চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # মাধ্যমিকে যুগ্ম প্রথম বর্ধমান সিএমএস হাই স্কুলের রৌনক মন্ডল এবং বাঁকুড়ার রাম হরিপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অর্ণব ঘড়াই # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়মাধ্যমিকের পর উচ্চমাধ্যমিকেও তাক লাগালো কাটোয়ার অভীক পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের আন্দোলন

বড়শুল কিশোর সংঘের মানবিক উদ্যোগ


 

বড়শুল কিশোর সংঘের মানবিক উদ্যোগ


ডিজিটাল ডেস্ক রিপোর্ট, সংবাদ প্রভাতী :  পূর্ব বর্ধমান জেলার সমাজ সেবার অঙ্গনে বড়শুল কিশোর সংঘ যে একটি উল্লেখযোগ্য নাম ফের তার প্রমান পাওয়া গেল। নেগেটিভ গ্রুপের রক্ত না পেয়ে সদ্যোজাত এক শিশুর জীবন সংশয় অবস্থা। খবর পেয়েই যুদ্ধকালীন তৎপরতায় রীতিমতো ঝাঁপিয়ে পড়েন বড়শুল কিশোর সংঘের সম্পাদক পার্থ ঘোষ। শেষ পর্যন্ত কালনা সুপার স্পেশালিটি মহকুমা হাসপাতালের ব্লাড ব্যাঙ্ক থেকে রক্ত সংগ্রহ করে পৌঁছে দেন। 

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, বড়শুল এলাকারই দুদিনের সদ্যোজাত ভূমিষ্ট হওয়া একটি শিশু কন্যার A নেগেটিভ রক্তের প্রয়োজন। জরুরি ভিত্তিতে শিশু কন্যাটিকে আজকের মধ্যেই রক্ত দিতে হবে। বর্ধমানের কোনো ব্লাড ব্যাঙ্কে এই গ্রুপের রক্ত পাওয়া যায়নি। A নেগেটিভ গ্রুপ যার আছে এরকম কোনো সহৃদয় -মানবিক ব্যক্তি নিজে স্বেচ্ছায় রক্তদান করে শিশুটির প্রান বাঁচাতে এগিয়ে আসেন তার জন্য কিশোর সংঘের সম্পাদক পার্থ ঘোষ বিভিন্ন জায়গায় ফোন করার পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়ায় সকলের কাছে আবেদন রাখেন।

বড়শুল কিশোর সংঘের আপৎকালীন তৎপরতা ও উদ্যোগে এবং ফেডারেশন অফ ব্লাড ডোনারস অর্গানাইজেশন অফ ইন্ডিয়ার সহযোগিতায় কালনা মহকুমা হাসপাতাল থেকে বড়শুল এলাকারই দুদিনের সদ্যোজাত ভূমিষ্ট হওয়া একটি শিশু কন্যার A নেগেটিভ এক ইউনিট রক্ত পাওয়া যায়। 

পার্থ বাবু বলেন, যে সমস্ত সহৃদয় ও মানবিক ব্যক্তিগন ফেসবুক ও হোয়াটসআপ গ্রুপ থেকে অবগত হয়ে ফোন করে স্বেচ্ছায় রক্তদান করার জন্য যোগাযোগ করেছেন তাদেরকেও বড়শুল কিশোর সংঘের পক্ষ থেকে জানাই আন্তরিক অভিনন্দন। ধন্যবাদ জানাই বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ব্লাড ব্যাঙ্ক ও কালনা মহকুমা হাসপাতালের ব্লাড ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষকে।


Post a Comment

0 Comments