চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # মাধ্যমিকে যুগ্ম প্রথম বর্ধমান সিএমএস হাই স্কুলের রৌনক মন্ডল এবং বাঁকুড়ার রাম হরিপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অর্ণব ঘড়াই # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়মাধ্যমিকের পর উচ্চমাধ্যমিকেও তাক লাগালো কাটোয়ার অভীক পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের আন্দোলন

উত্তরপ্রদেশের গণধর্ষণ ও কৃষি বিলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভা


 

উত্তরপ্রদেশের গণধর্ষণ ও কৃষি বিলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভা


রাধামাধব মন্ডল


পূর্ব বর্ধমান জেলার আউশগ্রামের রামনগর গ্রাম পঞ্চায়েতের ছোড়া কলোনির বাজারে রবিবার সন্ধ্যায় কেন্দ্রের কৃষি বিরোধী বিলের ও উত্তর প্রদেশের হাথরাসের গণধর্ষণ এবং হত্যার বিরুদ্ধে দাঁড়িয়ে প্রতিবাদের পথসভা করে তৃণমূল কংগ্রেস কমিটি।

এদিনের এই প্রতিবাদ সভায় বৃষ্টি ও দুর্যোগকে উপেক্ষা করেও ছোড়া কলোনির হাজার খানেক মানুষ উপস্থিত হয়।

সভায় মহিলাদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। এদিনের বিক্ষোভ সভায় বক্তব্য রাখেন স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস কমিটির নেতা বিনোদ বালা, গৌর হীরা।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন রামনগর অঞ্চল তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি আসগর শেখ, কৃষক নেতা দেবদাস সরকার, শিক্ষক নেতা অর্ঘ্য বিশ্বাস সহ অন্যান্যরা।



যোগীর রাজ্যে পর পর গণধর্ষণ নিয়ে এদিনের সভায় তীব্র বিষোদগার করে সুর চড়ান আউশগ্রাম ২ ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি রামকৃষ্ণ ঘোষ। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, "বিজেপি'র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ যে গরুর দুধে সোনা পেয়েছিল, সেই সোনার বাংলা আমরা চাই না। এটা তিন ঘণ্টার সিনেমা নয়, রূপাদি, লকেটদি। এই মাটির আন্দোলনে মমতা'র ৫৪ হাজার সৈনিক রক্ত দিয়েছে। আমরা করবো উন্নয়ণের সোনার বাংলা, বিধবাভাতা, বার্ধক্যভাতার সোনার বাংলা। উত্তর প্রদেশে মা কাঁদছে, আর সেখানকার এমপিরা বসে বসে উকুন বাছে। আপনাদের প্রধানমন্ত্রী, আপনাদের উত্তরপ্রদেশের যোগী নীরব। তাদের শাড়ি, চুড়ি পাঠাবো।" তিনি আরও বলেন, "আমাদের কামদুনিতে ধর্ষকদের সাজা হয়েছে, যাবজ্জীবন। আপনারা রাতে সীতাকে জ্বালিয়ে দিলেন। বলছেন, কি করতে গিয়েছিল খেতে! হাথরাসের ঘটনা মানুষ ভুলতে না ভুলতে আবার বলরামপুর! যোগীর শাসক হুমকি দিচ্ছে। মিডিয়া থাকবে না, আমরা থাকবো। যোগীর নতুন প্রকল্প, মোদীর প্রকল্প "বেটি বাঁচাও, বেটি পড়াও নয়"! ওটা ভুল ছিল। ওটা হবে "বেটি পোড়াও, ধর্ষক বাঁচাও!" তিনি বলেন, আমরা গণতন্ত্র বাঁচিয়ে রেখেছি বলেই, আজও আপনি সবুজসাথী সাইকেলে চড়ে, জয়শ্রী রাম বলতে বলতে মিছিলে যান। আমরা কোটো বাজাই না। আমরা কৃষিবীমা দিয়েছি। কৃষকের ভাতা, কৃষকমাণ্ডি করেছি। তিনি আরও বলেন, "আমরা জিও সরকারকে চাই না। আমরা বিক্রির সরকারকে চাই না। আদানি আমদানির সরকার, জিএসটি'র সরকারকে চাই না। ওই সাধু বেসে চোর। চোরদের একটিও ভোট না!" তিনি আরও বলেন,"স্কুল কলেজের পড়ুয়ারা প্রেমে পড়লে বলেন, এখন পড়াশোনা কর। পরে ভালো মেয়ে পাবি। তেমনই হৃদয় দিন বিজেপিকে, কিন্তু সময় নিয়ে মাথা দিয়ে ভেবে হৃদয়দিন। তাতে দেশ ও আপনি দু'জনেরই ভালো হবে।"


Post a Comment

0 Comments