চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # মাধ্যমিকে যুগ্ম প্রথম বর্ধমান সিএমএস হাই স্কুলের রৌনক মন্ডল এবং বাঁকুড়ার রাম হরিপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অর্ণব ঘড়াই # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়মাধ্যমিকের পর উচ্চমাধ্যমিকেও তাক লাগালো কাটোয়ার অভীক পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের আন্দোলন

ভুড়ভুড়ি কাটা

ভুড়ভুড়ি কাটা

✳  শিবানন্দ পাল

 ➡ কথা কিন্তু একটাই, ভুড়ভুড়ি।
মানে?
বুদ্বুদ। একটু আওয়াজ দিল, দারুণ হাততালি! রামধনুর সাতটা রঙ চোখে পড়লো ... শূন্যে মিলিয়ে গেল!

উম্পুন-এর ঠ্যালায় ভালো ঘুম হয়নি। সকাল থেকে আকাশের অবস্থা ঘোলাটে। ছিরছিরিয়ে বৃষ্টি চলছে। মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন আজ সকাল থেকে আগামীকাল দুপুর পর্যন্ত যেন বাইরে না বের হ‌ই। বেরুবার প্রশ্ন‌ই নেই। ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি নামল, এলোমেলো দমকা হাওয়া। সেইসঙ্গে পাগলার এলোমেলো কথা। ভালো লাগে!

চায়ের গেলাস নামিয়ে রেখে জিজ্ঞেস করলাম। একটু খোলসা করে বলবি?

পাগলা বললো, প্রধানমন্ত্রীর কুড়ি লক্ষ কোটি টাকার প্যাকেজ-এর কথা বলছি। প্রধানমন্ত্রীর
ঘোষণার পরে অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার জন্য অর্থমন্ত্রী পাঁচ দফা সংস্কারের কথা ঘোষণা করেছেন। লক্ষ্য লকডাউনের কারণে বা তার আগে থেকেই দেশের অর্থনীতিতে যে আর্থিক সংকট চেপে বসেছে, তা কাটানো এবং দেশকে প্রতিযোগিতামূলক অর্থনীতির মুখোমুখি দাঁড় করানো।

হ্যাঁ।

সেজন্য অর্থমন্ত্রীর গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তগুলির প্রতি জাতীয় এবং আন্তর্জাতিকস্তরে বিশেষজ্ঞদের নজর ছিল। গোল্ডম্যান স্যাক্স একটি বহুজাতিক সংস্থা। তারা বলেছে জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর ত্রৈমাসিকে আমাদের দেশে শিল্পোৎপাদন, ব্যবসা-বাণিজ্য প্রভৃতি অর্থনৈতিক কাজকর্ম এপ্রিল থেকে জুন ত্রৈমাসিকের তুলনায় ৪৫% শতাংশ সংকুচিত হতে পারে।

অর্থনীতি নিয়ে ওদের কারবার, ওরা বলতেই পারেন।

এই গোল্ডম্যান স্যাক্স অর্থমন্ত্রীর ঘোষণার আগে জানিয়েছিল ভারতের অর্থনীতিতে এই সংকোচন হবে মাত্র ২০% শতাংশ। গোল্ডম্যান স্যাক্সের অর্থনীতিবিদ প্রাচী মিশ্র ও অ্যান্ড্রু টিল্টন এখন স্পষ্ট মন্তব্য করেছেন চলতি আর্থিক বছরে (২০২০-২০২১) ভারতে 'অভূতপূর্ব মন্দা' দেখা দিতে পারে।

চারদিকেই তো শুনেছি খারাপ অবস্থা ... খারাপ অবস্থা! ভালো কে বলছে?

আহাম্মকের দল বলছে! বার্নস্টেইন আর একটি বিদেশি সংস্থা। তাদের মন্তব্য, 'চলতি অর্থ বছরে ভারতের অর্থনীতি ৭ শতাংশ সংকুচিত হবে'। আর ভারতের নিজস্ব অর্থনৈতিক থিঙ্কট্যাঙ্ক ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর অ্যাপ্লায়েড ইকনমিক রিসার্চ (এনসিএইআর) লকডাউনের পর তাদের প্রথম রিপোর্টে কী বলেছে জানিস?

নিজেদের সংস্থা যখন, নিশ্চয় ভালো কিছু বলেছে?

 তারা জানিয়েছে, চলতি অর্থবছরে দেশের অর্থনীতির বৃদ্ধির হার শূন্যের উপরে টেনে তুলতে হলে কেন্দ্রীয় সরকারকে সরকারি ব্যয়ের বাজেট বরাদ্দ অন্তত ৩ থেকে ৫% শতাংশ বাড়াতে হবে।

একটু স্পষ্ট করে বল!

পাগলা বললো, কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর পঞ্চম ও শেষ কিস্তির ঘোষণার পর অর্থনীতির বিশেষজ্ঞদের ধারণা প্রধানমন্ত্রীর '২০ লক্ষ কোটি টাকার প্যাকেজ'-এর প্রভাব পড়বে মাত্র ১ থেকে ১.৫% শতাংশ।

মানে কিছুই না?

ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর অ্যাপ্লায়েড ইকনমিক রিসার্চ (এনসিএইআর) তাদের ওই রিপোর্টে জানিয়েছে, আগামী এপ্রিল থেকে জুন (২০২১-২২) ত্রৈমাসিকের আগে শিল্প ও পরিষেবা ক্ষেত্র ঘুরে দাঁড়াতে পারবে না, যদি না সরকার প্রকৃত অর্থে কোনও আর্থিক সুবিধা দেয়। এই সংস্থার হিসেব, সরকার ব্যয়বরাদ্দ উল্লেখযোগ্যভাবে না বাড়ালে চলতি অর্থবছরে দেশের জিডিপি কমে যাবে ৪.১% শতাংশ।

বলিসকী?

আন্তর্জাতিক আর্থিক বিশেষজ্ঞ সংস্থা ইডেলউইস গত ১৮ মে রিপোর্ট প্রকাশ করে জানিয়েছে বরাদ্দ জিডিপি'র ১০ শতাংশ বলে যা দাবি করা হয়েছে, আদতে তা বরাদ্দ জিডিপি'র ১ শতাংশেরও কম।

মানুষ যে হ্যাঁ করে প্রধানমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রীর কথা শুনছে? এবিপি আনন্দে সুমন বলছেন ওদের টিআরপি সর্বভারতীয় প্রতিযোগিতায় প্রথম!

এখনো শোন! পাগলা বললো, আর্থার ডি লিটিল আর একটি আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞ সংস্থা তারা কী বলেছে দ্যাখ! তারা বলছে, ভারতে কাজ হারাতে চলেছে কম করে ১৩.৫ কোটি মানুষ। এদের মধ্যে ১২ কোটি মানুষ দারিদ্রসীমার নিচেই তলিয়ে যাবে।

এতো সাংঘাতিক!

ডি লিটিল-এর অনুমান, এই মন্দার ফলে ভারতের আর্থিক বৃদ্ধির হার বর্তমান আর্থিক বছরেই ১০.৮ শতাংশ হারে কমে যাবে। আগামী বছরেও এই মন্দার জের চলবে। খুব ভালো যদি আশা করা হয় তাহলে জিডিপি বৃদ্ধির হার আগামী আর্থিক বছরে মানে ২০২১-২০২২ সালে বাড়তে পারে টেনেটুনে মাত্র ০.৮ শতাংশ।

মানে ১ শতাংশও হবে না?

না। খুব স্বাভাবিকভাবেই বার্নস্টেইনের অর্থনীতিবিদরা মনে করেছেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রীর এই বিশাল বিশাল বলে বলা হচ্ছে! '২০ লক্ষ কোটি টাকার প্যাকেজ' ঘোষণার আড়ালে রয়েছে আসলে ... বিশ্ববাসীকে দেখানো ঠাট! উনি বিশ্ববাসীকে দেখাচ্ছেন যে তাঁর সরকার দেশের অর্থনীতি প্রসঙ্গে যথেষ্ট আন্তরিক ... যত্নবান!

তুই যা বলছিস ... আমার তো একদম বিশ্বাস হচ্ছে না রে!

পুরো ব্যাপারটাই জুমলা! দৈন কোষাগার নিয়ে এরকম বাগাড়ম্বর ঘোষণা না করলে বিদেশি মুদ্রার বাজারে ভারতীয় মুদ্রার দাম ... ভারতের ক্রেডিট রেটিং প্রচুর কমে যাবার আশঙ্কা। আর সেজন্যই ... !

যা খুশি তাই বলে দেবেন!

তুই এমন বলছিস যেন আগে কোনো দিন উনি মিথ্যা বলেননি ... এই প্রথম!

পাগলার কথায় মাথা চুলকোই। পাগলা বলে, করোনা সংক্রমণ রোধে লকডাউন চলায় বিপর্যস্ত অর্থনীতি সামলে উঠতে বিশ্বের নানা দেশ, নানা আর্থিক পরিকল্পনা নিয়েছে। বহু দেশে শ্রমিক-কর্মচারীদের মজুরি নিয়ে আর্থিক পরিকল্পনায় ভরতুকি বরাদ্দ করা হয়েছে। শ্রমিক-কর্মচারীদের যাতে কাজ থেকে ছাঁটাই না করা হয় তার জন্য নানা উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে সেখানে। ভারতে বিরোধী এবং বামপন্থীদলগুলো নানা পরামর্শ দিয়েছিল প্রধানমন্ত্রীকে। তা উনি কারোর পরামর্শ যদি না শোনেন ... অর্থনীতির আমলাদের কথাও শুনলেন না! সব অগ্রাহ্য করে একতরফাভাবে এসব ভুড়ভুড়ি ... বুদ্বুদ সৃষ্টি করলেন, এসব হাওয়ায় ভেসে যাবেই।

ঠিকই নিজেদের দৃষ্টিভঙ্গি থেকে এরা সরতে নারাজ। আবার এদের সরানোর উপায় তো কিছু দেখছি না এই মুহূর্তে!

পাগলা বললো, সাহেবরা চোখে আঙুল দিয়ে আমাদের না দেখালে আমাদের চোখে কিছু ভালো করে ধরা পড়ে না। সেজন্য আন্তর্জাতিক অর্থনীতির আঙ্গিনায় চোখ বোলানো ... ওঁরা কী বলছেন! কিন্তু তাতেও কী দেশবাসীর ভুড়ভুড়ি কাটবে?

বললাম, নাঃ কোনো আশা নেই। এক যদি উম্পুন ওদের উড়িয়ে নিয়ে যায় ... দিয়ে বঙ্গোপসাগরের জলে ফেলে দেয়!

পাগলা হাসলো। বললো, তুই সেই গণিদার মতো কথা বলছিস! উম্পুন তো বঙ্গোপসাগর থেকেই উঠে আসছে! ওদিকে কি করে নিয়ে যাবে? বরং বলতে পারিস বাংলাদেশের ওপর দিয়ে উত্তর কোরিয়ায় পৌঁছে দিক।

তা কী হবে!

পাগলা বললো, তাহলে ভুড়ভুড়ি কাট!

Post a Comment

0 Comments