চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

হাওড়া-নিউ জলপাইগুড়ি বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের যাত্রার সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী # ফুটবলে আর্জেন্টিনার বিশ্বজয়, ফ্রান্স কে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ান মেসি # জয়েন্ট এন্ট্রান্স (মেইন) এর প্রথমভাগের পরীক্ষা ২৪ জানুয়ারি থেকে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত # বর্ধমান জেলা রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন এর শতবর্ষ পূর্তি উদযাপন # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায় #সরকারি কর্মচারীদের সুখের দিন শেষ, শ্রম কোড চালু হতে চলেছে সমগ্র ভারতে # পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার # #পূর্ব বর্ধমান জেলায় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এর উদ্যোগে খালবিল ও চুনোমাছ উৎসবের উদ্বোধন ২৫ ডিসেম্বর

পশ্চিমবঙ্গ শিক্ষক ঐক্য মুক্ত মঞ্চের সদস্যরা মইদুল ইসলামের নেতৃত্বে সোচ্চার, ১১ জানুয়ারি নবান্ন অভিযানের প্রস্তুতি


 

পশ্চিমবঙ্গ শিক্ষক ঐক্য মুক্ত মঞ্চের সদস্যরা মইদুল ইসলামের নেতৃত্বে সোচ্চার, ১১ জানুয়ারি নবান্ন অভিযানের প্রস্তুতি



অতনু হাজরা, বর্ধমান : পশ্চিমবঙ্গ শিক্ষক ঐক্য মুক্ত মঞ্চ বড়সড় নবান্ন অভিযানের প্রস্তুতি নিচ্ছে। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মইদুল ইসলামের নেতৃত্বে এই আন্দোলন সংগঠিত হচ্ছে। জেলায় জেলায় চলছে ডেপুটেশন পর্ব। বুধবার ডেপুটেশনকে কেন্দ্র করে পূর্ব বর্ধমানের জেলা শাসকের অফিসের সামনে ধুন্ধুমার কান্ড ঘটে। শিক্ষক ঐক্য মুক্ত মঞ্চের সদস্যরা বিভিন্ন দাবিতে ডেপুটেশন দিতে আসে। সেই সময় পুলিশ প্রশাসন তাদের বাধা দিতে গেলে তাঁরা অফিস চত্বরের গেট ঠেলে ভিতরে ঢুকে যায়। সামনের সারিতে থাকা শিক্ষিকারা বলেন তাঁরা দুষ্কৃতী নন। সমাজ গড়ার কারিগর। কিন্তু বহুদিন ধরে তাঁরা চরম বঞ্চনার শিকার। জেলা শাসকের কাছে তাদের দাবিপত্র দিতেই এসেছেন। তাঁরা মইদুল ইসলামের নেতৃত্বে শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে সামিল হয়েছেন।



 সারা রাজ্য জুড়ে প্রতিটি জেলায় জেলায় জেলা শাসকের কাছে ডেপুটেশন দিচ্ছে পশ্চিমবঙ্গ শিক্ষক ঐক্য মুক্ত মঞ্চ। প্রসঙ্গত রাজ্যের প্যারা টিচার, এস এস কে, এম এস কে টিচার, শিক্ষা বন্ধু, স্পেশাল এডুকেটর, কম্পিউটার শিক্ষক, বৃত্তিমূলক শিক্ষক সহ অনেক শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মীদের সংগঠন যুক্ত হয়ে তৈরি হয়েছে শিক্ষক ঐক্য মুক্ত মঞ্চ। আজ তাদের পূর্ব বর্ধমানের জেলা শাসকের কাছে ডেপুটেশন দেবার কর্মসূচি ছিল। শিক্ষক ঐক্য মুক্ত মঞ্চের রাজ্যের সাধারণ সম্পাদক মইদুল ইসলাম জানান জেলা শাসক না থাকায় তাদের ডেপুটেশন নিতে অস্বীকার করা হয়। তখন তাঁর নেতৃত্বে অফিস প্রাঙ্গনেই অবস্থান করে সংশ্লিষ্ট শিক্ষকরা বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। পরে অবশ্য অতিরিক্ত জেলা শাসক তাঁদের ডেপুটেশন নেবেন বলে জানন। তিনি আরো জানান আগামী ৫ জানুয়ারি তাঁদের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বৈঠক করতে পারেন সেই মর্মেই খবর পেয়েছেন তাঁরা। তাদের দাবি মূলতঃ সম কাজে সম বেতন, অবসরকালীন সুযোগ সুবিধা ও সকলেই যাতে পেনশন পান। এই দাবি মানা নাহলে আগামী ১১ই জানুয়ারি নির্ধারিত দিনে তাঁদের নবান্ন অভিযান যে কর্মসূচি আছে তা তাঁরা করবেনই এবং লক্ষাধিক শিক্ষক-শিক্ষিকা ও শিক্ষাকর্মীরা যোগদান করবেন বলে তিনি জানান।এ ছাড়াও পার্শ্ব শিক্ষকদের জন্য তাঁদের দাবি বেতন কাঠামো। আজকের ডেপুটেশন উপলক্ষে বর্ধমান স্টেশন থেকে মিছিল করে কার্জনগেট হয়ে জেলা শাসকের অফিসে আসেন তাঁরা। এদিনের মিছিলে প্রচুর সংখ্যক শিক্ষক-শিক্ষিকা ও শিক্ষাকর্মী অংশ গ্রহন করেছিলেন।


Post a Comment

1 Comments

  1. Its a privacy of hardship dedicated by Oikko Mukto Moncho.We NSI/NSOC are alys with you heart and soul.

    ReplyDelete