চৈতন্য মহাপ্রভু'র নামে নব নির্মিত তোরণ উদ্বোধন কাটোয়ার দাঁইহাটে

উচ্চ মাধ্যমিকে রাজ্যের সেরা অদিশা দেবশর্মা, দশের মেধা তালিকায় ২৭২ জন # মাধ্যমিকে যুগ্ম প্রথম বর্ধমান সিএমএস হাই স্কুলের রৌনক মন্ডল এবং বাঁকুড়ার রাম হরিপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অর্ণব ঘড়াই # আধার কার্ডের ফটোকপির অপব্যবহার রুখতে বিজ্ঞপ্তি জারি # ইউনেস্কো'র সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুজো # বাংলার চিকিৎসক উজ্জ্বল পোদ্দার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরার তালিকায়মাধ্যমিকের পর উচ্চমাধ্যমিকেও তাক লাগালো কাটোয়ার অভীক পশ্চিমবঙ্গে কোভিড বিধিনিষেধ প্রত্যাহার #১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের আন্দোলন

লকডাউনে ধারাবাহিক ভাবে ৫০ দিন অভূক্তদের পাশে স্বেচ্ছাসেবী গ্রুপ 'মানুষ মানুষের জন্য'

ডেস্ক রিপোর্ট, বর্ধমান : করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে দেশ জুড়ে লকডাউন চলছে। এর ফলে ফুটপাতবাসী ও ভবঘুরেরা চরম সমস্যায়। অনেকেরই অনাহারে অর্ধাহারে দিন কাটছে। অভুক্তদের মুখে অন্ন তুলে দিতে এগিয়ে এসেছে  স্বেচ্ছাসেবী গ্রুপ 'মানুষ মানুষের জন্য'।  লকডাউন পরিস্থিতিতে ৫০ দিন ধারাবাহিক ভাবে তারা বর্ধমান স্টেশনের ৮ নং প্ল্যাটফর্মের বাইরের দিকে প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে  তাঁবু খাটিয়ে রান্না করে অভূক্তদের মুখে অন্ন তুলে দিচ্ছে। তাদের এই মানবিক উদ্যোগকে উৎসাহ দিতে সামর্থ্য অনুযায়ী চাল, আলু ও নগদ অর্থ দিয়ে পাশে দাঁড়াচ্ছেন অনেকেই।  বর্ধমান মিউনিসিপ্যাল হাইস্কুলের প্রাথমিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক তথা বর্ধমান স্টেশনের সহজ পাঠের শিক্ষক তাপস কুমার পাল  ওদের কাজে অনুপ্রাণিত হয়ে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। 'মানুষ মানুষের জন্য'  ওয়েলফেয়ার সোসাইটির  সভাপতি সেখ পিন্টু বলেন প্রধান শিক্ষক তাপসবাবু শুরু থেকেই  আমাদের পাশে আছেন। আর্থিক ভাবে সহায়তা দিচ্ছেন। তাঁর সহৃদয় উপস্থিততে আমরা খুশি। মানুষ মানুষের জন্য'র পক্ষ থেকে প্রতিদিন ফুটপাতবাসী ভবঘুরে সহ কয়েকশো মানুষের মুখে অন্ন তুলে দিতে পেরে আমরা খুশি। বিভিন্ন দিনে স্পেশাল আইটেমও থাকছে। বৃহস্পতিবার ভাড়াড়ের মোল্লা সামসুদ্দিনের সহায়তায় মাংস ভাত খাওয়ানোর ব্যবস্থা হয়। তিনি সস্ত্রীক উপস্থিত থেকে অভূক্তদের খাবার পরিবেশন করেন।


এছাড়াও এদিন বর্ধমান মিউনিসিপ্যাল হাইস্কুলের প্রাথমিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক তাপস কুমার পাল এবং সমাজসেবী বিশু চৌধুরীও উপস্থিত ছিলেন। লকডাউন সময়ে 'মানুষ মানুষের জন্য' স্বেচ্ছাসেবী গ্রুপের মানবিক কাজকে নজীরবিহীন বলে উল্লেখ করেছেন তাপসবাবু সহ অনেকেই। পিন্টু সেখ'দের মহতী এই কর্মসূচির প্রতি বর্ধমানবাসীর অনেকেই সহানুভূতিশীল। প্রথম দিকে ওরা নিজেদের প্রচেষ্টায় শুরু করলেও পরবর্তী সময়ে ওদের এই কর্মসূচিকে সহায়তা দিতে এগিয়ে এসেছেন অনেকেই। ইতিমধ্যেই মানুষ মানুষের জন্য ওয়েলফেয়ার সোসাইটির  মানবিক উদ্যোগ পূর্ব বর্ধমানে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে 


Post a Comment

0 Comments