চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

শতবর্ষে বর্ধমান ডিস্ট্রিক্ট রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন # উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়সরকারি কর্মচারীদের সুখের দিন শেষ, শ্রম কোড চালু হতে চলেছে সমগ্র ভারতে পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #পূর্ব বর্ধমান জেলায় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এর উদ্যোগে খালবিল ও চুনোমাছ উৎসবের উদ্বোধন ২৫ ডিসেম্বর

জামালপুরে জিওল মাছ চাষে ব্লক মৎস্য ও প্রাণী দপ্তরের সহায়তা


 

জামালপুরে জিওল মাছ চাষে ব্লক মৎস্য ও প্রাণী দপ্তরের সহায়তা

.

অতনু হাজরা, জামালপুর : কই, মাগুর, সিঙ্গি'র মতো জিওল মাছ আজ পরিবেশ থেকে হারিয়ে যেতে চলেছে। সেই কারণেই এই মাছগুলোকে পরিবেশে ফিরিয়ে আনার জন্য ও মানুষ যাতে এই মাছগুলির সাহায্যে প্রোটিন খাদ্য পায় সেই কারণেই পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মৎস্য ও প্রাণী দপ্তর প্রতিটি ব্লকের মাধ্যমে এই মাছ চাষীদের হাতে তুলে দেবার ব্যবস্থা করেছে। আজ জামালপুর ব্লক অফিস থেকে জামালপুর ব্লক মৎস্য ও প্রাণীদপ্তর ব্লকের ৭ জন চাষীর হাতে ১২০০ পিস করে মাগুর মাছের চারা পোনা তুলে দেয়। এই মাছ মাছচাষীদের হাতে তুলে দেন বিডিও শুভঙ্কর মজুমদার, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মেহমুদ খান, সহ সভাপতি দেবু হেমব্রম, এফ ই ও মলয় সাউ, মৎস্য ও প্রাণী কর্মাধ্যক্ষ সুনীল ধারা সহ অন্যান্যরা। মেহেমুদ খান বলেন, পশ্চিমবঙ্গ সরকার সবসময়ই মানুষের পাশে আছে।এই মাছ গুলো দিয়ে একই সঙ্গে একাধিক উদ্দেশ্য পূরণ হবে।বিশেষ করে এই মাছ এখন আর প্রায় দেখাই যায় না। মাছচাষীরা এই সাহায্য পেয়ে পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে ধন্যবাদ জানান। কারণ এই মাছ চাষ করার ফলে পরিবেশে যেমন এই মাছগুলির ভারসাম্য থাকবে তেমনি মানুষ ভালো সুষম খাদ্য পাবে তার সাথে তাদের একটা রোজগারের ব্যবস্থাও হবে বলে তারা মনে করছেন।


Post a Comment

0 Comments