চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

হাওড়া-নিউ জলপাইগুড়ি বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের যাত্রার সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী # ফুটবলে আর্জেন্টিনার বিশ্বজয়, ফ্রান্স কে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ান মেসি # জয়েন্ট এন্ট্রান্স (মেইন) এর প্রথমভাগের পরীক্ষা ২৪ জানুয়ারি থেকে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত # বর্ধমান জেলা রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন এর শতবর্ষ পূর্তি উদযাপন # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায় #সরকারি কর্মচারীদের সুখের দিন শেষ, শ্রম কোড চালু হতে চলেছে সমগ্র ভারতে # পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার # #পূর্ব বর্ধমান জেলায় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এর উদ্যোগে খালবিল ও চুনোমাছ উৎসবের উদ্বোধন ২৫ ডিসেম্বর

করোনা মোকাবিলায় জামালপুর ব্লক কি লকডাউনের পথে ?



করোনা মোকাবিলায় জামালপুর ব্লক কি লকডাউনের পথে ?


অতনু হাজরা, জামালপুর :  জামালপুরে প্রথম করোনা আক্রান্তের খবর পাওয়া যায় ১৯ জুলাই। তারপর কয়েকদিনের মধ্যেই সংক্রমণ গিয়ে দাঁড়ায় ২২ জনে (যদিও ১ জন হুগলি জেলার)। সেই থেকেই জনমানসে ভয়ের সঞ্চার ও দাবি উঠতে থাকে সম্পুর্ন লকডাউন করা হোক জামালপুরকে। এরই মাঝে ১৩ জনের সুস্থতার খবরে মানুষের মধ্যে আশা জাগে যাক তাহলে হয়তো...। কিন্তু সেখানেও বিধি বাম। গতকাল রাতেই নতুন করে ৩৯ জন করনায় আক্রান্ত হয় জামালপুরে। শোরগোল পড়ে যায় প্রশাসনে। আক্রান্ত হন জামালপুর হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছায় হাসপাতালের স্বাভাবিক কাজকর্ম চালানো মুশকিল হয়ে পড়েছে। একসঙ্গে এতজন আক্রান্তের খবর আসায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে জনমানসে। ফলে আজ সকাল থেকেই আবার জোরালো হয়ে ওঠে লকডাউনের দাবি। সংবাদ প্রভাতী'র পক্ষ থেকেও যোগাযোগ করে  ব্লক অফিসে জানানো হয়। এখন দেখার কোন পথে হাঁটে প্রশাসন।লকডাউন না কি অন্য কিছু। সময় তার উত্তর দেবে। তবে জামালপুরের এই অবস্থার জন্য দায়ী অবশ্য অসচেতন জনগণ।কারণ সরকারের পক্ষ থেকে তো বটেই এমন কি পুলিশ প্রশাসন ও ব্লক প্রশাসনের পক্ষ থেকেও নিয়মিত প্রচার করা হয়েছে মানুষকে সচেতন করা হয়েছে মাস্ক ব্যবহার করতে, সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে, বার বার হাত ধোয়া বা স্যানিটাইজ করা এসব বহুবার বলা হয়েছে। ব্লক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের তরফে আশা কর্মীরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে মানুষকে বুঝিয়েছেন। কিন্তু কিছু মানুষ সচেতনতার বার্তায় গুরুত্ব না দিয়ে সরকারি নির্দেশকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়েছে। যার পরিনতি ক্রমশঃ খারাপের দিকে যাচ্ছে।  পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গেলে এখন লকডাউন ছাড়া আর কি হতে পারে ?


Post a Comment

0 Comments