চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # মাধ্যমিকে যুগ্ম প্রথম বর্ধমান সিএমএস হাই স্কুলের রৌনক মন্ডল এবং বাঁকুড়ার রাম হরিপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অর্ণব ঘড়াই # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়মাধ্যমিকের পর উচ্চমাধ্যমিকেও তাক লাগালো কাটোয়ার অভীক পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের আন্দোলন

নির্বাচনী বিধি লাগু হতেই তৎপর প্রশাসন, খুলে দিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি দেওয়া হোর্ডিং


 

নির্বাচনী বিধি লাগু হতেই তৎপর প্রশাসন, খুলে দিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি দেওয়া হোর্ডিং


ডিজিটাল ডেস্ক রিপোর্ট, সংবাদ প্রভাতী : নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণার সঙ্গে আচরণ বিধিও বলবৎ করলো নির্বাচন কমিশন। ফলে সরকারি জায়গা বা অফিস চত্বরে কোনও নেতা মন্ত্রীদের ছবি, লেখা হোডিং থাকবে না। নির্বাচন বিধি মোতাবেক শুক্রবার সন্ধ্যার পরই পূর্ব বর্ধমান জেলা কালেক্টরেট চত্বরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি দেওয়া হোর্ডিং খোলার কাজ শুরু করেছে সংশ্লিষ্ট কর্মীরা।



একই সঙ্গে কমিশনের তরফে নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে, ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৭১ ধারার খ উপধারা অনুসারে, নির্বাচন প্রক্রিয়া চলাকালীন কোন ব্যক্তিকে অবৈধভাবে ভোটদানে প্রভাবিত করার উদ্দেশ্যে কোন ব্যক্তি যদি অর্থ বা পারিতোষিক প্রদান করেন অথবা নিজে ওই অর্থ বা পারিতোষিক গ্রহণ করেন তবে তার এই আচরন শাস্তিযোগ্য অপরাধ। এই কারণে ওই ব্যক্তির এক বছর পর্যন্ত শাস্তি বা জরিমানা অথবা উভয়েই হতে পারে। উপরন্ত ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৭১ ধারার গ উপধারা অনুসারে, কোন ব্যক্তি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন এমন প্রার্থীকে অথবা ভোটারকে যদি ভীতি প্রদর্শন করেন অথবা কোনরকম ক্ষতি সাধনের ভয় দেখান, সেক্ষেত্রে ওই ব্যক্তিকে এক বছর পর্যন্ত শাস্তি অথবা জরিমানা অথবা উভয়েরই সম্মুখীন হতে হবে। উৎকোচ প্রদান করেছেন অথবা গ্রহণ করেছেন অথবা ভোটারদের ভীতি প্রদর্শন করেছেন এমন সকল ব্যক্তিদের উদ্দেশ্যে ফ্লায়িং স্কোয়াড গঠন করা হয়েছে যার মাধ্যমে এই সকল অপরাধীর বিরুদ্ধে মামলা রুজু করা হবে। সকল নাগরিকদের প্রতি আবেদন আপনারা কোন প্রকার উৎকোচ গ্রহণ করা থেকে নিজেদের বিরত রাখুন। উৎকোচ দেওয়ার অথবা ভীতিপ্রদর্শনের কোন ঘটনা যদি আপনার নজরে আসে তবে তৎক্ষণাৎ জেলার অভিযোগ গ্রহণ কেন্দ্রে যোগাযোগ করতে পারেন অথবা টোল ফ্রি ১৯৫০ নম্বরে ফোন করতে পারেন।

Post a Comment

0 Comments