চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

শতবর্ষে বর্ধমান ডিস্ট্রিক্ট রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন # উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়সরকারি কর্মচারীদের সুখের দিন শেষ, শ্রম কোড চালু হতে চলেছে সমগ্র ভারতে পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #পূর্ব বর্ধমান জেলায় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এর উদ্যোগে খালবিল ও চুনোমাছ উৎসবের উদ্বোধন ২৫ ডিসেম্বর

ঘূর্ণিঝড়ে আশ্রয় নেওয়া ক্যাম্প পরিদর্শন


 

ঘূর্ণিঝড়ে আশ্রয় নেওয়া ক্যাম্প পরিদর্শন


অতনু হাজরা, জামালপুর : রাজ্যের উপর দিয়ে বয়ে গেছে ঘূর্ণিঝড় যশ। দুই চব্বিশপরগনা, মেদিনীপুরে ব্যাপক ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে। এই ঘূর্ণি ঝড়ে বিপর্যয় মোকাবিলায় প্রস্তুত ছিল রাজ্য প্রশাসনের সঙ্গে জামালপুর ব্লক প্রশাসনও। জামালপুর ব্লকের একদম শেষ প্রান্তে হুগলি জেলার সীমান্তবর্তী গ্রাম গুলি একটু নিচু জায়গায় অবস্থিত। সেই সব গ্রামগুলির মানুষ যাতে ঘূর্ণি ঝড়ের প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত না হন তাই পঞ্চায়েত গুলিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। জোতশ্রীরাম পঞ্চায়েতের মাঠশিয়ালি, শিয়ালি, রেসলাতপুর প্রভৃতি গ্রামের প্রায় ১৬০ - ১৭০ জন মানুষকে তাদের ঘর থেকে এনে শিয়ালি প্রাইমারি স্কুল, মাঠশিয়ালি প্রাইমারি স্কুল, রেসলাতপুর প্রাইমারি স্কুল ও মাঠশিয়ালি- মির্জাপুর শিশু শিক্ষা কেন্দ্রে নিয়ে আসা হয়েছে।




ওই ক্যাম্পগুলি পরিদর্শনে যান এসডিপিও আমিনুল ইসলাম, জামালপুরের বিডিও শুভঙ্কর মজুমদার, জামালপুর থানার অফিসার- ইন- চার্জ মিঠুন কুমার ঘোষ ও ব্লকের বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের আধিকারিক ফাল্গুনী মুখার্জী। যে সমস্ত গ্রামবাসীদের ক্যাম্পে রাখা হয়েছে তাদের জন্য শুকনো খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়াও জামালপুর থানার পক্ষ থেকে তাদের প্রত্যেককে খাওয়ানোর ব্যবস্থা করা হয়। ক্যাম্পে থাকা মানুষদের হাতে মাস্ক ও স্যানিটাইজার তুলে দেন এসডিপিও আমিনুল ইসলাম সহ ব্লকের আধিকারিকরা।




Post a Comment

0 Comments