চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

শতবর্ষে বর্ধমান ডিস্ট্রিক্ট রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন # উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়সরকারি কর্মচারীদের সুখের দিন শেষ, শ্রম কোড চালু হতে চলেছে সমগ্র ভারতে পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #পূর্ব বর্ধমান জেলায় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এর উদ্যোগে খালবিল ও চুনোমাছ উৎসবের উদ্বোধন ২৫ ডিসেম্বর

রাজ্যের কোভিড পরিস্থিতির উপর দৈনন্দিন নজর রাখছেন মুখ্যমন্ত্রী


 

রাজ্যের কোভিড পরিস্থিতির উপর দৈনন্দিন নজর রাখছেন মুখ্যমন্ত্রী



ডিজিটাল ডেস্ক রিপোর্ট, সংবাদ প্রভাতী : রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কোভিড পরিস্থিতির উপর দৈনন্দিন ভিত্তিতে নজর রIখছেন ও প্রয়োজনীয় নির্দেশাবলী দিচ্ছেন। সেই অনুযায়ী স্বাস্থ্য ভবন নিয়মিত নিজেদের মেডিক্যাল নজরদারি উন্নত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। সাম্প্রতিকতম সিদ্ধান্তগুলি হল-

কলকাতা এলাকায় কোভিড নিয়ন্ত্রণের কাজ তদারকি করার জন্য রাজ্য সরকার স্বরাষ্ট্রসচিব হরি কৃষ্ণ দ্বিবেদি কে অতিরিক্ত দায়িত্ব অর্পণ করেছেন।  

কোভিড পজিটিভ রোগীদের চিকিৎসার জন্য বেড বাড়ানোর পাশাপাশি রাজ্য সরকার আরও ২০০ ডাক্তার এবং ১৫০০ নার্সিং স্টাফ নিয়োগ শুরু করেছেন।

কোভিড পজিটিভ রোগীদের চিকিৎসার জন্য যাদবপুরে অবস্থিত কে এস রায় টিবি হাসপাতাল টি পুরোপুরি কোভিড হাসপাতাল করার পরিকল্পনা করা হয়েছে। এখানে কোভিড রোগীদের চিকিৎসার জন্য ১৩০ টি বেড শুরু করা হবে।

সংকটজনক অবস্থার কোভিড পজিটিভ রোগীদের চিকিৎসায় অক্সিজেন থেরাপি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই ধরনের পেশেন্টদের চিকিৎসার সুবিধার জন্য রাজ্যের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দপ্তর ভেন্টিলেটরকে আপগ্রেড করে আরও নানা ভাবে ব্যবহার করার উদ্যোগ নিয়েছে। ভেন্টিলেটর মেশিনে হিউমিডিফায়ার যোগ করে এই ভেন্টিলেটর গুলোকে বি আই পি এ পি, এইচ এবং এন ও এবং ইনভেসিভ ও নন-ইনভেসিভ ভেন্টিলেটর হিসেবে ব্যবহার করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

গত ২০ অক্টোবর স্বাস্থ্য ভবন থেকে অনলাইনে রাজ্যের সমস্ত কোভিড হাসপাতালের চিকিৎসক এবং চিকিৎসাকর্মীদের এই ব্যাপারে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। এই বিষয়ে যারা বিশেষজ্ঞ তারা স্বাস্থ্য ভবনে উপস্থিত ছিলেন এবং চিকিৎসক ও চিকিৎসাকর্মীদের নানা প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন।

রাজ্যের স্বাস্থ্যদপ্তর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যে প্রতি সপ্তাহে রাজ্যের সমস্ত কোভিড হাসপাতালের চিকিৎসক এবং চিকিৎসাকর্মীদের অনলাইনে চিকিৎসা সংক্রান্ত নানা বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

এছাড়াও, রাজ্যের সমস্ত কোভিড হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের চিকিৎসা ব্যবস্থার উপর নজরদারি করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এই জন্য একটি ত্রিস্তরীয় নজরদারি ব্যবস্থা শুরু করা হয়েছে। এই ব্যবস্থায় স্থানীয় মেডিকেল কলেজ থেকে বিশেষজ্ঞ এবং রাজ্য স্তরের বিশেষজ্ঞরা সারা রাজ্যের কোভিড হাসপাতাল গুলি পরিদর্শন করছেন এবং সেখানকার চিকিৎসা ব্যবস্থা খতিয়ে দেখে চিকিৎসক এবং চিকিৎসা কর্মীদেরদের পরামর্শ দিচ্ছেন। এছাড়াও স্বাস্থ্য দপ্তরের বরিষ্ঠ আধিকারিকদের এক একটি হাসপাতালের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এই আধিকারিকরা সংশ্লিষ্ট হাসপাতালের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে দৈনন্দিন চিকিৎসা ব্যবস্থা এবং সুবিধা অসুবিধার ব্যাপারে নজর রাখছেন।


Post a Comment

0 Comments