চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # মাধ্যমিকে যুগ্ম প্রথম বর্ধমান সিএমএস হাই স্কুলের রৌনক মন্ডল এবং বাঁকুড়ার রাম হরিপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অর্ণব ঘড়াই # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়মাধ্যমিকের পর উচ্চমাধ্যমিকেও তাক লাগালো কাটোয়ার অভীক পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের আন্দোলন

বজ্রপাতে মৃত ব্যক্তির পরিবারকে ক্ষতিপূরণ


 

বজ্রপাতে মৃত ব্যক্তির পরিবারকে ক্ষতিপূরণ


অতনু হাজরা, জামালপুর : পূর্ব বর্ধমান জেলার জামালপুরে কয়েকদিনের ব্যবধানে বেশ কয়েকজন বাজপড়ে মারা যান। সোমবারও জামালপুর ২ অঞ্চলের বকুলতলা গ্রামের উত্তম দাস মাঠে থাকাকালীন বাজ পড়ে মারা যান। আজ সেই ব্যক্তির পরিবারের হাতে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে ক্ষতিপূরণের ২ লক্ষ টাকার চেক তুলে দেন বিধায়ক অলক কুমার মাঝি, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মেহেমুদ খান, জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ মিঠু মাঝি, ব্লকের যুগ্ম সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক গৌতম কুমার ঘোষ ও ব্লকের বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের আধিকারিক ফাল্গুনী মুখার্জী। মৃতের পরিবারের পক্ষ থেকে তাঁর দাদা ও জামাই এই চেক গ্রহণ করেন। 

বিধায়ক অলক কুমার মাঝি বলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন দুর্ঘটনা ঘটার চব্বিশঘন্টার মধ্যে তাদের হাতে সাহায্য পৌঁছে দিতে হবে। সেই মোতাবেক আজ মৃত পরিবারের হাতে ক্ষতিপূরণের চেক তুলে দেওয়া হলো। বার বার জামালপুরে বজ্রপাত হওয়ার জন্য তিনি এটা নিয়ে বিশেষ পর্যবেক্ষণের জন্য রাজ্যে জানিয়েছেন। মেহেমুদ খান বলেন, মৃত্যু সবসময়ই দুঃখজনক কিন্তু রাজ্যের মানবিক মুখ্যমন্ত্রী সাথে সাথেই ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন যেটা বিগত দিনে দেখা যেত না। তিনি আরো বলেন ওই পরিবারের পাশে তাঁরা আছেন সব রকমের সাহায্য তাঁরা করবেন। এছাড়াও বিধায়ক উদ্যোগ নিয়েছেন জামালপুরে বার বার বাজ পড়ার বিষয়টা যাতে গবেষণা করে দেখা হয়।




Post a Comment

0 Comments