চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

শতবর্ষে বর্ধমান ডিস্ট্রিক্ট রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন # উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়সরকারি কর্মচারীদের সুখের দিন শেষ, শ্রম কোড চালু হতে চলেছে সমগ্র ভারতে পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #পূর্ব বর্ধমান জেলায় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এর উদ্যোগে খালবিল ও চুনোমাছ উৎসবের উদ্বোধন ২৫ ডিসেম্বর

উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা নিয়েও অনিশ্চয়তা


 

উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা নিয়েও অনিশ্চয়তা


ডিজিটাল ডেস্ক রিপোর্ট, সংবাদ প্রভাতী : মাধ্যমিক এর পর এবার উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা নিয়েও অনিশ্চয়তা দেখা দিল। যথাসময়ে মাধ্যমিক পরীক্ষা  হওয়া নিয়ে মঙ্গলবারই সংশয় প্রকাশ করেছিলেন মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়। তিনি জানিয়ে দেন, রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ। এই অবস্থায় নির্ধারিত সূচি মেনে মাধ্যমিক পরীক্ষা গ্রহণ কার্যত অসম্ভব। তাই আপাতত মাধ্যমিক পরীক্ষা ১ জুন থেকে নেওয়া সম্ভব নয়। তবে পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়া হবে, নাকি বাতিল করা হবে, সে বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে রাজ্য সরকার। এই মুহূর্তে সরকারি সিদ্ধান্তের দিকে তাকিয়ে আছে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদও। মাধ্যমিক পরীক্ষা পিছোলে উচ্চমাধ্যমিকও পিছোবে। বুধবার উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের চেয়ারপার্সন মহুয়া দাস জানান, “পরীক্ষার্থীদের জীবনের থেকে মূল্যবান আর কিছু নয়। অপেক্ষা করছি সরকারি সিদ্ধান্তের জন্য"। প্রসঙ্গত, উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা আগামী ১৫ জুন। ইতিমধ্যেই সংসদ ঘোষণা করেছে। উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা এবার হোম সেন্টারেই হবে। কিন্তু বর্তমানে করোনা সংক্রমণের ব্যাপকতায় ভাবিয়ে তুলছে পরীক্ষার্থী থেকে সংসদ, সব মহলকেই। এই পরিস্থিতি চলতে থাকলে পরীক্ষা নেওয়া মানে বিপজ্জনক ঝুঁকির সম্মুখীন হওয়া। তাই সংসদও তাকিয়ে আছে সরকারের সিদ্ধান্তের দিকে।

এদিকে পর্ষদ নিজেদের মতামত শিক্ষা দপ্তরকে জানিয়ে দিয়েছে। স্কুলশিক্ষা সচিব মণীশ জৈন পর্ষদ সভাপতি কল্যানময় গঙ্গোপাধ্যায় এর সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনাও করেছেন। বর্তমান পরিস্থিতিতে পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব কিনা ? শেষপর্যন্ত যদি পরীক্ষা বাতিল হয়ে যায়, তাহলে কীভাবে পড়ুয়াদের নম্বর দেওয়া হবে, সে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। সেই রিপোর্ট মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তরে জমা দেওয়া হয়েছে। পরীক্ষা পিছিয়ে যাবে, নাকি বাতিল হবে ? এবার রাজ্য সরকার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে। তবে ধরেই নেওয়া যেতে পারে মাধ্যমিক পরীক্ষা তখন নির্দিষ্ট সময়ে হচ্ছে না, তখন উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষাও পিছিয়ে যাবার সম্ভাবনাই বেশি।




Post a Comment

0 Comments