চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

হাওড়া-নিউ জলপাইগুড়ি বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের যাত্রার সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী # ফুটবলে আর্জেন্টিনার বিশ্বজয়, ফ্রান্স কে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ান মেসি # জয়েন্ট এন্ট্রান্স (মেইন) এর প্রথমভাগের পরীক্ষা ২৪ জানুয়ারি থেকে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত # বর্ধমান জেলা রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন এর শতবর্ষ পূর্তি উদযাপন # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায় #সরকারি কর্মচারীদের সুখের দিন শেষ, শ্রম কোড চালু হতে চলেছে সমগ্র ভারতে # পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার # #পূর্ব বর্ধমান জেলায় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এর উদ্যোগে খালবিল ও চুনোমাছ উৎসবের উদ্বোধন ২৫ ডিসেম্বর

পরিবেশ সচেতনতায় 'আকাশ' স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ক্রিকেট খেলার আয়োজন


 

পরিবেশ সচেতনতায় 'আকাশ' স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ক্রিকেট খেলার আয়োজন


অতনু হাজরা, জামালপুর : পূর্ব বর্ধমান জেলার জামালপুরের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন 'আকাশ'।পরিবেশ সচেতনতায় তারা নানা কাজে করে থাকে। সেই লক্ষ্যে 'আকাশ' একটি অভূতপূর্ব পদক্ষেপ নিল পরিবেশ রক্ষায়, তারা একটি এক দিবসীয় ৮ দলীয় ক্রিকেট ম্যাচের আয়োজন করে পাড়াতল ফুটবল মাঠে। এই ম্যাচে অংশ গ্রহন করার জন্য আট টি দল কেই এন্ট্রি ফি হিসেবে ১২ টি করে চারা গাছ জমা দিতে হয়েছে। সেই ৯৬ টি চারা গাছ পরিবেশ রক্ষায় মাঠের চারপাশে লাগিয়ে দেওয়া হয়। এই প্রতিযোগিতায় ফাইনালে ওঠে পূর্ব বর্ধমান জেলার বুলবুলিতলা ফ্রেন্ডস স্টার ক্লাব ও হুগলি জেলার টিম ব্যান্ডেল। ফাইনালে জয়ী হয় বুলবুলিতলা ফ্রেন্ডস স্টার ক্লাব। ম্যাচের পুরস্কার স্বরূপ দেওয়া হয় ট্রফি এবং সদস্য দের একটি করে জামরুল গাছের চারা। বিশেষ অতিথি হিসেবে মাঠে উপস্থিত ছিলেন জামালপুর ব্লকের বিডিও শুভঙ্কর মজুমদার। 




আকাশ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সভাপতি অয়ন চক্রবর্ত্তী জানান, "স্মৃতি রক্ষার এই ম্যাচে এন্ট্রিফি হিসাবে গাছ নেওয়া হয় তার একটাই কারণ বর্তমান যুগে স্বেচ্ছায় গাছ লাগানোর মানুষ খুবই কম, কিন্তু খেলার উদ্দেশ্য নিয়ে প্রতিটি দলই গাছ এনেছিলেন এবং সেগুলি বসিয়ে দেওয়া হয় মাঠের চারপাশে। এর মাধ্যমে খেলায় একটা যেমন নতুনত্ব বিষয় উঠে এলো, তেমনি সমাজ কে পরিবেশ সচেতনতার বার্তাও দেওয়া গেল। 

 আকাশ পরিবার এই ধরণের সমাজ সেবা মূলক কাজ অনেক আগে থেকেই করে থাকে।অসহায়, দুঃস্থ মানুষকে সাহায্য করা কিম্বা শীতে কষ্ট পাওয়া গরিব মানুষদের কম্বল পৌঁছে দেওয়া, বিপর্যয়যুক্ত এলাকায় ত্রাণ পৌঁছে দেওয়া। আর সবচেয়ে বড় যে ব্যাপার অসহায় মুমূর্ষু রুগীদের প্রয়োজনে নিজেরা ব্লাড ব্যাঙ্কে গিয়ে সরাসরি রক্ত দেওয়া। এসবই করে থাকে আকাশ।

Post a Comment

0 Comments