে অনুদান দিয়ে যুবসমাজকে মাঠমুখী করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর এই প্রচেষ্টাকে সম্মান জানাতেই তাঁরা আজ এই ফুটবল প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছেন। সাতদিনব্যাপি হবে এই প্রতিযোগিতা।


Post a Comment

0 Comments