Scrooling

ঘূর্ণিঝড় রিমাল : পূর্ব বর্ধমানে ৪টি ব্লক ক্ষতিগ্রস্ত, মৃত ২ # চুরুলিয়ায় ৫ দিন ব্যাপী নজরুল স্মরণে বর্ণময় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও মেলা # নন্দীগ্রামে বিজেপি সমর্থক খুনে রিপোর্ট চাইলো কমিশন # ১৮ তম লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল জানা যাবে ৪ জুন

সম্বর্ধনায় নজীর গড়লো জামালপুর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস

 



সম্বর্ধনায় নজীর গড়লো জামালপুর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস


অতনু হাজরা, জামালপুর : পূর্ব বর্ধমান জেলার জামালপুর ব্লক রবিবার এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করলো। এদিন জামালপুর নেতাজি ময়দানে তৃণমূলের জামালপুরের ব্লক সভাপতি মেহেমুদ খানের উদ্যোগে জেলার ১৫ জন বিধায়ক, মন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেসের নব নির্বাচিত জেলা সভাপতি, জেলা যুব সভাপতি, মহিলা সভানেত্রী সহ ২৩ টি ব্লকের ব্লক সভাপতি, বর্ধমান শহর সভাপতি, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি, জেলা পরিষদের সভাধিপতি, সহকারী সভাধিপতি, অধ্যক্ষ ও জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষদের সম্বর্ধনা দেওয়া হয়। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ উন্নয়ন দপ্তরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ, মুখ্যমন্ত্রীর কৃষি উপদেষ্টা তথা দুর্গাপুর পূর্বের বিধায়ক প্রদীপ মজুমদার, নব নির্বাচিত জেলা সভাপতি তথা কাটোয়ার বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ চ্যাটার্জী, জেলার নব নিযুক্ত যুব সভাপতি তথা জামালপুরের বিধায়ক অলোক কুমার মাঝি, আই এন টি টি ইউ সির জেলা সভাপতি তথা ভাতারের বিধায়ক মানগোবিন্দ অধিকারী, জেলার মহিলা সভানেত্রী চন্দনা মাঝি, দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন দপ্তরের চেয়ারম্যান সুভাষ মন্ডল, পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের সভাধিপতি তথা রায়নার বিধায়ক শম্পা ধারা, সহকারী সভাধিপতি দেবু টুডু, বিধায়ক নিশীথ কুমার মালিক, নবীন চন্দ্র বাগ, অভেদানন্দ থান্ডার, অপূর্ব চৌধুরী, তপন চট্টোপাধ্যায়, সেখ শাহনেওয়াজ,  মধুসুদন ভট্টাচার্য্য, খোকন দাস, টিএমসিপি'র জেলা সভাপতি সাদ্দাম হোসেন সহ সকল বিধায়ক, ব্লক সভাপতি, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতিরা। সকলকে চন্দনের ফোঁটা, উত্তরিয়, ফুলের তোড়া, একটি মেমেন্টো ও একটি শাল দিয়ে সম্বর্ধণা দেওয়া হয়।


অনুষ্ঠানের প্রথমে দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন জেলার নব নিযুক্ত সভাপতি রবীন্দ্রনাথ চ্যাটাuর্জী।মেহমুদ খান তাঁর বক্তব্যের প্রথমেই সকলকে তাঁর কৃতজ্ঞতা জানান তার এই অনুষ্ঠানের ডাকে সাড়া দিয়ে সকলকে জামালপুরে আসার জন্য। তিনি খুবই আনন্দিত আজকের এই মঞ্চে রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ কে পেয়ে। তিনি এই মঞ্চ থেকেই চব্বিশের ভোটে দেশ বাংলার মেয়েকেই চায় প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়কে আগামী লোকসভা নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান বলে জানান। জেলা সভাপতি রবীন্দ্রনাথ চ্যাটার্জী বলেন ভোটের আগেই অনেক নেতাই ভেবেছিলেন দল ক্ষমতায় আসতে পারবে না। তাই অনেকেই দল ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন। দিল্লী থেকে প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বার বার এসেও মমতা ব্যানার্জী কে হারাতে পারেন নি। কিন্তু সামনেই লোকসভা নির্বাচন। আর এই নির্বাচনকে পাখির চোখ করে সকলকে একজোট হয়ে থাকার কথা বলেন। জেলার যুব সভাপতি অলোক মাঝি বর্ধমান জেলায় এবারে নির্বাচনে তৃণমূল ১৬ টি আসনেই জয়লাভ করে আর তার কারিগর তাঁদের সকলের নেতা তথা রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।তাই তাঁকে বিশেষ ভাবে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। তিনিও জেলা সভাপতির কথা ধরে সকলে একজোট হয়ে লড়াই করে আগামী লোকসভা ভোটে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে প্রধানমন্ত্রী করার ডাক দেন। রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ তাঁর বক্তব্যে প্রথমেই জামালপুরের দলের বীর শহীদদের স্মরণে করেন। তিনি বলেন এই জয়ের অন্যতম কারিগর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।তিনি আরো বলেন সম্বর্ধনা তিনি গ্রহণ করেছেন কিন্তু আসল সম্বর্ধনা দেওয়া উচিত সাধারণ মানুষকে।যাঁরা ভোট দিয়ে তৃতীয়বারের জন্য মমতা বন্দোপাধ্যায়কে মুখ্যমন্ত্রী করেছেন। আজকের এই অনুষ্ঠানে প্রায় ১৫ হাজার মানুষের সমাগম হয়েছিল। করোনা বিধি মেনে জায়গা স্যানিটাইজ করা হয়।১০০০০ মাস্কের ব্যবস্থা ছিল।প্রত্যেকের জন্য ডিম ভাতের আয়োজন করা হয়েছিল। অনুষ্ঠানটি সঞ্চলনা করেন ব্লকের যুব সভাপতি ভূতনাথ মালিক। অনুষ্ঠানটি সফল ভাবে অনুষ্ঠিত করতে ব্লকের যুব সভাপতি ভুতনাথ মালিক, সংখ্যা লঘু সেলের সভাপতি তাবারক আলী মন্ডল, জয়হিন্দ বাহিনীর সভাপতি সাহাবুদ্দিন মন্ডল, মহিলানেত্রী মিঠু মাঝি,ছাত্র পরিষদের সভাপতি বিট্টু মল্লিক সকলে সহযোগিতা করেন।