চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

শতবর্ষে বর্ধমান ডিস্ট্রিক্ট রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন # উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়সরকারি কর্মচারীদের সুখের দিন শেষ, শ্রম কোড চালু হতে চলেছে সমগ্র ভারতে পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #পূর্ব বর্ধমান জেলায় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এর উদ্যোগে খালবিল ও চুনোমাছ উৎসবের উদ্বোধন ২৫ ডিসেম্বর

করোনা : সামাজিক বয়কট কাটাতে ফুটবল প্রতিযোগিতা

 


করোনা : সামাজিক  বয়কট কাটাতে ফুটবল প্রতিযোগিতা 


সেখ সামসুদ্দিন, মেমারি : দেশের নানান জায়গায় কোভিড রোগী, কোভিড যোদ্ধা ও তাদের পরিবারকে সামাজিক বয়কটের সম্মুখীন হতে হচ্ছে। কোভিড জয়ীরা বাড়ি ফিরে এলেও সেই সমস্যা অনেকাংশে থেকেই যাচ্ছে। আশপাশের মানুষ সহ পাড়া প্রতিবেশী অনেকেই, এমনকি বন্ধুবান্ধবও তাদের সাথে মিশতে চাইছে না। বাস্তবিক ক্ষেত্রে কোভিড রোগীর সাথে শারিরীক দূরত্ব প্রয়োজন হলেও কোভিড জয়ীদের ক্ষেত্রে সেই রকম কোনো নিয়ম নেই। কিন্তু গুজব ও ভুলধারণাবশতঃ এই পরিস্থিতি তৈরী হচ্ছে। সেই ধারণা কাটাতে কোভিড জয়ীদের সাথে সাধারণ খেলোয়ারদের বন্ধুত্বপূর্ণ ম্যাচের আয়োজন করে পল্লীমঙ্গল সমিতি। পাল্লারোডের মাঠে আয়োজিত এই ফুটবল খেলা। 


 বাস্তবে কোভিড জয়ীদের সম্মানের চোখে দেখা উচিত, সামাজিক বয়কট না করা। কোভিড জয়ীরা কোভিড জয়ের পর শারিরীক ভাবে ফিট হয়ে যায় খুব তাড়াতাড়ি, এটাই এই খেলার মাধ্যমে বার্তা দেওয়া হয়। কোভিডের জন্য সচেতনতা দরকার, ভীতি না। পুরস্কারেও অভিনবত্ত রাখা হয়। যে টিম হারবে তাদের উপর দায়িত্ব বর্তাবে তার বাড়ির আশ-পাশের প্রতিবেশীদের কোভিড টেস্ট করানোর জন্য প্রচার চালানো এবং যারা জয়ী হবে তাদের পুরস্কারও অভিনব। উর্দ্ধমুখী বাজারে প্রত্যেকের জন্য ২ কেজি করে আলু দেওয়া হয়। কোভিড জয়ী টিম ৫-৪ গোলে জয়ী হয় ও পরাজিত হয় পল্লীমঙ্গল সমিতি।


Post a Comment

0 Comments