চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

হাওড়া-নিউ জলপাইগুড়ি বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের যাত্রার সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী # ফুটবলে আর্জেন্টিনার বিশ্বজয়, ফ্রান্স কে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ান মেসি # জয়েন্ট এন্ট্রান্স (মেইন) এর প্রথমভাগের পরীক্ষা ২৪ জানুয়ারি থেকে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত # বর্ধমান জেলা রাইস মিলস অ্যাসোসিয়েশন এর শতবর্ষ পূর্তি উদযাপন # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায় #সরকারি কর্মচারীদের সুখের দিন শেষ, শ্রম কোড চালু হতে চলেছে সমগ্র ভারতে # পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার # #পূর্ব বর্ধমান জেলায় মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এর উদ্যোগে খালবিল ও চুনোমাছ উৎসবের উদ্বোধন ২৫ ডিসেম্বর

কালনা, কাটোয়া, মেমারি পৌর এলাকা সহ পূর্ব বর্ধমানের কয়েকটি পঞ্চায়েত এলাকায় ৩ দিনের জন্য লকডাউন জারি



কালনা, কাটোয়া, মেমারি পৌর এলাকা সহ পূর্ব বর্ধমানের কয়েকটি পঞ্চায়েত এলাকায় ৩ দিনের জন্য লকডাউন জারি

ডেস্ক রিপোর্ট : পূর্ব বর্ধমান জেলায়  করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিনই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। শুক্রবার পর্যন্ত জেলায় ৮ জনের মৃত্যুও হয়েছে। করোনা আক্রান্তের গ্রাফ উর্দ্ধমুখি হওয়ায় কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে প্রশাসনিক কর্তাদের। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বর্ধমান পৌর এলাকার ৩৫ টি ওয়ার্ডে ২২ জুলাই থেকে সাত দিনের জন্য লকডাউন জারি করা হয়েছে। এদিকে রাজ্য জুড়ে সপ্তাহে দু'দিন লকডাউন বলবৎ করা হলেও পূর্ব বর্ধমান জেলায় প্রতিদিনই বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। বাড়ছে কন্টেইনমেন্ট জোনের সংখ্যা। আজ পর্যন্ত জেলায় কন্টেইনমেন্ট জোনের সংখ্যা ১৭৬ টি। স্বাভাবিক ভাবেই অনুমেয় বাস্তব চিত্রটি কোন দিকে যাচ্ছে। জেলা প্রশাসনও কোনো রকম ঝুঁকি নিতে নারাজ। তাই পূর্ব বর্ধমান জেলায় বাড়ানো হলো লকডাউন এলাকার সীমানা।


শুক্রবার পূর্ব বর্ধমানের জেলা শাসক নতুন করে লকডাউনের বিজ্ঞপ্তি জারি করেছেন। কালনা, কাটোয়া এবং মেমারী  পৌর এলাকায় ২৬ থেকে ২৮ জুলাই ৩দিন পুরোপুরি লকডাউন ঘোষণা করেছেন। একই সঙ্গে বর্ধমান শহর লাগোয়া বর্ধমান ১নং ব্লকের সরাইটিকর গ্রাম পঞ্চায়েত, রায়ান ১ নং গ্রাম পঞ্চায়েত এবং বেলকাশ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকাকেও ২৬ থেকে ২৮ জুলাই পর্যন্ত লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। অন্যদিকে পূর্বস্থলী ১ ব্লকের নসরৎপুর গ্রাম পঞ্চায়েত, সমুদ্রগড় গ্রাম পঞ্চায়েত এবং শ্রীরামপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের সমগ্র এলাকায় লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। এরই পাশাপাশি মেমারী ১ ব্লকের দেবীপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এবং মেমারী ২ ব্লকের সাতগাছিয়া মোড়, সাতগাছিয়া বাজার এবং সংশ্লিষ্ট এলাকায় লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে ২৬ থেকে ২৮ জুলাই পর্যন্ত।

জেলা প্রশাসনের তথ্য অনুযায়ী গত ২৪ ঘন্টায় পূর্ব বর্ধমান জেলায় নতুন করে ১৯ জনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। এর বর্ধমান পৌর এলাকার ২, ১০, ১১ ও ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডে একজন করে রয়েছেন। এছাড়া জামালপুর, শ্যামসুন্দর, সেহারা, বৈকুণ্ঠপুর ১, বড়শুল ১, নিমো ১, পাঁচটা ১, ফোঁড়ার, কুসুমগ্রাম, রাজপুর, শ্রীরামপুর, নসরৎপুর এবং কোটা পঞ্চায়েত এলাকায় একজন করে রয়েছেন।

এদিকে পূর্ব বর্ধমান জেলায় নতুন করে ১৯ জন আক্রান্ত হওয়ার মাঝে একজনের মৃত্যুও হয়েছে। এখন পর্যন্ত জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫৪৩ জন। তবে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে এসেছেন ২৮৭ জন। এছাড়া ২৪৮ জন ভর্তি রয়েছেন কোভিড হাসপাতালে।
সামগ্রিক পরিস্থিতির প্রেক্ষিতে দাবি উঠেছে বিক্ষিপ্ত ভাবে না করে পূর্ব বর্ধমান জেলা পুরোপুরি এক সপ্তাহের জন্য লকডাউন করা হোক।


Post a Comment

0 Comments