চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # মাধ্যমিকে যুগ্ম প্রথম বর্ধমান সিএমএস হাই স্কুলের রৌনক মন্ডল এবং বাঁকুড়ার রাম হরিপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অর্ণব ঘড়াই # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়মাধ্যমিকের পর উচ্চমাধ্যমিকেও তাক লাগালো কাটোয়ার অভীক পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের আন্দোলন

এক দেশ এক রেশন কার্ড, কি ভাবে আবেদন করবেন ?

ডেস্ক রিপোর্ট : আজ থেকেই  'এক দেশ, এক রেশন কার্ড' প্রকল্প চালু। দেশের ২০ টি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে প্রাথমিকভাবে এই প্রকল্পের শুরু। 'এক দেশ এক রেশন' ব্যবস্থা চালু হওয়ার পর সাধারণ মানুষ দেশের যে কোনও প্রান্ত থেকে সস্তায় রেশন কিনতে পারবেন৷ তবে এই প্রকল্প কার্যকর করার জন্য প্রতিটি রাজ্যের রেশনের দোকানগুলিতে পিওএস (Point of Sales) মেশিন থাকতে হবে। এই মেশিনে আধার কার্ড ব্যবহার করে পিডিএস সুবিধাভোগীদের পরিচয় যাচাই করা হবে৷
এই সুবিধার জন্য অবশ্য আধার কার্ডের সঙ্গে রেশন কার্ড লিঙ্ক করাতে হবে৷ তবে তার জন্য ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময় দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার৷ তার আগে পর্যন্ত আধার এবং রেশন কার্ড লিঙ্ক না করলেও রেশন মিলবে৷ নতুন রেশন কার্ডের জন্য অনলাইনে আবেদন করা যাবে৷ অনলাইন রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করলে প্রথমে নিজের রাজ্যের খাদ্য এবং সরবরাহ দফতরের ওয়েবসাইটে যেতে হবে৷ এরপর ভাষার নির্বাচন করে কিছু ব্যক্তিগত তথ্যের জবাব দিতে হবে৷ APL, BPL নাকি Antodyay- কোন ধরনের কার্ডের জন্য আবেদন করা হচ্ছে, তা জানাতে হবে৷
এর পর পরিবারের প্রধান, আধার কার্ড নম্বর, ভোটার কার্ড নম্বর, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট এবং মোবাইল নম্বর, ইত্যাদি তথ্য পূরণ করে অনলাইনে আবেদন করতে হবে৷ অনলাইন আবেদনের প্রাপ্তি স্বীকারের একটি প্রিন্ট আউট নিজের কাছে রাখতে হবে৷
আধারের সঙ্গে রেশন কার্ড লিঙ্ক করতে গেলে প্রথম  uidai.gov.in ওয়েবসাইটে যেতে হবে৷ এরপর start now অপশনে ক্লিক করতে হবে৷  যে বিকল্পগুলি পাওয়া যাবে তার মধ্যে থেকে Ration Card scheme বেছে নিতে হবে। নিজের রেশন কার্ড নম্বর, আধার নম্বর, ই মেল অ্যাড্রেস এবং মোবাইল নম্বর লিখে জমা দিতে হবে৷ এর পর মোবাইলে আসা OTP দিলেই প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার বিজ্ঞপ্তি স্ক্রিনে ফুটে উঠবে৷ আবেদন ভেরিফায়েড হয়ে গেলেই আধারের সঙ্গে রেশন কার্ডের সংযুক্তিকরণ হয়ে যাবে৷


এই প্রকল্প কার্যকর হলে উপভোক্তারা দেশের যে কোনও প্রান্ত থেকে একই রেশন কার্ড দিয়ে রেশন তুলতে পারবেন৷ পুরনো রেশন কার্ড সারেন্ডার করে নতুন রেশন কার্ড সংগ্রহ করতে হবে৷ স্থানীয় ভাষার পাশাপাশি ইংরেজি বা হিন্দিতে নতুন রেশন কার্ডে যাবতীয় তথ্য লেখা থাকবে৷ ভারতের যে কোনও নাগরিকই এই রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারবেন৷ ১৮ বছরের  নীচে যাদের বয়স, তাদের নাম বাবা- মায়ের সঙ্গেই রেশন কার্ডে যুক্ত থাকবে৷ নতুন রেশন কার্ডে ৩ টাকা কেজি দরে ৫ কেজি চাল পাওয়া যাবে৷ এছাড়া গম মিলবে ২ টাকা প্রতি কেজি দরে৷ রাজ্যগুলি সব রেশন দোকানে একশো শতাংশ পিওএস মেশিন দিলেই 'এক দেশ এক রেশন কার্ড' প্রকল্প পুরোপুরি কার্যকর হবে৷

                                   তথ্য সূত্র : টাইমস নাও

Post a Comment

0 Comments