Scrooling

নন্দীগ্রামে বিজেপি সমর্থক খুনে রিপোর্ট চাইলো কমিশন # ১৮ তম লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল জানা যাবে ৪ জুন

মুখ্যমন্ত্রীর সাধের "যুবশ্রী" প্রকল্পের কয়েক লক্ষ বেকার চরম দুরবস্থায়


মুখ্যমন্ত্রীর সাধের "যুবশ্রী" প্রকল্পের কয়েক লক্ষ বেকার 
চরম দুরবস্থায়

ডেস্ক রিপোর্ট : রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় - এর স্বপ্নের প্রকল্প কন্যাশ্রী সমগ্র বিশ্বে মর্যাদা পেয়েছে। বাংলার ঘরে ঘরে এই প্রকল্পে উপকৃত কয়েক লক্ষ মেয়েরা। অথচ রাজ্যের যুবক-যুবতীদের জন্য ২০১৩ সালে গড়ে তুলেছিলেন যুবশ্রী প্রকল্প। সাত বছরে এই প্রকল্পে নথিভূক্ত কয়েক লক্ষ বেকার যুবক যুবতী ক্ষোভে ফুঁসছে। ইতিমধ্যেই প্রকল্পে নথিভূক্ত বেকাররা "পশ্চিমবঙ্গ যুবশ্রী এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্ক কর্মপ্রার্থী সমিতি" নামে সংগঠন গড়ে তুলেছে। সামান্য ভাতা পেয়ে কিছুদিন সন্তুষ্ট থাকার পর যুবশ্রী সংগঠন আন্দোলনে নেমে পড়েছে। তাদের মূল দাবী ভাতা নয় চাকরী চাই। লকডাউন পরিস্থিতিতে রাজ্য থেকে জেলা সর্বত্র শুরু হয়েছে অনলাইনে আন্দোলন। শুক্রবার 'হুগলী জেলা যুবশ্রী কমিটি'র পক্ষ থেকে জেলা শাসকের কাছে অনলাইনে একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। হুগলি জেলা যুবশ্রী সংগঠনের সদস্য শিমুল বর্মন এক প্রেস বিবৃতিতে জানান, মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি'র এক বছরের মধ্যে চাকরিতে নিয়োগের ঘোষণা সহ ২০১৩ সাল থেকে তৈরি হওয়া যুবশ্রী প্রকল্পের আওতাভুক্ত যুবক-যুবতীদের আজও কোন চাকরির ব্যবস্থা হয়নি। যে সমস্ত যুবশ্রী বন্ধুরা কোন প্রকার একটা বেসরকারী সংস্থায় স্বল্প মজুরিতে কাজে যুক্ত ছিল, করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে অপরিকল্পিত লকডাউনে তাদের অবস্থাও আজ সংকটজনক। লকডাউন পরিস্থিতিতে অনেকেই বেতন পায়নি। এমনকি ছাঁটাই - এর শিকার বহু যুবশ্রী বন্ধু সহ সাধারণ যুবকরা। এমনই এক কঠিন পরিস্থিতিতে "পশ্চিমবঙ্গ যুবশ্রী এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্ক কর্মপ্রার্থী সমিতি'র হুগলী জেলা কমিটি'র পক্ষ থেকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী, শ্রম মন্ত্রী এবং হুগলী জেলা শাসক, সকল এস ডি ও, বি ডি ও সহ বিভিন্ন প্রশাসনিক দপ্তরে অনলাইনে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।
এই স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা দাবীগুলি হলো ১) মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী অবিলম্বে বিভিন্ন সরকারি পদে যোগ্যতা অনুযায়ী 'যুবশ্রী'দের নিয়োগ করতে হবে।
২) জেলার সরকারি স্থায়ী /অস্থায়ী পোস্ট গুলিতে যুবশ্রীদের নিয়োগ করতে হবে।
৩) Annexure-lll বাতিল করতে হবে।
৪) বাজার মূল্য অনুযায়ী উপযুক্ত পরিমাণ উৎসাহ ভাতা দিতে হবে।
৫) যে সমস্ত যুবশ্রী বন্ধুদের ভাতা কোন কারণে বন্ধ হয়ে গেছে, তাদের অবিলম্বে ভাতা চালু করতে হবে।