চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # মাধ্যমিকে যুগ্ম প্রথম বর্ধমান সিএমএস হাই স্কুলের রৌনক মন্ডল এবং বাঁকুড়ার রাম হরিপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অর্ণব ঘড়াই # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়মাধ্যমিকের পর উচ্চমাধ্যমিকেও তাক লাগালো কাটোয়ার অভীক পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের আন্দোলন

বিশ্ব রক্তদাতা দিবসে ডব্লিউবিসিএস(এক্সিকিউটিভ) অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগ


বিশ্ব রক্তদাতা দিবসে ডব্লিউবিসিএস (এক্সিকিউটিভ) অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগ


জগন্নাথ ভৌমিক, বর্ধমান : আজ বিশ্ব রক্তদাতা দিবস। যারা স্বেচ্ছায় রক্তদান করে লক্ষ লক্ষ মানুষের প্রাণ বাঁচাচ্ছেন তাদের এবং সাধারণ মানুষকে রক্তদানে উৎসাহিত করাই এই দিবসের উদ্দেশ্য। আজ বর্ধমানে যথাযথ মর্যাদায় এই দিনটি পালন করল ডব্লিউবিসিএস (এক্সিকিউটিভ) অ্যাসোসিয়েশন। সংগঠনের পূর্ব বর্ধমান জেলা শাখার পক্ষ থেকে একটি স্বেচ্ছায় রক্তদান শিবিরের আয়োজন করা হয়। শিবিরের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন পূর্ব বর্ধমানের জেলাশাসক প্রিয়াঙ্কা সিংলা। উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা শাসক (সাধারণ) অনির্বাণ কোলে, জেলা প্রকল্প আধিকারিক শান্তনু বসু, অতিরিক্ত জেলা শাসক (জেলা পরিষদ) কাজল রায়, অতিরিক্ত জেলা শাসক ঋদ্ধি ব্যানার্জী সহ অন্যান্যরা। 


রক্তদান শিবিরের শুরুতেই অতিরিক্ত জেলা শাসক (জেলা পরিষদ) কাজল রায় সহ কয়েকজন আধিকারিক রক্ত দান করেন। তাঁদের হাতে গোলাপ ফুল তুলে দিয়ে অভিনন্দন জানান জেলাশাসক প্রিয়াঙ্কা সিংলা।

পূর্ব বর্ধমান জেলার ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট অভিরূপ ভট্টাচার্য'র সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এদিনের শিবিরে প্রায় ২০০ জন রক্ত দেবেন। 


উল্লেখ্য ১৯৯৫ সালে আন্তর্জাতিক রক্তদান দিবস পালন শুরু হয়। পরে ২০০৪ সালের ১৪ জুন থেকে পালিত হয়ে আসছে বিশ্ব রক্তদাতা দিবস। বর্তমানে কোভিড অতিমারি পরিস্থিতিতে রক্তের সংকট রয়েছে। বিশ্ব রক্তদাতা দিবস কে সামনে রেখে ডব্লিউবিসিএস (এক্সিকিউটিভ) অ্যাসোসিয়েশন ও পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন রক্তদান শিবিরের আয়োজন করে সময়োপযোগী কাজ করেছে। এদিন পূর্ব বর্ধমান জেলা সদর ছাড়াও বিভিন্ন ব্লক থেকে আধিকারিকরা রক্ত দিতে এসেছিলেন।




Post a Comment

0 Comments