চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

শতবর্ষে বর্ধমান ডিস্ট্রিক্ট রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন # উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়সরকারি কর্মচারীদের সুখের দিন শেষ, শ্রম কোড চালু হতে চলেছে সমগ্র ভারতে পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #পূর্ব বর্ধমান জেলায় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এর উদ্যোগে খালবিল ও চুনোমাছ উৎসবের উদ্বোধন ২৫ ডিসেম্বর

রাত পোহালেই আইপিএল -এর দামামা, উদ্বোধন ছাড়া কি ভাবে শুরু হবে ম্যাচ ?


 

রাত পোহালেই আইপিএল -এর দামামা, উদ্বোধন ছাড়া কি ভাবে শুরু হবে ম্যাচ ?


বিশেষ সংবাদদাতা : রাত পোহালেই আবুধাবিতে বেজে উঠবে আই পি এলের দামামা। ভারতের এই টি - ২০ পেশাদার ক্রিকেট প্রতিযোগিতা ঘিরে ক্রীড়া মহলে যথেষ্ট উৎসাহ উদ্দীপনা রয়েছে। ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে ১০ নভেম্বর পর্যন্ত সংযুক্ত আরব আমীরশাহীতে এবারের ১৩ তম আই পি এল অনুষ্ঠিত হবে। আর আই পি এদের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান মানেই জাঁকজমকপূর্ণ ব্যবস্থা। খেলোয়াড়দের পাশাপাশি চলচ্চিত্র জগতের তারকাদের উপস্থিতিতে আই পি এলের জৌলুসটাই আলাদা। নাচ-গানের মধ্যে দিয়ে জমজমাট উদ্বোধনের ব্যবস্থা থাকে। তবে এবার কোনও রকম উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ছাড়াই আই পি এলের সূচনা হতে চলেছে। আসলে অতিমারির আবহে আবুধাবিতে এবারের আই পি এলের আয়োজন করা হয়েছে। জানাগেছে, সেই জন্যই বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, কোনও রকম উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ছাড়াই এবারের আই পি এল শুরু হবে। পরিকল্পনা ছিল দলের অধিনায়ককে এক সঙ্গে মাঠে নামানোর, সেটা সম্ভবত হবে না। থাকবে না কোনো চিয়ারগার্লও। শোনা যাচ্ছে উদ্বোধনী ম্যাচের টসের আগে সৌরভ গাঙ্গুলী এবং আই পি এল গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান ব্রিজেশ প্যাটেল মাঠে নেমে আই পি এলের সূচনা ঘোষণা করতে পারেন। উদ্বোধনী ম্যাচে মাঠে নামবে চেন্নাই সুপারকিংস ও মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। তবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান না হলেও আই পি এল নিয়ে ক্রীড়া মহলে যথেষ্ট উদ্দীপনা রয়েছে। 

করোনা আবহে এবার অন্য রকম আই পি এল হতে চলেছে। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স সমর্থকদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে অভিনব পরিকল্পনা নিয়েছে। দলের টিম ম্যানেজমেন্ট ট্যুইটারে ৭৯৭৭০১২৩৪৫ নম্বরটি দিয়ে জানিয়েছে এই নম্বরে 'হাই' লিখে পাঠালে অথবা মিস কল দিলেই সমর্থকরা মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এর হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপের সঙ্গে যুক্ত হতে পারবেন।

 আই পি এল ২০২০ সম্প্রচারের দায়িত্বে রয়েছে সরকার ইন্ডিয়া। ইংরেজি, হিন্দি ও বাংলা ভাষার পাশাপাশি অন্যান্য কয়েকটি ভাষায় ম্যাচের ধারাভাষ্য দেওয়া হবে। ধারাভাষ্যকারদের তালিকা প্রকাশ করেছে আই পি এল গভর্নিং কাউন্সিল। লক্ষ্মীরতন শুক্লা, মনোজ তিওয়ারি সহ ৭ জন বাংলাতে ধারাভাষ্য দেবেন। সুনীল গাভাস্কার, ইয়ান বিশপ, কেভিন পিটারসন, অঞ্জুম চোপড়া ও কুমার সাঙ্গাকারা সহ ১৮ জন ইংরেজিতে ধারাভাষ্য দেবেন। হিন্দিতে ধারাভাষ্য দেবেন আশিস নেহেরা, আকাশ চোপড়া, ইরফান পাঠান সহ আট জন। 

এবারের আই পি এলে ১২ জন ভারতীয় আম্পায়ার থাকছেন। তাঁরা হলেন অনিল চৌধুরী, এম সামসুদ্দিন, এস রবি, বীরেন্দ্র শর্মা, নীতিন মেনন, কে এন অনন্তপদ্মনাভন, বিনীত কুলকার্নি, পশ্চিম পাঠক, কে শ্রীনিবাসন, যশবন্ত বোর্দে, উলহাস গান্ধে ও অনিল দান্ডেকার। তিনজন বিদেশি আম্পায়ার হলেন নিউজিল্যান্ডের ক্রীস গাফানে, অস্ট্রেলিয়ার পর রিফিল ও ইংল্যান্ডের রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ।

পাঁচজন ম্যাচ রেফারির মধ্যে রয়েছেন জাভাগাল শ্রীনাথ, মনু নায়ার, প্রকাশ ভাট, ভি নারায়ণ কুট্টি ও শক্তি সিং। ম্যাচ রেফারি ও আম্পায়ার সকলেরই করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে এবং প্রত্যেকের রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। তবুও সকলেই আরব আমীরশাহীতে কোয়ারান্টাইনে রয়েছেন। 

এদিকে প্রথম একাদশে স্থান পাওয়ার জন্য ক্রিকেটারদের মধ্যে কড়া প্রতিদ্বন্দ্বিতা চলছে। তবে কোন দলের টিম কেমন হচ্ছে কেউই পরিস্কার করে কিছু বলছে না। সে তাই হোক আই পি এলের সূচনা এখন সময়ের অপেক্ষা মাত্র।


Post a Comment

0 Comments