চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

শতবর্ষে বর্ধমান ডিস্ট্রিক্ট রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন # উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়সরকারি কর্মচারীদের সুখের দিন শেষ, শ্রম কোড চালু হতে চলেছে সমগ্র ভারতে পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #পূর্ব বর্ধমান জেলায় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এর উদ্যোগে খালবিল ও চুনোমাছ উৎসবের উদ্বোধন ২৫ ডিসেম্বর

তৃণমূল সুপ্রিমো'র তিনটি সমাবেশে জনজোয়ারে ভাসলো পূর্ব বর্ধমান


তৃণমূল সুপ্রিমো'র তিনটি সমাবেশে জনজোয়ারে ভাসলো পূর্ব বর্ধমান 


অতনু হাজরা, পূর্ব বর্ধমান : পর পর তিনটি নির্বাচনী জনসভা করে শুক্রবার পূর্ব বর্ধমান জেলায় বিরাট সাড়া ফেললেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন প্রথম সভাটি করার জন্য তার কপ্টার জামালপুর পৌঁছায় প্রায় বারোটা নাগাদ। শুধুমাত্র তাঁকে দেখার জন্য তাঁর কথা শোনার জন্য তীব্র রোদ মাথায় করেও দীর্ঘ দু থেকে আড়াই ঘন্টা মানুষ ঠায় দাঁড়িয়ে থেকেছেন। সভামঞ্চের মাঠের মাথার উপরে তাঁর কপ্টার ঢুকতেই মানুষের বাঁধ ভাঙা উছ্বাস চোখে পড়ে।ৎমাঠের দুই পাশে, গাছের উপর, মানুষের বাড়ির ছাদে ছিল বিপুল সংখ্যক লোক।সকলেই করতালিতে তাঁকে স্বাগত জানান। আজকে তাঁর সভা মূলত জামালপুর ও রায়নার দলীয় দুই প্রার্থী অলোক কুমার মাঝি ও শম্পা ধাড়া এঁদের সমর্থনে।আজকের এই সভায় উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের পূর্ব বর্ধমান জেলার সভাপতি তথা রাজ্যের বিদায়ী মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ। এস টি সেলের রাজ্য সভাপতি দেবু টুডু, জেলা চেয়ারম্যান মমতাজ সংঘমিতা চৌধুরী, যুব তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি রাসবিহারী হালদার, জেলা পরিষদের মেন্টর উজ্জ্বল প্রামানিক, জেলার সহ সভাপতি অরবিন্দ ভট্টাচার্য্য, সাধারণ সম্পাদক উত্তম সেনগুপ্ত, মহিলা নেত্রী মিঠু মাঝি, বাগবুল ইসলাম, রায়না ব্লকের সভাপতি বামদেব মন্ডল, তৃণমূল কংগ্রেসের জামালপুর ব্লক সভাপতি মেহেমুদ খান, যুব সভাপতি ভুতনাথ মালিক, সংখ্যালঘুসেলের সভাপতি তাবারক আলী মন্ডল, জয়হীন্দ বাহিনীর সভাপতি সাহাবুদ্দিন মন্ডল, সাহাবউদ্দিন শেখ সহ অন্যান্যরা। আজ জামালপুর ছাড়াও মেমারি থানার গন্তার ও বর্ধমানের উপকন্ঠে জোতরামে পরপর দুটি জনসভা করেন দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিমাতেই বক্তৃতা শুরু করেন তিনি। বর্ধমানের মানুষদের আতিথেয়তার প্রশংসা করেন তিনি। তাঁর আমলে বিগত দশ বছরে কি কি কাজ করা হয়েছে তার সাফল্যের খতিয়ান তুলে ধরেন তিনি। তিনি বলেন তিনি দিল্লির মত শুধু মুখে বলেন না, যা বলেন তা করেন। তিনি সংখ্যালঘু ভাইবোন ও আদিবাসী ভাইবোনেদের কথা বলেন। তিনি তাঁদের জন্য কি করেছেন তাও তুলে ধরেন।ৎতিনি একে একে কন্যাশ্রী, রূপশ্রী, শিক্ষাশ্রী, কৃষকবন্ধু, ঐক্যশ্রী, সমব্যথী, দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র ছাত্রীদের ট্যাব, উচ্চশিক্ষার জন্য ছাত্র ছাত্রীদের লোন, এস সি-এস টি মায়েদের জন্য ১০০০ টাকা লক্ষ্মী ভান্ডারের মাধ্যমে মাসিক সহায়তা ও সাধারণ মায়েদের জন্য ৫০০ টাকার সাহায্যের কথা বলেন। তিনি বিজেপি কে ভোট দিতে না করেন। তিনি বলেন অনেকেই ভোট দেওয়ার জন্য টাকা দিচ্ছেন সেই প্রসঙ্গে বলেন টাকা নেবেন কিন্তু ভোট দেবেন না। তিনি বিজেপি থেকে কেউ ভোট চাইতে টাকার কথা বললে বলতে বলেন ক্যাশ নয় গ্যাসের দাম কমান। আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে আগামী ১৭ এপ্রিল সকলকে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থীদের ভোট দিয়ে তাঁকে পুনরায় সরকার গঠনে সহায়তা করার কথা বলেন।




এদিন মেমারি ও মন্তেশ্বর বিধানসভার তৃণমূল প্রার্থীর সমর্থনে মেমারি থানার গন্তার ফুটবল মাঠে জনসভা করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো তথা মুখ‍্যমন্ত্রী মমতা বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়। এককথায় দুই বিধানসভার মানুষকে নিয়ে জনসমুদ্র বলা হলেও কম বলা হবে। মঞ্চে মেমারির প্রার্থী মধুসূদন ভট্টাচার্য ও মন্তেশ্বরের প্রার্থী সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী সহ দুই বিধানসভার নেতৃত্ব এবং প্রাক্তন বিধায়ক অধ‍্যাপক ডঃ আবুল হাসেম মন্ডল সহ অন্যান্য নেতৃত্ব উপস্থিত ছিলেন। এদিন কেন্দ্রীয় সরকার সহ গৃহমন্ত্রীর কড়া সমালোচনা করে রাজ‍্যের জনমুখী প্রকল্পের সুবিধা পেতে জোড়া ফুল চিহ্নে ভোট দিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের সরকার পুনরায় নিয়ে আসার আহ্বান জানান।




বর্ধমানের জোতরাম ময়দানে বর্ধমান উত্তর বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী নিশীথ কুমার মালিক এবং বর্ধমান দক্ষিণ বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী খোকন দাস এর সমর্থনে নির্বাচনী জনসভা করলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার জনসভাকে কেন্দ্র করে গোটা মাঠসহ এলাকার রাস্তাঘাট জোয়ারে ভাসলো। তিনি রাজ্যের বিভিন্ন উন্নয়নমুখী প্রকল্প গুলির কথা তুলে ধরার সঙ্গে বলেন আগামী দিনে এর সুফল আরো বেশি করে পাবেন রাজ্যবাসী তবে তার জন্য তৃণমূল কংগ্রেসকে সরকারি আনতে হবে তাই তিনি বর্ধমান উত্তরের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী নিশ্চিত মালিক এবং বর্ধমান দক্ষিণের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী খোকন দাস কে বিপুল ভোটে জয়ী করার আহ্বান জানান।



Post a Comment

0 Comments