চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

হাওড়া-নিউ জলপাইগুড়ি বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের যাত্রার সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী # ফুটবলে আর্জেন্টিনার বিশ্বজয়, ফ্রান্স কে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ান মেসি # জয়েন্ট এন্ট্রান্স (মেইন) এর প্রথমভাগের পরীক্ষা ২৪ জানুয়ারি থেকে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত # বর্ধমান জেলা রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন এর শতবর্ষ পূর্তি উদযাপন # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায় #সরকারি কর্মচারীদের সুখের দিন শেষ, শ্রম কোড চালু হতে চলেছে সমগ্র ভারতে # পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার # #পূর্ব বর্ধমান জেলায় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এর উদ্যোগে খালবিল ও চুনোমাছ উৎসবের উদ্বোধন ২৫ ডিসেম্বর

বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউ.আই.টি-র ইঞ্জিনীয়ারিং পড়ুয়াদের চূড়ান্ত বর্ষের রেজাল্ট প্রকাশিত


 

বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউ.আই.টি-র ইঞ্জিনীয়ারিং পড়ুয়াদের চূড়ান্ত বর্ষের রেজাল্ট প্রকাশিত 


ডেস্ক রিপোর্ট, সংবাদ প্রভাতী : বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্গত ৬৩ টি সরকারি কলেজের মধ্যে একমাত্র ইঞ্জিনীয়ারিং কলেজের  ফল প্রকাশ হল। বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজটি বর্ধমান শহরের গোলাপবাগ মোড়ে অবস্থিত ইউনিভার্সিটি ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি বা ইউ-আই-টি। গত ২৫শে অগস্ট ইউ-আই-টি-র স্নাতক পর্যায়ের চূড়ান্ত সেমেস্টারের রেজাল্ট প্রকাশিত হল। উল্লেখ্য, কোভিড পরিস্থিতির মধ্যে এই প্রথম বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের কোন কলেজ ২০২০ সালে তাদের চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্র-ছাত্রীদের রেজাল্ট প্রকাশ করতে সক্ষম হল। এ বিষয়ে আমরা যোগাযোগ করেছিলাম ইউ-আই-টি-র অধ্যক্ষ অধ্যাপক অভিজিৎ মিত্রের সঙ্গে। উনি জানালেন, গত ২৩ মার্চ লকডাউনের আগেই ইউ-আই-টি-র সমস্ত বর্ষের মিড-সেমেস্টার পরীক্ষা হয়ে গেছিল এবং লকডাউনের পরেও এপ্রিল মাস থেকে ইন্টারনেটের মাধ্যমে জুন মাস অব্ধি নিয়মিত পঠন-পাঠন হয়েছে। যেহেতু ফাইনাল ইয়ার ইঞ্জিনীয়ারিং পড়ুয়াদের জুন-জুলাই মাসের ভেতর পাঠক্রম শেষ করতেই হয় তাদের চাকরি সংক্রান্ত ব্যাপার মাথায় রেখে, তাই জুন মাসে চূড়ান্ত বর্ষের ৩৭৮ জন ছাত্র-ছাত্রীর কাছে অনলাইন পরীক্ষার জন্য সম্মতি নেওয়া হয়। এরপর জুলাই মাসে রাজ্য সরকারের ও ইউজিসি-র অ্যাডভাইসরি আসার পরে অধ্যক্ষ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সম্মতি নেন অনলাইনে চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্র-ছাত্রীদের পরীক্ষা করানোর জন্য। উনি যে ব্যাপারটা উপাচার্যের কাছে লিখিতভাবে জানান, তা হল, এই অনলাইন পরীক্ষার মাধ্যমে রাজ্য সরকার ও ইউজিসি, উভয় অ্যাডভাইসরি-ই যথাযথভাবে বজায় রাখা হবে। এরপর জুলাই মাসের ভেতরেই চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্র-ছাত্রীদের অনলাইন পরীক্ষা সম্পন্ন হয়। এবং অবশেষে গত ২৫শে অগস্ট বিশ্ববিদ্যালয় সেই রেজাল্ট প্রকাশ করে। এই পুরো প্রক্রিয়ার জন্য অধ্যাপক মিত্র ধন্যবাদ জানিয়েছেন বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও পরীক্ষা-নিয়ামককে -- তাদের সময়োপযোগী সহযোগিতার জন্য, এবং ইউ-আই-টি-র সমস্ত শিক্ষককে – তাদের আন্তরিক প্রচেষ্টার জন্য যে কারণে জুলাইয়ের ভেতরেই পুরো অনলাইন পরীক্ষা পদ্ধতি শেষ করা সম্ভব হয়েছে।

সংবাদ প্রভাতীর তরফ থেকে আমরা ইউ-আই-টি-র চূড়ান্ত বর্ষের সমস্ত ছাত্র-ছাত্রীদের জানাই অভিনন্দন যারা ইঞ্জিনীয়ারিংয়ে সদ্য স্নাতক হলেন এবং সাধুবাদ জানাই ইউ-আই-টি-র অধ্যক্ষ অধ্যাপক অভিজিৎ মিত্রকে যিনি এই প্রতিকূল কোভিড পরিস্থিতির মধ্যেও বিচক্ষণতার সঙ্গে ইঞ্জিনীয়ারিংয়ের চূড়ান্ত বর্ষের সমস্ত ছাত্র-ছাত্রীদের প্রকৃত মূল্যায়ন করে দ্রুততার সঙ্গে তাদের রেজাল্ট প্রকাশ করার ব্যাপারে অগ্রণী ভূমিকা নিলেন। আশা করা যায়, বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্গত বাকি ৬২ টি সরকারি কলেজের চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্র-ছাত্রীদের রেজাল্ট এবার তাড়াতাড়ি প্রকাশিত হবে।


Post a Comment

0 Comments