চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

হাওড়া-নিউ জলপাইগুড়ি বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের যাত্রার সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী # ফুটবলে আর্জেন্টিনার বিশ্বজয়, ফ্রান্স কে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ান মেসি # জয়েন্ট এন্ট্রান্স (মেইন) এর প্রথমভাগের পরীক্ষা ২৪ জানুয়ারি থেকে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত # বর্ধমান জেলা রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন এর শতবর্ষ পূর্তি উদযাপন # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায় #সরকারি কর্মচারীদের সুখের দিন শেষ, শ্রম কোড চালু হতে চলেছে সমগ্র ভারতে # পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার # #পূর্ব বর্ধমান জেলায় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এর উদ্যোগে খালবিল ও চুনোমাছ উৎসবের উদ্বোধন ২৫ ডিসেম্বর

জয়দেব প্রকৃতি উদ্যানের নানা পরিকল্পনায় শ্যামসখা আশ্রম


 

জয়দেব প্রকৃতি উদ্যানের নানা পরিকল্পনায় শ্যামসখা আশ্রম



🟣 রাধামাধব মণ্ডল



 ➡️ বীরভূমের কেন্দুলীর অজয় নদের তীরে বৈষ্ণব কবি জয়দেবের জন্মভূমি মন্দিরাগ্রাম। অতীতের সেই গ্রাম আজ জনশূন্য, শুকনো বালিয়াড়ি। বর্তমানে এখন আর গ্রামে নেই বৈষ্ণব কবির স্মৃতিও। তবে ইতিহাসের গলি পথ ঘেঁটে জানা যায়, মন্দিরময় এই মন্দিরা গ্রামেই জন্মে ছিলেন, গীতগোবিন্দম এর স্রষ্টা।

সেই গ্রামের বিস্তৃর্ণ অজয় বালিয়াড়ি, জেলা বনদপ্তরের ভূমি। ইলামবাজার বিটের প্রায় ৮ বিঘা অজয় বালিয়াড়ির জায়গাতে, প্রাথমিক ভাবে গত বছর শুরু হয়েছিল দেশী বনাঞ্চল তৈরিতে প্রাথমিক কাজ। আম, জাম, জামরুল, হিজল, বট, পলাস গাছের জঙ্গল তৈরি করতে হাত লাগিয়েছে স্থানীয় রামপুরের একটি প্রকৃতি বান্ধব আশ্রম "শ্যামসখা"। 



সেই গড়ে ওঠা জঙ্গলকে কেন্দ্র করেই ইকো টুরিজমের স্বপ্ন দেখছে এলাকার মানুষ। আর সেই স্বপ্ন দেখাতে উদ্যোগী "শ্যামসখা আশ্রম "। বিভিন্ন স্বয়ম্ভর গোষ্ঠী ও জেলা বনদপ্তরের সহযোগিতায় এবছরের জয়দেবের মেলা থেকেই শুরু হয়েছিল এই ইকো টুরিজমের। সেই সঙ্গে এই জয়দেব প্রকৃতি উদ্যানে শুরু হয়েছে স্বয়ম্ভর গোষ্ঠী পরিচালিত রবিবারের প্রকৃতি হাট। এই হাটেই এলাকার বিভিন্ন শিল্প গোষ্ঠীর মেয়েরা তাদের তৈরি শিল্প দ্রব্য বিক্রি শুরু করেছে।



জয়দেব মেলার পর রবিবার "শ্যামসখা আশ্রমে" হয়ে গেল বনদপ্তরের উদ্যোগে প্রথম জয়দেব প্রকৃতি উদ্যানের পরিকল্পনা মিটিং। মিটিং এ উপস্থিতি ছিলেন ইলামবাজার বিট অফিসার সুবীর রুইদাস, আশ্রমের পক্ষে শ্যাম হালদার, রণজিৎ মুখোপাধ্যায়, শান্তি রজক, উত্তম দাস, আনারুল হক-রা।

Post a Comment

0 Comments